শুক্রবার, ২২ অক্টোবর 2021 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   চিত্র-বিচিত্র -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
২ সন্তানের জননী চাচীকে বিয়ে করলেন ভাতিজা

সখীপুর(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি :
দীর্ঘদিনের পরকীয়ার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে চাচার দুই সন্তানসহ প্রাথমিক স্কুল শিক্ষিকা চাচী রহিমা আক্তার রুমাকে (৩৫) বিয়ে করলেন বহুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলাম।

উপজেলার কালিদাস পানাউল্লাহপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিজের স্ত্রী সন্তান থাকতেও চাচার কাছ থেকে চাচীকে ভাগিয়ে নিয়ে দুই সন্তানসহ বিয়ে করায় বিষয়টি রাজনৈতিক মহল, এলাকাবাসী ও চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন জায়গায় আলোচনার ঝড় বইছে।

জানা যায়, ১৯৯৮ সালে উপজেলার কালিদাস পানাউল্লাহপাড়া গ্রামের রাইজ উদ্দিনের ছেলে ইমান আলীর সাথে নলুয়া মোল্লাপাড়া গ্রামের আমির মোল্লার মেয়ে রহিমা আক্তার রুমার বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক বছর পরই ভাসুর হাজী আবদুল ছবুর মুন্সীর ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা শরিফুল ইসলামের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন রহিমা। এর ফলে দিনদিন রহিমা তার স্বামী ইমান আলীর সাথে দূরত্ব সৃষ্টি করতে থাকে। এক পর্যায়ে বিষয়টি সারা গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে শরিফকে এ পথ থেকে ফেরাতে তার পরিবার ২০১৭ সালে বাসাইলের ময়থা গ্রামে বিয়ে করান। এতেও শরীফ আর রহিমা সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করা যায়নি। অবশেষে ২০১৯ সালে চাচীকে দিয়ে চাচাকে ডিভোর্স করান শরীফুল।

সবশেষে দুই পরিবারের সমঝোতায় গেল সপ্তাহে বিয়ের মাধ্যমে ভাতিজা শরীফুল ইসলাম ও চাচী রহিমা আক্তার রুমির দেড় যুগের পরকীয়ার অবসান ঘটলো।

রহিমা ও তার ভাই আনোয়ার মোল্লার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা উভয়ই বিয়ে হওয়ার সত্যতা স্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম জানান, শরিফুল ও রহিমার পরিবারের সমঝোতার মাধ্যমে এ বিয়েটি সম্পন্ন করা হয়েছে এবং তা শরিফের বর্তমান স্ত্রীও মেনে নিয়েছে।

বহুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া সেলিম বলেন, নিজের স্ত্রী সন্তান থাকার পরও সমাজে নেতৃত্বদানকারী ব্যক্তি হয়ে শরিফুল ইসলামের এরকম একটি কাজ করা ঠিক হয়নি।

রহিমার স্বামী ইমান আলী জানান, শরিফ আমার ভাতিজা হয়ে আমার সুখের সংসার জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাড়খার করে দিয়েছে। আমার সন্তান দুটোকে সে এতিম করেছে। আমি ওই লম্পট ভাতিজার বিচার চাই।

২ সন্তানের জননী চাচীকে বিয়ে করলেন ভাতিজা
                                  

সখীপুর(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি :
দীর্ঘদিনের পরকীয়ার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে চাচার দুই সন্তানসহ প্রাথমিক স্কুল শিক্ষিকা চাচী রহিমা আক্তার রুমাকে (৩৫) বিয়ে করলেন বহুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলাম।

উপজেলার কালিদাস পানাউল্লাহপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিজের স্ত্রী সন্তান থাকতেও চাচার কাছ থেকে চাচীকে ভাগিয়ে নিয়ে দুই সন্তানসহ বিয়ে করায় বিষয়টি রাজনৈতিক মহল, এলাকাবাসী ও চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন জায়গায় আলোচনার ঝড় বইছে।

জানা যায়, ১৯৯৮ সালে উপজেলার কালিদাস পানাউল্লাহপাড়া গ্রামের রাইজ উদ্দিনের ছেলে ইমান আলীর সাথে নলুয়া মোল্লাপাড়া গ্রামের আমির মোল্লার মেয়ে রহিমা আক্তার রুমার বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক বছর পরই ভাসুর হাজী আবদুল ছবুর মুন্সীর ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা শরিফুল ইসলামের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন রহিমা। এর ফলে দিনদিন রহিমা তার স্বামী ইমান আলীর সাথে দূরত্ব সৃষ্টি করতে থাকে। এক পর্যায়ে বিষয়টি সারা গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে শরিফকে এ পথ থেকে ফেরাতে তার পরিবার ২০১৭ সালে বাসাইলের ময়থা গ্রামে বিয়ে করান। এতেও শরীফ আর রহিমা সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করা যায়নি। অবশেষে ২০১৯ সালে চাচীকে দিয়ে চাচাকে ডিভোর্স করান শরীফুল।

সবশেষে দুই পরিবারের সমঝোতায় গেল সপ্তাহে বিয়ের মাধ্যমে ভাতিজা শরীফুল ইসলাম ও চাচী রহিমা আক্তার রুমির দেড় যুগের পরকীয়ার অবসান ঘটলো।

রহিমা ও তার ভাই আনোয়ার মোল্লার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা উভয়ই বিয়ে হওয়ার সত্যতা স্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম জানান, শরিফুল ও রহিমার পরিবারের সমঝোতার মাধ্যমে এ বিয়েটি সম্পন্ন করা হয়েছে এবং তা শরিফের বর্তমান স্ত্রীও মেনে নিয়েছে।

বহুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া সেলিম বলেন, নিজের স্ত্রী সন্তান থাকার পরও সমাজে নেতৃত্বদানকারী ব্যক্তি হয়ে শরিফুল ইসলামের এরকম একটি কাজ করা ঠিক হয়নি।

রহিমার স্বামী ইমান আলী জানান, শরিফ আমার ভাতিজা হয়ে আমার সুখের সংসার জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাড়খার করে দিয়েছে। আমার সন্তান দুটোকে সে এতিম করেছে। আমি ওই লম্পট ভাতিজার বিচার চাই।

গরুর গোস্তে আল্লাহর নাম!
                                  

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :
কখনো পাথরে, কখনো গাছের পাতায়, কখনো মাছের গায়ে আরবি বর্ণে ‘আল্লাহ’ শব্দটি রয়েছে এমন কথা শোনা গিয়েছে। এবার পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে গরুর গোস্তের একটি টুকরাতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিনের নাম ‘আল্লাহু’ লেখা ভেসে ওঠেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সোমবার (১৬ই আগস্ট) পটুয়াখলী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার ২নং মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের মানসুরাবাদ গ্রামের মৃধা বাড়িতে রান্না করা গরুর গোস্তের টুকরায় ‘আল্লাহু’ লেখা চমকপ্রদ এ ঘটনা ঘটেছে।

জানতে চাইলে মো: মিজানুর রহমান এর স্ত্রী মরিয়ম বেগম বলেন, কোরবানীর গোস্ত  ফ্রিজে রাখা ছিল। সকালে ফ্রিজ থেকে বের করে গোস্ত রান্না করার সময় পাতিলে এক টুকরা গোস্ত ভেসে উঠে দেখেন। পরে আরো নাড়লে আল্লাহ লেখা গোস্তের খন্ডটি পাতিলে না ডুবে বার বার ভেসে উঠে দেখে তা তুলে নেয়, এবং লেখা দেখেন আল্লাহর নাম। তিনি দেখে আশ্চর্য হয়ে বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিক তার বড়ভাই মো: কবিরকে জানান। এতে পুরো এলাকায় জানাজানি হয়ে যায়। জানা যায়, গোস্তে আল্লাহু লেখা একনজর দেখতে উৎসুক নারী-পুরুষ ওই বাড়িতে ভিড় করতে থাকে।

স্থানীয় বাসিন্দা মানসুরাবাদ ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা মো: নুরুল আলম গোস্তের টুকরাটি দেখে এতে ‘আল্লাহু’ লেখা থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বরিশালে জন্ম নেয়া দুই মাথা ও তিন পা যুক্ত শিশুর মৃত্যু
                                  

বরিশাল ব্যুরো :
নগরীর ইসলামিয়া হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে জন্মগ্রহণ করা দুই মাথা ও তিন পা যুক্ত শিশুটি কয়েক ঘন্টার মধ্যেই মারা গেছে। নগরের মুসলিম গোরস্থানে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তার দাফন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিশুটির বাবা আব্দুল জলিল।

এরআগে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে নগরীর ইসলামিয়া হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে শিশুটি ভূমিষ্ট হয়। পরে শারিরীক সমস্যার কারনে শিশুটিকে রাতে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তির পর ওয়ার্ডে নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে শিশুটি মারা যায়।

শিশুর স্বজনরা জানান, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার বকশির ঘটিচর এলাকার বাসিন্দা আব্দুল জলিলের স্ত্রী শারমিন বেগম (৩৫) গর্ভধারণ কালের বয়স পাঁচ মাস হওয়ার পর স্থানীয় চিকিৎসকের দ্বারস্ত হন। এসময় পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে দুটি মাথা থাকার কথা স্বজনরা জানতে পারেন। পরবর্তীতে পিরোজপুরে চিকিৎসকের দ্বারস্ত হলে হলে তারা দুটি বাচ্চার কথা বলেন।

এরপর মঙ্গলবার (৬ জুলাই) বরিশালের গাইনী চিকিৎসক ডাঃ তানিয়া আফরোজের কাছে যান শারমিন। এসময় তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জোড়া লাগানো দু’মাথা ওয়ালা বাচ্চার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে সিজারের মাধ্যমে বাচ্চা প্রসব করান। ইসলামিয়া হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ওই নারী পুর্ণাঙ্গ সময়েই বাচ্চা প্রসব করেছেন। সিজারের পর কিছুটা রক্তের সংকট দেখা দিলেও বর্তমানে তিনি সুস্থ রয়েছেন।

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো পাত্রভর্তি পুরনো ধাতব মুদ্রা
                                  

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রাজাগাঁও ইউনিয়নের রাজারামপুর গ্রামে মাটি খোঁড়ার সময় একটি ধাতবপাত্র পাওয়া গেছে– যার মুখ খুলে ভেতরে পাওয়া গেছে অনেক পুরনো ধাতব মুদ্রা। মুদ্রাভর্তি ধাতব পাত্র পেয়ে গোপন করার চেষ্টা করেন জমির মালিক। মঙ্গলবার বিকালে ধাতব মুদ্রা উদ্ধারের ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হয়।

মুদ্রাগুলোর গায়ে ১৮৮২, ১৮৮৭, ১৮৯০, ১৯০৭ ইত্যাদি সাল উল্লেখ করা আছে। রাজারামপুর গ্রামের কেশব চন্দ্র বর্মণের বাড়ির মাটি খোঁড়ার সময় গত শনিবার ধাতব মুদ্রাভর্তি পাত্রটির সন্ধান মেলে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার বলরামপুর উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কেশব চন্দ্র বর্মণ শৌচাগারের রিং স্থাপনের জন্য মাটি খোঁড়ার কাজ করছিলেন।

গত শনিবার মাটি খোঁড়ার কাজটির জন্য মহেন্দ্র চন্দ্র বর্মণ নামে এক শ্রমিককে নিয়োগ করেন। মাটি খোঁড়ার একপর্যায়ে মহেন্দ্র একটি পাত্রের অস্তিত্ব টের পান। আগ্রহ থেকে আরও বেশ কিছুটা খোঁড়ার পর পাওয়া যায় একটি ধাতব পাত্র। পাত্রটি খুলে তিনি ভেতরে মুদ্রা দেখতে পান।

পরে মুদ্রা ভরা পাত্রটি তিনি কেশবের হাতে তুলে দেন। কেশব বিষয়টি গোপন রাখতে মহেন্দ্রকে অনুরোধ করেন। গত সোমবার মহেন্দ্র খোশগল্প করার সময় পাত্রভর্তি ধাতব মুদ্রা পাওয়ার ঘটনাটি বলে দেন। এর পর তা এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়ে রাত সাড়ে ১১টার দিকে কেশবের বাড়ি থেকে পাত্রভর্তি মুদ্রাগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। মঙ্গলবার বিকালে ধাতব মুদ্রা উদ্ধারের ঘটনা এলাকায় জানাজানি হয়।

থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। রুহিয়া থানার এসআই মনির হোসেন বিষয়টি তদন্ত করছেন। তিনি জানান, পাত্রে ১৪৩টি ধাতব মুদ্রা পাওয়া গেছে। কোনো কোনো মুদ্রার গায়ে ১৮৮২, ১৮৮৭, ১৮৯০, ১৯০৭ ইত্যাদি সাল উল্লেখ করা আছে। মুদ্রাগুলো প্রত্নতাত্ত্বিক ও সরকারি সম্পদ হওয়ায় সেগুলো রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেওয়া হবে।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

রাজশাহীতে ৯৫০ টাকায় বিক্রি হলো একটি আম
                                  

রাজশাহী প্রতিনিধি : রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলায় ওয়াজ মাহফিলে দান করা একটি আম ৯৫০ টাকায় নিলামে বিক্রি হয়েছে।  দেখতে সুন্দর রঙিন অসময়ে গাছে ধরা আমটির ওজন প্রায় ৩০০ গ্রাম। মোহনপুর উপজেলার বসন্তপুর গ্রামে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে এই নিলাম হয়। ওই আমটি ৯৫০ টাকায় কেনেন একই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক নামে এক যুবক।

আমটি অধিক দামে বিক্রির খবর এলাকার ছড়িয়ে পড়লে পরদিন বুধবার সকালে ওই যুবকের বাড়িতে ভিড় জমান আশপাশের উৎসুক জনতা। আমটির সঙ্গে সেলফিও তোলেন অনেকে। ওয়াজ মাহফিলের সভাপতি মো. দেরাজ উদ্দীন জানান, উপজেলার মৌগাছি ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামের একটি ওয়াক্তিয়া মসজিদের উন্নতিকল্পে ইসলামি জলসার আয়োজন করে মসজিদ কমিটি।

মসজিদের উন্নয়নকল্পে সবাই সেখানে দান করেন।  মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওয়াজ চলার সময় স্থানীয় এক নারী আমটি দান করেন। অসময়ের আম দেখে সবার মধ্যে কৌতুহল সৃষ্টি হয়। সাধারণত বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলে দান করা জিনিসগুলো ডাকের মাধ্যমে বিক্রি করা হয়।  বিক্রির সেই টাকা দানের মধ্যে গণ্য হয়।  তবে অবিশ্বাস্য হলেও সত্য; ওই রঙিন আমটি ৯৫০ টাকায় নিলামে বিক্রি হয়েছে।

সব জিনিস বিক্রি হওয়ার পর আমটি নিলামে তোলা হয়। আমটি কিনতে দাম হাকাতে শুরু করেন স্থানীয়রা। আমটির দাম ২০ টাকা থেকে শুরু হয়; এরপর দাম গিয়ে ঠেকে ৯৫০ টাকায়। আমটি কেনেন আব্দুর রাজ্জাক। মসজিদ কমিটির সদস্য সাদেকুল আলম বলেন, মসজিদের উন্নয়নে অনেকেই অনেকে মুরগি, ডিম, সোনার নাকফুল, ফলমূলসহ বিভিন্ন জিনিস দান করেন। কিন্তু সবার নজর ছিল ওই রঙিন পাকা আমটির দিকেই।

অসময়ের এই আম নিলামে বেশি টাকায় বেচা হবে এমনটি ধারণা করেছিলাম। শেষ পর্যন্ত সেটিই হয়েছে। যেখানে সোনার নাকফুলের দাম ১ হাজার ৫০ টাকা উঠেছে সেখানে একটি আমের মূল্যই উঠেছে ৯৫০ টাকা!

আমটির ক্রেতা আব্দুর রাজ্জাক বলেন, মসজিদের উন্নয়ন ও মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি পেতে আমটি এত দামে কিনেছি। মসজিদের জিনিস বেশি দামে কিনলে আমার ওই টাকাগুলো কাজে দেবে। অসময়ের আম কিংবা উৎসাহের বসে এমনটা করিনি।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

বিড়ালছানাকে বাঁচাতে আগুনে ঝাপ দিল কুকুর
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : হিংসা, বিদ্বেষ, লোভ আর আত্মকেন্দ্রিকতা যখন মানুষকে ঘিরে ধরেছে তখন বিরল কিছু ঘটনা সবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয় আমরা কতটা বদলে গেছি। মানবতা থেকে দূরে আছি কতটা। এমন সময়ে সেসব বিরল ঘটনা নতুন করে আমাদের জীবনের কথা শেখায়।  

তেমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ইউক্রেনে। খেলার সঙ্গী বিড়ালছানাকে বাঁচাতে অগ্নিকুণ্ডে লাফ দিয়েছিল একটি কুকুর।

ব্রেথফুল ডটকমের এক খবর জানানো হয়েছে, সম্প্রতি ইউক্রেনের ডিফেন্স ইন্ডাস্ট্রি কোম্পানিতে আগুন লেগেছিল। মুহূর্তের মধ্যে ভয়াবহ আগুন গ্রাস করে নেয় পুরো এলাকা। সেখানে যারা ছিলেন, সবাই নিজের প্রাণ বাঁচাতে নিরাপদ আশ্রয়ের আশায় ছোটাছুটি শুরু করেন। আর সবার মতো কোম্পানির এক কর্মীও পালাতে থাকেন ঘটনাস্থল থেকে। এসময় তার সঙ্গে ছিল পোষা কুকুর।

আচমকা ওই কর্মী খেয়াল করেন পোষা কুকুরটি তার বিপরীত দিকে দৌড়ে যাচ্ছে। প্রথমে তিনি বিষয়টি বুঝতে পারেননি। অবাক হয়ে তাকিয়ে থাকেন কুকুরটির দিকে। কিছুক্ষণের মধ্যেই তার শখের কুকুরটি দৃষ্টিসীমা থেকে হারিয়ে যায়। এর কিছু সময় পর তিনি দেখতে পান, আগুনের বিরুদ্ধে লড়াই করে ফিরে আসছে তার পোষা কুকুর। কিন্তু মুখে কিছু একটা কামড়ে ধরে আছে। কাছে আসার পর দেখতে পান তার মুখে ছোট্ট বিড়াল ছানাটি, যে ছিল তার খেলার সঙ্গী। তখন ওই কর্মী বুঝতে পারেন জীবনের মায়া ছেড়ে দিয়ে কেন আগুনে ঝাঁপ দিয়েছিল কুকুরটি।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

১০৫ সন্তান নেয়ার লক্ষ্যে এগার শিশুর মা ক্রিস্টিনা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : শিশুদেরকে ভালো লাগা এবং তাদের প্রতি অনেক ভালোবাসা তেইশ বছর বয়সী ক্রিস্টিনার। এতোমধ্যে তিনি ১১ সন্তানের মা হয়েছেন। ১১ সন্তানের মধ্যে ১০ জনেরই জন্ম হয়েছে অন্য নারীর গর্ভ ভাড়া নিয়ে। তাদের মধ্যে শুধু একটি সন্তান ক্রিস্টিনার গর্ভে বেড়ে উঠেছে। ক্রিস্টিনা উজটার্কের আশা ১০৫ সন্তানের মা হবেন তিনি।

ক্রিস্টিনার স্বামী গালিপ উজটার্ক জর্জিয়ায় বড় একটি হোটেলের মালিক। কোটিপতি এই দম্পতির অথের্র কোনো অভাব নেই। ক্রিস্টিনার স্বামীও বাচ্চা খুব ভালোবাসেন। দুজনেই চান, বহু সন্তান তাদের সংসারে আসুক। আর জর্জিয়ায় সন্তান জন্মের জন্য গর্ভ ভাড়া বেআইনি নয়।

ছয় বছর আগে একজন কন্যাসন্তানের জন্ম দেন ক্রিস্টিনা উজটার্ক। সেই সন্তানের নাম ভিকা। ভিকার পর তাদের সব সন্তান অন্য নারীর গর্ভে বেড়ে উঠেছে। সেখানে গর্ভ ভাড়া নেওয়াটা যথেষ্ট খরচের ব্যাপার। তার পরেও ২৩ বছরের কোটিপতি ক্রিস্টিনা এবং তার স্বামীর শিশুপ্রেমের কাছে তা নেহাতই ছোট বিষয়।

ক্রিস্টিনা জানান, ১০ সন্তানের জন্য মোট ৮০ হাজার ইউরো খরচ হয়েছে। ১০ সন্তানের মধ্যে কনিষ্ঠ অলিভিয়া। গত মাসের শেষে জন্ম হয়েছে তার।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

৪৬ হাজার টাকার এক কাতল মাছ ধরা পড়ল পদ্মায়
                                  

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি : মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় পদ্মা নদীতে ধরা পড়েছে ২৯ কেজি ওজনের বিশাল আকৃতির একটি কাতল মাছ। মাছটি একনজর দেখতে ভিড় করেন উৎসুক জনতা। কাতলটি ১ হাজার ৬০০ টাকা কেজি দরে ৪৬ হাজার ৪০০ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।

আজ বুধবার ভোরে পূর্ব ছিডারচরের উজানের অদূরে পদ্মা নদীতে উজ্জ্বল নামে এক জেলের জালে ধরা পড়ে মাছটি। পরে সকালে মাওয়াঘাটের নাদিম মৎস্য আড়তের মাছ ব্যবসায়ী মো. জালাল মৃধার আড়ত থেকে ৪৬ হাজার ৪০০ টাকায় ওই কাতল মাছটি কিনে নেন ঢাকার এক ব্যবসায়ী।

মাওয়াঘাটের নাদিম মৎস্য আড়তের সাধারণ সম্পাদক হামিদুল ইসলাম জানান, সকালে কাতল মাছটি পাইকারি দরে ৪০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়।  এর পর মাওয়াঘাটের নাদিম মৎস্য আড়তের মাছ ব্যবসায়ী মো. জালাল মৃধার আড়ত থেকে ৪৬ হাজার ৪০০ টাকায় ওই কাতল মাছটি কিনে নেন ঢাকার এক ব্যবসায়ী।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

লন্ডন জাদুঘরে রাখা হলো ‘শিশু ট্রাম্পকে’
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : যুক্তরাজ্যের লন্ডন জাদুঘরে জায়গা পেল ‘শিশু ট্রাম্পের’ আদলে বানানো ব্যঙ্গমূর্তি বেবি ব্লিম্প । ২০১৮ সালের যুক্তরাজ্য সফরের সময় লন্ডনে বিক্ষোভ হয়েছিল।

বিক্ষোভকারীরা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে স্লোগান তুলেছিলেন। মিছিলের মতো শোভাযাত্রা করেছিলেন। সবকিছু ছাপিয়ে সে সময় এই বেবি ব্লিম্পই হয়ে উঠেছিল প্রতিবাদের কেন্দ্রবিন্দু।

লন্ডন জাদুঘরের পরিচালক শ্যারন এমেন্ট বলেন, বেবি ব্লিম্পটি সংগ্রহ করার মাধ্যমে আমরা ঐ আন্দোলন স্মরণ করতে পারছি যা পুরো শহরজুড়ে হয়েছিল। আমরা আশা করি এই বেবি ব্লিম্প ট্রাম্পের বিপক্ষে লন্ডনে যে আন্দোলন হয়েছিলো তার কথা মনে করিয়ে দেবে।

নিকট সময়েই যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতা ছাড়ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগামি ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

ডিএসপি মেয়েকে ইন্সপেক্টর বাবার স্যালুট
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : পুলিশের ইন্সপেক্টর বাবা আর ডেপুটি সুপারিন্টেনডেন্ট অব পুলিশ (ডিএসপি) মেয়ে। পদমর্যাদায় মেয়ের অবস্থান বাবার
অনেক উপরে। কর্মরত অবস্থায় বাবা-মেয়ের দেখা। সঙ্গে সঙ্গে মেয়েকে স্যালুট দিয়ে বসলেন বাবা। আর সেই ছবিই সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সম্প্রতি ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যে এ ঘটনা ঘটেছে। রবিবার বাবা-মেয়ের হাস্যোজ্জ্বল এ ছবিটি অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশের অফিশিয়াল টুইটার পেজে পোস্ট করা হয়।

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল জেলা গুন্টুরে সার্কেল ইন্সপেক্টর হিসেবে কর্মরত শ্যাম সুন্দর। সেখানে সম্প্রতি তার মেয়ে জেসি প্রশান্তি পুলিশের ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট (ডিএসপি) হিসেবে যোগ দেন। রাজ্য পুলিশের এক অনুষ্ঠানে মেয়েকে দেখে স্যালুট দেন শ্যাম সুন্দর। এ সময় বাবাকেও স্যালুট দেন জেসি। পুলিশের ইউনিফর্ম পরা বাবা-মেয়ের অসাধারণ সেই মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দী করেন অপর কর্মকর্তারা।

বাবা মেয়ের এই আবেগ-উচ্ছ্বাসের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশংসিত হয়েছে। পরে ডিএসপি প্রশান্তি জানান, বাবা তাকে স্যালুট করছেন, দেখতে মোটেই ভাল লাগেনি তার, অস্বস্তিই হচ্ছিল। তিনি বলেন, ডিউটিতে থাকাকালীন অবস্থায় এই প্রথম দেখা হল বাবার সাথে। আমায় স্যালুট করতে দেখে অস্বস্তি হচ্ছিল, যতই হোক, বাবা তো! আমি বলেছিলাম আমায় স্যালুট না করতে, কিন্তু ব্যাপারটা ঘটে গেল। আমিও পাল্টা স্যালুট করি।

জেসি বলেছেন, বাবা আমার কাছে বিরাট অনুপ্রেরণার উৎস। ছোটবেলা থেকে তাকে নিরন্তর মানুষের সেবা করতে দেখেই বড় হয়েছি। যেভাবে পারতেন, মানুষকে সাহায্য করতেন। সেটা দেখেই এই পেশা বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পুলিশ বিভাগ সম্পর্কে আমার মনোভাব অত্যন্ত ইতিবাচক।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

পদ্মা নদীতে ধরা পড়ল ২৪ কেজি ওজনের বাঘাইড় মাছ
                                  

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি : পদ্মা নদীতে ধরা পড়ল ২৪ কেজি ওজনের বাঘাইড় মাছ। মাছটির ওজন ২৪ কেজি ১০০ গ্রাম। আজ সোমবার ভোররাতে মুন্সীগঞ্জের শরীয়তপুরে পদ্মা থেকে মাছটি ধরা পড়ে জাকির হোসেনের জালে। তিনি লৌহজং উপজেলার ডহড়ি গ্রামের জেলে।

মাওয়ার পাইকারি মাছ বিক্রেতা মো. রাজিব মাদবর নিলামে ৩৩ হাজার টাকায় মাছটি কেনেন। পরে ৩৪ হাজার টাকায় ঢাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করেন।

মাওয়া ঘাটের নাদিম মৎস্য আড়তের মালিক মো. জালাল মিয়া জানান, আজ সকাল সাড়ে ৬টায় জেলেরা মাছটি বিক্রির জন্য আনেন। বিশাল সাইজের মাছটি দেখার জন্য তখন ভিড় জমে যায়। এরকম বিশাল সাইজের বাঘাইড় মাছ সচরাচর পদ্মায় ধরা পড়ে না। অনেক দিন পর এরকম সাইজের বিরল প্রজাতির বাঘাইড়ের দেখা মিলল।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

কঠিন পাথুরে ভূমিতে ১২ ফুটের ধাতব স্তম্ভ, ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : লাল পাথুরে জমি। তার মধ্যেই দাঁড়িয়ে ধাতুর তৈরি ত্রিকোণ স্তম্ভ। চকচকে, মসৃণ। উচ্চতা প্রায় দু’মানুষ সমান। আমেরিকার উটাহ রাজ্যের দক্ষিণ প্রান্তের এই মরুভুমির মধ্যে কে বসালো এই স্তম্ভটি? সরকারি পক্ষ থেকে কোনো স্পষ্ট জবাব মেলেনি। তবে তদন্ত শুরু হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই ‘উড়ে এসে, জুড়ে বসা’ স্তম্ভটি নিয়ে তুমুল রহস্য তৈরি হয়েছে। খবর চাউর হতেই ঝাঁপিয়ে পড়েছেন নেটিজেনরা। তত্ত্ব-পাল্টা তত্ত্বে সরগরম হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। কেউ বলছেন, এলিয়ানরাই এই রুক্ষভূমিতে স্তম্ভটি বসিয়ে দিয়ে গিয়েছে। কারও মতে, এটি ইউএফও’র অংশ। তবে সাইন্স ফিকশন ছবির পরিচালক স্ট্যানলে কুব্রিকের ভক্তরা আবার এই স্তম্ভের মধ্যে ‘২০০১ : স্পেস ওডিসি’ ছবির মিল খুঁজে পাচ্ছেন। একে এক শিল্পীর ভাস্কর্যও বলে দাবি করছেন কেউ কেউ।

ঘটনার সূত্রপাত গত বুধবার আমেরিকার উটাহ রাজ্যের দক্ষিণ ভাগে। সেখানকার জনসুরক্ষা দপ্তরের কর্মীর নজরে আসে প্রায় ১২ ফুট লম্বা ধাতব স্তম্ভটি। এর উপর দিয়ে বিমান নিয়ে যাওয়ার সময় পাইলট ব্রেট হাচিংস প্রথম সেটি দেখেন। সঙ্গে সঙ্গে সহকর্মীদের খবর দেন তিনি। উটাহ হাইওয়েতে নজরদারির দায়িত্বে থাকা এক কর্মকর্তা বলেন, দেখে কোনোভাবে স্তম্ভটিকে ভিনগ্রহের বলে মনে হয়নি। তবে শক্ত পাথুরে জমিতে কে বা কারা সেটি পুঁতে দিয়ে গেছে, সেব্যাপারে কোনো জবাব দিতে পারেননি তিনি। স্থানীয় প্রশাসন এই নিয়ে ধাঁধা জিইয়ে রেখে বলেছে, আপনি মহাবিশ্বের যেকোনো প্রান্তেরই হোন না কেন, অনুমতি ছাড়া সরকারি জমিতে কোনো রকম কাঠামো তৈরি বা কিছু বসানো সম্পূর্ণ বেআইনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই রহস্যময় স্তম্ভটির সঠিক অবস্থানও জানতে চাইছেন প্রশাসনের কাছে। তবে এখনই এব্যাপারে কোনো তথ্য দিতে নারাজ আধিকারিকরা। তাদের আশঙ্কা, এর অবস্থান জানতে পারলেই বহু মানুষ সেখানে ভিড় জমাবেন। তাতে অন্য সমস্যা তৈরি হতে পারে।

এদিকে, শুধু তত্ত্বের কচকচানি নয়, মনোলিথটি নিয়ে মজার মজার পোস্টও করছেন নেটিজেনরা। ইনস্টাগ্রামে একজন লিখেছেন, ‘এটি ২০২০ সালের ‘রিসেট বাটন’। দয়া করে কেউ এটি টিপে দেবেন?’ আর এক ইউজার মজা করে লিখেছেন, ‘এর মধ্যেই করোনার ভ্যাকসিন রয়েছে।’ সূত্র : বর্তমান

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

ছয় গর্ভবতী স্ত্রীকে নিয়ে স্বামী বিয়ের আসরে
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : গর্ভবতী ছয় নারীকে নিয়ে এক বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন প্রিটি মাইক। ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে ওই ছবি প্রকাশ করে তিনি জানান, ওই ছয়জনই তার সন্তান গর্ভে ধারণ করছেন। ঘটনাটি আফ্রিকার দেশ নাইজেরিয়ার এবং প্রিটি মাইক নামে ওই ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টের মালিকের আসল নাম মাইক ইজে-নওয়ালি নুয়োগু। তিনি নাইজেরিয়ার বৃহত্তম শহর লাগোসের একটি নাইট ক্লাবের মালিক।

প্রিটি মাইক ইনস্টাগ্রামে তার আড়াই লাখ ফলোয়ারকে জানান, ‘কোনো কারসাজি নয়... আমরা আমাদের জীবনের সেরা সময় যাপন করছি’। ওই ছয় গর্ভবতী নারী তার সন্তানের মা হবে উল্লেখ করেন। এসময় তিনি প্রত্যেকের বেবি বাম্প স্পর্শ করে দেখার ভিডিও দিয়েছেন। ব্রিটেনের ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রিটি মাইকের এর আগে একাধিক গার্লফ্রেন্ড ছিল। গত বছরের সেপ্টেম্বরে তিনি পাঁচজন নারীকে নিয়ে বিয়ের পোশাকে পোজ দিয়েছিলেন। ছবির নিচে তিনি লিখেন, `আমার তিনজন গার্লফ্রেন্ড এবং দুজন এক্সকে (সাবেক প্রেমিকা) বিয়ে করা আমার স্বপ্ন।

২০১৭ সালে তিনি একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে কুকুর বাঁধার চেইনে একটি মেয়েকে বেধে এনে তিনি সমালোচনার শিকার হন। পরে এ কারণে তিনি গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন। তার সর্বশেষ ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর অনেকে তার সমালোচনা করেছেন। অনেকে তার এই  কাজকে ‘একই পাগলামি’ হিসেবে মনে করছেন।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

নিঃসঙ্গতা কাটাতে ১০৫ বছর বয়সে বিয়ে
                                  

নাটোর প্রতিনিধি : বার্ধক্যের নিঃসঙ্গতা ঘোচাতে নাটোর সদর উপজেলার পুকুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আহাদ আলী মণ্ডল ১০৫ বছর বয়সে বিয়ে করেছেন। যদিও সংসার জীবনে তার চার ছেলে ও তিন মেয়ে রয়েছে।

আহাদ আলী ওরফে আদি মণ্ডলের স্ত্রী না থাকায় নিঃসঙ্গতায় ভুগছিলেন তিনি। তাই এ বৃদ্ধ বয়সে এসেও একাকিত্ব দূর করতে বিয়ের করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। রীতিমতো পাত্রীও পেয়ে যান। একই এলাকার ৮০ বছর বয়সী অমেলা বেগমকে গতকাল বুধবার রাতে বিয়ে করেন তিনি।

জানা যায়, অমেলা বেগমের দুই মেয়ে রয়েছে। নাতি-নাতনিও আছে। বর-কনের উভয় পরিবারের সম্মতিতেই বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

বিয়েতে ৫০ হাজার ৬৫০ টাকা দেনমোহরের ৬৫০ টাকা নগদ পরিশোধ করেন আহাদ আলী মণ্ডল। তাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে স্থানীয় লোকজন যোগ দেন। এ সময় সবার মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়। পরে নবদম্পতির দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করা হয়।

আদি মণ্ডল জানান, চার ছেলে ও তিন মেয়ে থাকলেও স্ত্রী না থাকায় বৃদ্ধ বয়সে একাকিত্ব লাগছিল তার। নিঃসঙ্গতা কাটাতে তাই অমেলা বেগমকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। নতুন জীবনের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

পরীক্ষার মাঝেই ছেলের জন্ম দিলেন শিক্ষার্থী
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : পরীক্ষার মাঝেই ফুটফুটে ছেলের জন্ম দিলেন শিকাগোর আইনের শিক্ষার্থী ব্রিয়ানা হিলস।

প্রথম দিনের পরীক্ষার পরই হাসপাতালে গিয়ে সন্তানের জন্ম দেন এবং পরদিন হাসপাতালেরই একটি কক্ষে বাকি পরীক্ষাটুকুও দেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্প্রতি ভাইরাল হয় ব্রিয়ানার এই খবর।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

সবার উপরে বান্দর
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : ভারতের অন্যতম বৃহত্তম ব্যবসায়ী আনন্দ মাহিন্দ্রা। তিনি সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম টুইটারে বেশ সক্রিয়। ইতোমধ্যেই নিজের টুইটের মাধ্যমে অনেকের জীবন বদলে দিয়েছেন আনন্দ।

অনেকের স্বপ্ন সফল করাতেও অবদান রেখেছেন এই ব্যবসায়ী। সেই টুইটারে এবার  আকর্ষণীয় প্রতিযোগিতা শুরু করেছেন তিনি। মাত্র একটি ছবির ক্যাপশন লিখেই গাড়ির মালিক হওয়ার স্বপ্ন পূরণের সুযোগ দিয়েছেন আনন্দ মাহিন্দ্রা।

আনন্দর এই প্রতিযোগিতা থেকে আপনি জিতে নিতে পারেন মাহিন্দ্রার স্কেল মডেল গাড়িটি। নিউজ কোলকাতা টোয়েন্টিফোরের।

প্রতিযোগিতা অংশগ্রহণের নিয়ম খুবই সহজ। আনন্দ মাহিন্দ্রা টুইটারে একটি ছবি শেয়ার করেছেন। এই ছবিতে একটি বাঁদর বসে রয়েছে ডিটিএইচের ছাতার ওপর। এই ছবির জন্য হিন্দি এবং ইংরেজি ভাষায় ক্যাপশন চেয়েছেন মাহিন্দ্রা।

পাশপাশি তিনি জানিয়েছেন, এই প্রতিযোগিতায় দুইজন বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে। তাদের দেওয়া হবে মাহিন্দ্রার স্কেল মডেল গাড়ি। তবে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া যাবে ১১ অক্টোবর দুপুর ২টা পর্যন্ত।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ


   Page 1 of 7
     চিত্র-বিচিত্র
২ সন্তানের জননী চাচীকে বিয়ে করলেন ভাতিজা
.............................................................................................
গরুর গোস্তে আল্লাহর নাম!
.............................................................................................
বরিশালে জন্ম নেয়া দুই মাথা ও তিন পা যুক্ত শিশুর মৃত্যু
.............................................................................................
মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো পাত্রভর্তি পুরনো ধাতব মুদ্রা
.............................................................................................
রাজশাহীতে ৯৫০ টাকায় বিক্রি হলো একটি আম
.............................................................................................
বিড়ালছানাকে বাঁচাতে আগুনে ঝাপ দিল কুকুর
.............................................................................................
১০৫ সন্তান নেয়ার লক্ষ্যে এগার শিশুর মা ক্রিস্টিনা
.............................................................................................
৪৬ হাজার টাকার এক কাতল মাছ ধরা পড়ল পদ্মায়
.............................................................................................
লন্ডন জাদুঘরে রাখা হলো ‘শিশু ট্রাম্পকে’
.............................................................................................
ডিএসপি মেয়েকে ইন্সপেক্টর বাবার স্যালুট
.............................................................................................
পদ্মা নদীতে ধরা পড়ল ২৪ কেজি ওজনের বাঘাইড় মাছ
.............................................................................................
কঠিন পাথুরে ভূমিতে ১২ ফুটের ধাতব স্তম্ভ, ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য
.............................................................................................
ছয় গর্ভবতী স্ত্রীকে নিয়ে স্বামী বিয়ের আসরে
.............................................................................................
নিঃসঙ্গতা কাটাতে ১০৫ বছর বয়সে বিয়ে
.............................................................................................
পরীক্ষার মাঝেই ছেলের জন্ম দিলেন শিক্ষার্থী
.............................................................................................
সবার উপরে বান্দর
.............................................................................................
কুমারি নারীতে রাজার আসক্তি
.............................................................................................
গাছ স্বামীর সঙ্গে বিবাহবার্ষিকী পালন
.............................................................................................
মানুষের বিচার ব্যর্থ, অতঃপর ছাগলের বিচারে মুগ্ধ সবাই
.............................................................................................
মঙ্গলগ্রহে জমি কিনলেন বাঙালি যুবক, রেজিস্ট্রিও সম্পন্ন
.............................................................................................
যমজে যমজে বিয়ে, একই সঙ্গে অন্তঃস্বত্তা
.............................................................................................
তিন লাখ ডলারে একটি ফোন নম্বর বিক্রি
.............................................................................................
রাতে মাস্ক পরা যেখানে বাধ্যতামূলক
.............................................................................................
খাটো মানুষ বেশি মেজাজী হয়!
.............................................................................................
১৮ হাজার ইয়াবাসহ একজন আটক
.............................................................................................
১৩ কোটি টাকায় একটি মাস্ক
.............................................................................................
যে কারণে সূর্যের রং লাল হয়
.............................................................................................
করোনায় রূপ নিল পকোড়া
.............................................................................................
ব্যাংকঋণ না পেয়ে কিডনি বিক্রির বিজ্ঞাপন!
.............................................................................................
গরু-মহিষের আবাসিক হোটেল!
.............................................................................................
যুবতী থেকে এক রাতেই যুবকে পরিণত, একনজর দেখতে লোকজনের ভিড়!
.............................................................................................
প্রেমিকের পুরুষাঙ্গ ‘হেয়ার স্ট্রেটনার’ দিয়ে পোড়ালেন তরুণী
.............................................................................................
যেখানে চলে প্রকাশ্যে নারী কেনাবেচা!
.............................................................................................
বিয়ে ছাড়াই সন্তানের মা!
.............................................................................................
২০টি ডিম পেড়েছে এ কিশোর
.............................................................................................
বিশ্বের প্রথম ভাসমান দেশ!
.............................................................................................
মঙ্গল গ্রহের বাসিন্দা ছিলেন এই যুবক!
.............................................................................................
ছাগলের পেট থেকে মানবাকৃতির বাচ্চার জন্ম!
.............................................................................................
৩০ জনকে খুন করে মাংস খাওয়া দম্পতি
.............................................................................................
এদিনের মধ্যে ৫৭ জন নারীর সঙ্গে যৌনসঙ্গম করে বিশ্ব রেকর্ড!
.............................................................................................
সেলফিপ্রেমীদের শীর্ষ ১০ শহর!
.............................................................................................
এক পরিবারের ১৪ জনই মোবাইল চোর!
.............................................................................................
গর্ভবতীর পেটের উপর ২০ হাজার মৌমাছি!
.............................................................................................
চার বছরের ছেলেকে দিয়ে যৌনকর্ম; আটক অষ্টাদশী তরুণী
.............................................................................................
শরীর এক, রক্তের গ্রুপ দুই!
.............................................................................................
বাছুরকে স্বামী বানিয়ে সংসার করছেন নারী!
.............................................................................................
সন্তান প্রসবের সময়ও সেলফি!
.............................................................................................
কুমিরের মুখে যুবকের মাথা!
.............................................................................................
চীনের রাস্তায় আগুন-বৃষ্টি!
.............................................................................................
এবার তামাক দিয়ে চলবে বিমান!
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT