রবিবার, ২৯ মে 2022 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   উপসম্পাদকীয়
  জগন্নাথের গর্ব ভাষা শহীদ রফিক
  18, February, 2022, 9:51:34:PM

 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের পাতায় একজন স্মরণীয়-বরণীয় ব্যক্তিত্ব হলেন ভাষাশহীদ রফিকউদ্দিন আহমদ। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের অগ্রসৈনিকদের সম্পর্কে আলোচনা করতে গেলে অবশ্যই ভাষাশহীদ রফিকের নামটাই সর্বপ্রথম উঠে আসবে। ভাষা আন্দোলনে অমর শহীদদের অন্যতম রফিক উদ্দিন আহমদ আমাদের গর্বের জায়গা দখল করে আছেন। বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার দাবিতে ছাত্র-জনতার মিছিলে পুলিশের গুলিতে রফিক বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করতে প্রথম শহীদ হয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে যুক্ত করেন এই আন্দোলনের ইতিহাসে। রাজপথে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছেন লড়াকু এ বীর সৈনিক। ভাষা যে একটি জাতির অস্তিত্ব তা প্রমাণ করতে প্রাণ বিসর্জন দিতে পিছপা হননি তিনি।

দেশ জাতি, সমাজ এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে শহীদ রফিক  অনুপ্রেরণার এক অনন্য উৎস। ভাষা আন্দোলনের সময় রফিক উদ্দিন আহমদ তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের (বর্তমান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) হিসাববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। ১৯২৬ সালের ৩০ অক্টোবর মানিকগঞ্জের সিংগাইরের পারিল বলধারা গ্রামে (বতর্মানে রফিকনগর) আবদুল লতিফ মিয়া এবং রাফিজা খাতুন দম্পতির ঘরে জন্ম নেন প্রতিবাদী ও সাহসী সন্তান রফিক উদ্দিন। শহীদ রফিক তার বাড়ি থেকে ৭ মাইল দূরে অবস্থিত বায়রা উচ্চ বিদ্যালয় হতে ১৯৪৯ সালে ম্যাট্রিকুলেশন পাশ করেন। পরে মানিকগঞ্জের দেবেন্দ্র কলেজে ইন্টারমিডিয়েটে ভর্তি হন। রফিক মানিকগঞ্জের সরকারি দেবেন্দ্র কলেজে ১ম ও ২য় বর্ষে লেখাপড়া করেন। ১৯৫০ সালে দেবেন্দ্র কলেজ থেকে আইএ পরীক্ষা দেন। বাবার প্রিন্টিং ব্যবসা দেখাশুনার জন্য পরবর্তী সময়ে তিনি ঢাকায় চলে আসেন। এরপর ঢাকায় জগন্নাথ কলেজে (বর্তমান বিশ্ববিদ্যালয়) ভর্তি হন। রফিক দেবেন্দ্র কলেজে বাণিজ্য বিভাগে পড়ালেখা করেছেন। তিনি জগন্নাথ কলেজের অনিয়মিত অর্থাৎ সান্ধ্যকালীন কোর্সের ছাত্র ছিলেন বলে জানা যায়। শিক্ষা জীবনের পাশাপাশি তিনি মাঝে-মধ্যে পিতার প্রেসের ব্যবসা দেখাশোনা করতেন। ওই ব্যবসা পরিচালনার স্বার্থেই তিনি জগন্নাথ কলেজের সান্ধ্যকালীণ কোর্সে ভর্তি হন।

তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগে পড়ার সময় শুরু হয় বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে আন্দোলন। এ আন্দোলনে সক্রিয় হয়ে উঠেন রফিক। কিন্তু দিন কয়েক পরেই যে পানু বিবির সঙ্গে রফিকের বিয়ে। তাই ছেলেকে মিছিলে যেতে মানা করেন লতিফ মিয়া। ২১ ফেব্রুয়ারি বিয়ের শাড়ি-গহনা নিয়ে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার কথা ছিল তার। কিন্তু বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ১৯৫২-র ২১শে ফেব্রুয়ারি জগন্নাথ থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে আন্দোলন মিছিলে যান তিনি। তাদের মিছিল ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করলে ঢাকা মেডিকেল কলেজের হোস্টেল প্রাঙ্গণে গুলি চালায় পুলিশ। এতে রফিক মাথায় গুলিবিদ্ধ হন এবং ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। এই ভাষাশহীদ বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ছাত্র-জনতার মিছিলে পুলিশের গুলিতে প্রথম শহীদ হয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসে যুক্ত করেন। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হোস্টেলের ১৭ নম্বর রুমের পূর্বদিকে তার লাশ পড়ে ছিল। ছয়/সাত জন ধরাধরি করে তার লাশ এনাটমি হলের পেছনের বারান্দায় এনে রাখেন। তাদের মাঝে ডাঃ মশাররফুর রহমান খান গুলিতে ছিটকে পড়া রফিকের মগজ হাতে করে নিয়ে যান।

রফিকই পৃথিবীতে ভাষার জন্য প্রথম শহীদের মর্যাদা লাভ করেন। তবে পাকিস্তানী হায়েনারা তাকে মেরেই ক্ষান্ত হয়নি ঢাকা মেডিক্যাল থেকে তার লাশ নিয়ে লুকিয়ে ফেলে এবং জনরোষের ভয়ে মৃত্যু পরবর্তী রাত ৩টায় সামরিক বাহিনীর তত্ত্বাধায়নে ঢাকার আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করে। কিন্তু তাঁর কবরের কোন চিহ্ন রাখা হয়নি।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক আবু সালেহ সেকেন্দার এর ‘ভাষা আন্দোলনে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক গবেষণা প্রবন্ধে একাধিক উৎস থেকে উল্লেখ করা হয়েছে ভাষা শহীদ রফিক উদ্দিন আহমদ জগন্নাথ কলেজের ছাত্র ছিলেন। মাতৃভাষার লড়াইয়ে রাজপথে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিলেন লড়াকু বীর সৈনিক রফিক। ভাষা যে একটি জাতির অস্তিত্ব তা প্রাণ দিয়ে প্রমাণ করতে প্রাণ বিসর্জন দিতে পিছপা হননি জগন্নাথ কলেজের (বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) সাবেক এই শিক্ষার্থী। একজন তরুণ সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে হয়েছিলেন আন্দোলনের অনন্য নায়ক। এ দেশ জাতি, সমাজ এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে শহীদ রফিক চেতনা আর অনুপ্রেরণার এক অনন্য উৎস।

২০০০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশ সরকার শহীদ রফিককে মরণোত্তর একুশে পদকে ভূষিত করে। সরকারিভাবে ২০০৬ সালে তারঁ ‘পারিল’ গ্রামে শহীদ রফিকের নামে ভাষা শহীদ পাঠাগার ও স্মৃতি যাদুঘর স্থাপন করা হয়। যেখানে তার ব্যবহৃত জিনিষপত্র ও প্রচুর বই আছে। তারও আগে প্রশিকার উদ্যোগে তারঁ বাড়ির কাছেই একটি ছোট লাইব্রেরি গঠন করা হয়। যেখানে মূলত তার স্মৃতিগুলো প্রথম থেকে সংরক্ষণ করার ব্যবস্থা করা হয়।

মহান এ ভাষাসৈনিক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই শিক্ষার্থীর স্মৃতি ধরে রাখতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দেরিতে হলেও সম্মান জানিয়েছে। ২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলে পুরনো বিজনেস স্টাডিজ ভবনের নাম পরিবর্তন করে ‘ভাষাশহীদ রফিক ভবন’ নামকরণের প্রস্তাব করা হয়। পরে এই প্রস্তাবটি সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়। নতুন নামকরণ হওয়া ‘ভাষা শহীদ রফিক ভবন’ এ বাংলা আর ইতিহাস বিভাগের কার্যালয় ও মেডিকেল সেন্টার রয়েছে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে তাঁর স্মৃতি রক্ষার্থে নেই কোনো ভাস্কর্য বা স্মৃতি স্তম্ভ।

শহীদ রফিক জগন্নাথের ছাত্র হয়ে ভাষার জন্য জীবন দেয়ায় বর্তমান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সবসময় গর্ববোধ করি। অনেক শিক্ষার্থী হয়তো জানেও না তার ইতিহাস। তাই ভাষা শহীদ রফিকের ভাস্কর্য নির্মাণ ও ইতিহাস সংরক্ষণের দাবি জানাচ্ছে সবাই। ভাষা, সাহিত্য, সংস্কৃতিচর্চা, সমাজকল্যাণসহ মানবিক গুণাবলি বিকাশ উপযোগী ত্রিয়াকলাপে আগ্রহ থেকেই রফিকের মধ্যে সৃষ্টি হয় ঢাকার চলমান রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামে অংশগ্রহণের তাড়না। যা বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের তরুণদের অধিকার আদায়ের আন্দোলনের চেতনা ও অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে। মহান এই ভাষাসৈনিককে যথাযথ সম্মান প্রদর্শনপূর্বক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে একটি স্মৃতিস্তম্ভ বা ভাস্কর্য তৈরি করা যেতে পারে। ভবিষ্যতে কোনো হল নির্মিত হলে তা ভাষাশহীদ রফিকের নামে নামকরণ করা যেতে পারে। শহীদ রফিকের নামে ভাষা শহীদ পাঠাগার ও স্মৃতি জাদুঘর স্থাপন করা যেতে পারে। নতুন ক্যাম্পাসের হলের সামনে হলেও যেন শহীদ রফিকের একটি স্মৃতিস্তম্ভ স্থাপন করা হয়। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শহীদ রফিকের পরিবারকে উপযুক্ত সম্মানে ভূষিত করা হোক, এমনটিই প্রত্যাশা।

আজ এত বছর পরে ফেব্রুয়ারির শুরুতে এ শহীদ ভাইদের প্রতি এবং ভাষা আন্দোলনে অবদান রাখা সবার প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। শুধু একুশে ফেব্রুয়ারি নয়, সারা বছরই যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্ব ভাষাশহীদ রফিকের প্রতি শ্রদ্ধা এবং সম্মানের ডালি অক্ষুণ্ণ থাকে এই আহ্বান সবার কাছে। শহীদ রফিকের নামে বছরের বিভিন্ন সময় অনুষ্ঠানের আয়োজন কিংবা নাটক মঞ্চস্থ করলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে তিনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। ইতিহাসে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দৃষ্টান্ত স্থাপন করা এই ভাষাসৈনিককে যেন বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা ভুলে না যায় সে জন্য প্রশাসনের কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়া জরুরি। মনে রাখতে হবে। ভাষার জন্য যিনি জীবন দিয়েছেন তিনি আমাদের গর্বের ধন আমাদের বড় ভাই ভাষাশহীদ রফিক।

সর্বোপরি ভাষা আন্দোলন আমাদের মুক্তিযুদ্ধের মূল ভিত্তি ও অনুপ্রেরণার জায়গা ছিল। জগন্নাথের ছাত্র ভাষা শহীদ রফিকের স্মৃতি শুধু ভবনের নামের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে পারে না। শহীদ রফিকের স্মৃতি রক্ষার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি স্মৃতি স্তম্ভ বা ভাস্কর্য বানালে সবার কাছে ইতিহাস রক্ষিত হবে। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শহিদ শিক্ষকসহ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতি রক্ষার্থে উদ্যোগ নেওয়া উচিত।


মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ
শিক্ষার্থী ও ক্যাম্পাস সাংবাদিক
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।



   শেয়ার করুন
   আপনার মতামত দিন
     উপসম্পাদকীয়
আত্মহত্যা নয়, বেঁচে থাকায় জীবন
.............................................................................................
আপোষহীন আবুল মাল মুহিত
.............................................................................................
প্রস্তাবিত গণমাধ্যমকর্মী আইন ‘কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা’
.............................................................................................
রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু
.............................................................................................
জগন্নাথের গর্ব ভাষা শহীদ রফিক
.............................................................................................
ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ এবং সম্ভাব্য প্রস্তুতি
.............................................................................................
দেশকে এগিয়ে নিতে ছিন্নমূল পথশিশুদের পুনর্বাসন করতে হবে
.............................................................................................
বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু ও ছাত্রলীগ একটি অপরটির পরিপূরক
.............................................................................................
টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পূর্বশর্ত স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহন
.............................................................................................
ইউপি নির্বাচন : দলীয় প্রতীক তৃণমূলে দলের বারোটা বাজিয়ে দিচ্ছে!
.............................................................................................
টিকটক এবং সামাজিক অবক্ষয়
.............................................................................................
বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প
.............................................................................................
করোনায় বেকারদের অবস্থা শোচনীয়
.............................................................................................
অবক্ষয়ের নতুন ফাঁদ ‌টিকটক
.............................................................................................
রাষ্ট্র, আইন এবং রোজিনারা
.............................................................................................
পথশিশুরাও মানুষ
.............................................................................................
অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও চর উন্নয়ন
.............................................................................................
নির্ভীক পদচারণার ৫০ বছর
.............................................................................................
সর্বত্র জয় হোক বাংলা ভাষার
.............................................................................................
বাঙালির চেতনা ও প্রেরণার প্রতীক একুশে ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনামুক্ত বাংলাদেশ চাই
.............................................................................................
দেশের অর্থনীতির চাকা ঘুরাতে পর্যটন শিল্প হতে পারে অন্যতম হাতিয়ার
.............................................................................................
প্রয়োজন দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন, নৈতিকতা ও মূল্যবোধ চর্চা
.............................................................................................
এইচএসসি পরীক্ষা বাতিল: লাভ-ক্ষতির হিসাব-নিকাশ ও গৃহীত পদক্ষেপ
.............................................................................................
সুনীল অর্থনীতি এবং বাংলাদেশের নতুন দিগন্ত উন্মোচন
.............................................................................................
নারীবাদ ও বর্তমান প্রেক্ষাপট
.............................................................................................
সামাজিক অবক্ষয়ের ব্যাপকতায় কলুষিত সমাজ ব্যবস্থা
.............................................................................................
আসুন মাদকমুক্ত সমাজ গড়ি
.............................................................................................
শোক সন্তপ্ত ১৫ই আগস্টঃ একটি কালো অধ্যায়
.............................................................................................
হৃদয়ের নিভৃত কন্দরে বঙ্গবন্ধু অমলিন
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্র-চীন উত্তেজনার শেষ কোথায়
.............................................................................................
প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় কতটুক প্রস্তুত বাংলাদেশ?
.............................................................................................
লাশের দেশ বাংলাদেশ
.............................................................................................
কোরবানীর আনন্দ উদযাপন হোক প্রতিবেশীদের নিয়ে
.............................................................................................
স্বাস্থ্যখাতের সকল অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর হতে হবে
.............................................................................................
কৃষক বাঁচলে, বাঁচবো আমরা
.............................................................................................
বাংলা একাডেমির আধুনিকায়ন প্রয়োজন
.............................................................................................
মুখোশের আড়ালে আমরা সবাই হাওয়াই মিঠাই
.............................................................................................
করোনাভাইরাস ও আমরা
.............................................................................................
করোনা বাস্তবতায় ভার্চুয়াল কোর্ট বনাম অ্যাকচুয়াল কোর্ট
.............................................................................................
ইসরায়েলি দখলদারিত্বে অস্তিত্ব সংকটে ফিলিস্তিন
.............................................................................................
চীন সীমান্তে নাস্তানাবুদ অথচ বাংলাদেশ সীমান্তে গুলি, ভারত কি চায়?
.............................................................................................
পূর্বাভাসহীন শত্রুর তান্ডবে বিধ্বস্ত বিশ্ব
.............................................................................................
করোনা মোকাবেলায় অতন্দ্র প্রহরী “গণমাধ্যম”
.............................................................................................
জিপিএ ফাইভ ও উচ্চ শিক্ষাই মেধাবী নির্ণয়ের মাপকাঠি নয়
.............................................................................................
আসুন, অসহায়দের মুখে হাসি ফোটাই
.............................................................................................
কি হবে বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও তাদের শিক্ষকদের!
.............................................................................................
৭ই জুন স্বাধিকার থেকে স্বাধীনতা আন্দোলনে উত্তরণের দিবস
.............................................................................................
নিউ নর্মাল, বদলে যাওয়া পৃথিবী
.............................................................................................
পরিবেশ রক্ষায় আমরা কতটা সচেতন?
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT