রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ভোক্তা অধিকারের কর্মকর্তা পরিচয়ে চাঁদাবাজি, গ্রেপ্তার ৮

স্টাফ রিপোর্টার:

রাজধানীর মিরপুর মডেল থানার দক্ষিণ পীরেরবাগ এলাকায় ভোক্তা অধিকার কর্মকর্তা সেজে চাঁদাবাজি করার সময় ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে মিরপুর থানা-পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া সকলেই পেশাদার অপরাধী বলে জানিয়েছে পুলিশ।  শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) গভীর রাতে পীরেরবাগ এলাকার আল বারাকা বেকারি নামের একটি প্রতিষ্ঠানে চাঁদাবাজি করার সময়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আজ শনিবার বিকেলে এই তথ্য সাংবাদিকদের জানান মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মো. শাহিন ওরফে বল্লা শাহিন (২৫), মো. ইউসুফ চৌধুরী (২৮), মো. আবদুল আলিম (২৩), মো. মামুন কাজী (৩২), মো. দেলোয়ার হোসেন (২৬), সুলতান মাহিদ পিয়াস (৩৩), সুলতান মাহিদ পিয়াস (৩৩), মো. তুষার (৩১) ও মো. রাহাদ (২৮)।  

জানা গেছে, বল্লা শাহিন ২০১৯ সালে মিরপুরে আলোচিত সুমন হত্যা মামলার প্রধান আসামি। এই চক্রের সদস্যরা এর আগে পুলিশ কর্মকর্তা সেজে চাঁদাবাজি করার সময় মোহাম্মদপুর থানা-পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন।  

ওসি মহসীন বলেন, মিরপুরের পীরেরবাগ এলাকায় শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীরা আল বারাকা বেকারিতে প্রবেশ করেন। সেখানে শাহিন প্রথমে নিজেকে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। কিন্তু এত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান প্রতিষ্ঠানটির কর্মচারীরা। এই সময়ে দলের অন্য সদস্যরা বেকারিতে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা ও অভিযোগ আছে উল্লেখ করে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখান। এক পর্যায়ে বেকারির কর্মচারীরা সাড়ে ১৩ হাজার টাকা দিলেও তাঁরা (বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীরা) বিভিন্ন গালিগালাজ করেন। এ সময় দোকানের এক কর্মচারী কৌশলে বিষয়টি পুলিশকে ফোন করে জানালে বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীদের গ্রেপ্তার করা হয়।

মোহাম্মদ মহসীন জানান, এই চক্রটি দীর্ঘদিন ভোক্তা অধিকার, কখনো পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা করে আসছে। ২০২০ সালে মোহাম্মদপুরে তাঁরা পুলিশ সেজে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে গ্রেপ্তার হন। এ ঘটনায়ও তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। গ্রেপ্তার বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীরা পেশাদার অপরাধী। শাহিনের বিরুদ্ধে মাদক, চাঁদাবাজি, হত্যা প্রচেষ্টাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৪টি মামলা রয়েছে। সুলতান মাহিদ পিয়াসের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে ৩ টি। অন্যদের বিরুদ্ধে দুটি করে মামলা থাকার তথ্য পাওয়া গেছে।  

চাঁদাবাজির ঘটনায় আজ শনিবার তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। পাঁচজনের এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জু করেন আদালত। বাকিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

ভোক্তা অধিকারের কর্মকর্তা পরিচয়ে চাঁদাবাজি, গ্রেপ্তার ৮
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

রাজধানীর মিরপুর মডেল থানার দক্ষিণ পীরেরবাগ এলাকায় ভোক্তা অধিকার কর্মকর্তা সেজে চাঁদাবাজি করার সময় ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে মিরপুর থানা-পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া সকলেই পেশাদার অপরাধী বলে জানিয়েছে পুলিশ।  শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) গভীর রাতে পীরেরবাগ এলাকার আল বারাকা বেকারি নামের একটি প্রতিষ্ঠানে চাঁদাবাজি করার সময়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আজ শনিবার বিকেলে এই তথ্য সাংবাদিকদের জানান মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মো. শাহিন ওরফে বল্লা শাহিন (২৫), মো. ইউসুফ চৌধুরী (২৮), মো. আবদুল আলিম (২৩), মো. মামুন কাজী (৩২), মো. দেলোয়ার হোসেন (২৬), সুলতান মাহিদ পিয়াস (৩৩), সুলতান মাহিদ পিয়াস (৩৩), মো. তুষার (৩১) ও মো. রাহাদ (২৮)।  

জানা গেছে, বল্লা শাহিন ২০১৯ সালে মিরপুরে আলোচিত সুমন হত্যা মামলার প্রধান আসামি। এই চক্রের সদস্যরা এর আগে পুলিশ কর্মকর্তা সেজে চাঁদাবাজি করার সময় মোহাম্মদপুর থানা-পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন।  

ওসি মহসীন বলেন, মিরপুরের পীরেরবাগ এলাকায় শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীরা আল বারাকা বেকারিতে প্রবেশ করেন। সেখানে শাহিন প্রথমে নিজেকে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। কিন্তু এত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান প্রতিষ্ঠানটির কর্মচারীরা। এই সময়ে দলের অন্য সদস্যরা বেকারিতে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা ও অভিযোগ আছে উল্লেখ করে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখান। এক পর্যায়ে বেকারির কর্মচারীরা সাড়ে ১৩ হাজার টাকা দিলেও তাঁরা (বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীরা) বিভিন্ন গালিগালাজ করেন। এ সময় দোকানের এক কর্মচারী কৌশলে বিষয়টি পুলিশকে ফোন করে জানালে বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীদের গ্রেপ্তার করা হয়।

মোহাম্মদ মহসীন জানান, এই চক্রটি দীর্ঘদিন ভোক্তা অধিকার, কখনো পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা করে আসছে। ২০২০ সালে মোহাম্মদপুরে তাঁরা পুলিশ সেজে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে গ্রেপ্তার হন। এ ঘটনায়ও তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। গ্রেপ্তার বল্লা শাহিন ও তাঁর সহযোগীরা পেশাদার অপরাধী। শাহিনের বিরুদ্ধে মাদক, চাঁদাবাজি, হত্যা প্রচেষ্টাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৪টি মামলা রয়েছে। সুলতান মাহিদ পিয়াসের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে ৩ টি। অন্যদের বিরুদ্ধে দুটি করে মামলা থাকার তথ্য পাওয়া গেছে।  

চাঁদাবাজির ঘটনায় আজ শনিবার তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। পাঁচজনের এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জু করেন আদালত। বাকিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

ই টিকিটিংয়ে ও বাড়তি ভাড়া আদায়
                                  

মো: আজমাইন মাহতাব

ই-টিকেটিং মেশিন গলায় ঝুলিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে বাড়তি ভাড়া। পরিবহনের এমন লুটপাট বাণিজ্য থামানোর জন্য কোথাও কেউ নেই বলে অভিযোগ যাত্রীদের। ভাংতি সমস্যা, মেশিন নষ্টসহ বিভিন্ন খোড়া যুক্তি চালক-হেলপারদের।ঢাকার বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ঠেকাতে পরীক্ষামূলকভাবে চালু ই-টিকেটিং পদ্ধতি কেমন চলছে সেই বিষয়ে খোঁজ নিতে গিয়ে এভাবে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ মেলে।

বাসের ই-টিকেটিং ব্যবস্থা দেখতে শনিবার  (৪ ফেব্রুয়ারি ) সকাল ৮টায়  যাত্রাবাড়ি থেকে মিরপুরমুখী শিকড় পরিবহনে যাত্রা শুরু। সেই বাসে চড়ে কাওরানবাজার থেকে মিরপুর ১০ যাচ্ছিলেন রুনা আক্তার । মেশিন থেকে ১৮ টাকার টিকেট তার হাতে ধরিয়ে নেয়া হলো ২০ টাকা। রুনা আক্তার এর  মতো অনেক যাত্রীর কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে দেয়া হয়নি
টিকেট। এ যেনো প্রতিদিনের দৃশ্য, জানালেন যাত্রীরা।

এরপর মিডলাইন  একটি বাসেও ই-টিকেট নিয়ে অনিয়ম চোখে পড়ে। হেলপারের গলায় ই-টিকেট মেশিন ঝুলছে, কিন্তু  ভাড়া আদায় করা হচ্ছে বিনা টিকেটে। অনেকের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া।

রাস্তায় যত্রতত্র যাত্রী নামিয়ে টিকেট ছাড়াই নেয়া হচ্ছে ভাড়া। নিরুপায় যাত্রীরাও মুখ বুজে সহ্য করছেন এসব অনাচার।

মিরপুর রুটের দেড় হাজার এবং উত্তরা ও আজিমপুর রুটের এক হাজার বাসে ই-টিকেটিং চালু করা হলেও বাস্তবে তা কার্যকর আছে খুব কম রুটেই।

শুধু বাড়তি ভাড়া নয়, আগের মত স্টপেজ ছাড়া ইচ্ছেমত যাত্রী তোলা এবং টিকেট ছাড়া ভাড়া আদায় করতেও দেখা গেছে বাসকর্মীদের।

রাজধানীর কাঁঠালবাগানে ৫তলা ভবনে আগুন
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক:

রাজধানীর কাঁঠালবাগান বাজারের ফ্রি স্কুল স্ট্রিটের একটি পাঁচতলা ভবনে আগুন লেগেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের দুইটি ইউনিট।

শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টায় আগুন লাগে বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার রাকিবুল ইসলাম।

তিনি বলেন, রাজধানীর কাঁঠালবাগান বাজারের ফ্রি স্কুল স্ট্রিটের একটি পাঁচতলা ভবনে আগুন লেগেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের দুইটি ইউনিট।

প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও হতাহতের কোনো খবর জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা।

শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে: মেয়র আতিক
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক:

স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, ‘দেশজুড়ে শহরের পাশাপাশি গ্রাম পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন হয়েছে। গ্রামের স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা এখন দেশ-বিদেশে সুনামের সঙ্গে কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন।স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে। ’

আজ শুক্রবার কুমিল্লার তিতাস উপজেলার লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের চার তলা ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। আরও উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার, কুমিল্লা জেলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম প্রমুখ।

‘গ্রামের একটি স্কুলের সফলতার জন্য সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকতে হবে। লালপুর গ্রামের এই স্কুলটি শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও গ্রামবাসীর সহযোগিতায় এগিয়ে চলেছে। জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুলের শিক্ষার্থীর ভালো করছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রী আজ নিজে এসে স্কুলের চার তলা ভবন উদ্বোধন করেছেন। আশা করছি, স্কুলটির সুনাম ও সফলতা অব্যাহত থাকবে’, বলেন মেয়র আতিক।

স্বামী-স্ত্রীর মাদক চক্রে ১০-১২ তরুণী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

গাজীপুরের কালিয়াকৈর এবং নওগাঁ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পাঁচ কোটি টাকা মূল্যের ৫ কেজি ৪০০ গ্রাম হেরোইনসহ তিনজন মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তাদের মধ্যে দুইজনই নারী মাদক কারবারি রয়েছেন। স্বামী-স্ত্রী মিলে ১০ থেকে ১২ জনের একটি মাদক চক্র গড়ে তুলেছেন। ওই চক্রের মূলহোতা উঠতি বয়সের তরুণীদের মাধ্যমে কৌশলে দেশের বিভিন্ন এলাকায় মাদক কারবার পারিচালনা করছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।
 
শুক্রবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন।  

তিনি জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে র‌্যাব সদর দফতরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১২ এর অভিযানে গাজীপুরের কালিয়াকৈর এবং নওগাঁ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় মাদক কারবার চক্রের অন্যতম মূলহোতা মো. শাকিবুর রহমান ওরফে শাকিব (৩৫), তার সহযোগী মোসা. রাজিয়া খাতুন (৩৩) ও মোসা. সেলিনা খাতুন ওরফে শিরিনাকে (৩৮) গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া ৫ কেজি ৪০০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়। যার বাজার মূল্য পাঁচ কোটি টাকা।  

সেলিনা খাতুন ওরফে শিরিনা শাকিবের স্ত্রী। সে তার স্বামীর মাদক কারবারের সহযোগী। পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে আনা হেরোইনের একটি অংশ শাকিব নিজ বাড়িতে তার স্ত্রীর কাছে রাখত। বিভিন্ন সময় তাদের আস্থাভাজন মাদক কারবারিরা তাদের বাড়িতে হেরোইন সংগ্রহ করতে আসলে সেলিনা তাদের হেরোইন সরবরাহ করত। এছাড়া রাজিয়া শাকিবের হেরোইন চক্রের অন্যতম সহযোগী। সে প্রায় এক বছর যাবত এই হেরোইন কারবারের সাথে জড়িত। সে রাজশাহী, বগুড়া, নওগাঁ, সিরাজগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় হেরোইন সরবরাহ করত। সে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার শাকিবের সাথে তার মোটরসাইকেলযোগে বিভিন্ন স্থানে হোরোইন সরবরাহ করেছে। পূর্বের ন্যায় সে গতকাল শাকিবের সাথে গাজীপুর ও সাভারের বিভিন্ন স্থানে হেরোইন সরবরাহ করার জন্য নওগাঁ থেকে রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়।

খন্দকার আল মঈন জানান, গ্রেফতার আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ওই চক্রটি পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে রাজশাহীর গোদাগাড়ীর সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে নদীপথে প্রতি মাসে ৪-৫ কেজি হেরোইন নিয়ে আসে। মাদক পরিবহনের কৌশল হিসেবে শাকিব নারী সদস্যদের ব্যবহার করত। তাদের মাদক কারবার চক্রে ১০-১২ জন সক্রিয় নারী সদস্য রয়েছে। তারা চাহিদা অনুযায়ী বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, গাজীপুর, জামালপুর, নারায়ণগঞ্জ এবং সাভারসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রতিনিয়ত ৫০০/৬০০ গ্রাম করে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে পাঠিয়ে দিত। প্রত্যেকটি চালান পরিবহনের জন্য তারা বহনকারীকে ১৫-২০ হাজার টাকা প্রদান করত। মাদক চালানের পরিমাণ বেশি থাকলে শাকিবুর বিভিন্ন সময় তার নিজের মোটরসাইকেলযোগে পরিবহন করত। এই চালানে ৩ কেজির বেশি হওয়ায় শাকিব নিজেই বহনকারীর সাথে এসেছিল।

এছাড়া শাকিবুর তার নওগাঁস্থ বাসায় আরও ২ কেজি হেরোইন থাকার ব্যাপারে তথ্য দেয়। পরবর্তীতে তার বাসায় অভিযান পরিচালনা করে তার স্ত্রী সেলিনা খাতুনের হেফাজত থেকে ২ কেজি হেরোইন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, শাকিব এই চক্রের অন্যতম হোতা। ইতোপূর্বে সে চুরির সাথে জড়িত ছিল এবং এলাকায় তার বিরুদ্ধে একাধিক চুরির অভিযোগ রয়েছে। পরবর্তীতে সে প্রায় দুই বছর যাবত মাদক কারবারে সাথে জড়িত। সে সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে তার ব্যবসায়িক সহযোগীর মাধ্যমে হেরোইন সংগ্রহ পূর্বক প্রথমে নিজের বাড়িতে সংরক্ষণ করত। পরবর্তীতে চাহিদা অনুযায়ী বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, গাজীপুর, জামালপুর, নারায়ণগঞ্জ, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করত। বিভিন্ন সময় সে নিজের মোটরবাইকে করে বিভিন্ন স্থানেও পরিবহন করত। এছাড়া চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন সময় যাত্রীবাহী বাস, লঞ্চ এবং কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থানে মাদক কারবারিদের কাছে হেরোইন সরবরাহ করত। সে হেরোইন বিক্রির টাকা মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে সংগ্রহ করত। এছাড়া বিভিন্ন সময় হাতে হাতে এবং আস্থাভাজন মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট হতে মাদক বিক্রির পর সুবিধাজনক সময়ে সংগ্রহ করত। তার নামে বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। 

বন্য প্রাণীর টর্চার সেল অবৈধ চিড়িয়াখানা বন্ধের দাবি
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বন্যপ্রাণীর র্টচার সেল অবৈধ চিড়িয়াখানা বন্ধের দাবিতে ঢাকায় বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে `সেভ দ্যা ন্যাচার অব বাংলাদেশ` নামের সংগঠনের আয়োজনে চিড়িয়াখানা বন্ধের দাবীতে সম্মিলিত আন্দোলন এন্টি জো মুভমেন্ট অব বাংলাদেশ। শুক্রবার (৩ ফেব্রয়ারি ২০২৩) সকাল থেকে দিনব্যাপী ঢাকার শাহাবাগ চত্বরে এই কর্মসূচী পালন করে সংগঠনটি। `এন্টি জ্যু মুভমেন্ট অব বাংলাদেশ` এর ব্যানারে সারাদেশের প্রানী কল্যাণে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠনও এই কর্মসূচীতে অংশ নেয়।

জানা গেছে, চিড়িয়াখানা বন্ধের দাবীতে সম্মিলিত আন্দোলন বন্যপ্রাণীর টর্চার সেল অবৈধ চিড়িয়াখানা বন্ধের দাবীতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে গণচিঠি লিখন কর্মসূচীর সাথে বেশ কিছু কর্মসূচী পালন করেন তারা। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল খাঁচা বন্দী হয়ে অবস্থান গ্রহন এবং শিকল পড়ে সমাবেশ ও মানবন্ধন, ব্যানার, ফেষ্টুন, প্লেকার্ড, লিফলেট বিতরণ প্রভৃতি।

সারাদেশের অবৈধ চিড়িয়াখানা বন্ধ করার এই আন্দোলনের সদস্য সচিব আবুল বাশার মিরাজ তাঁর বক্তব্যে বলেন, `চিড়িয়াখানায় গেলে প্রায়ই দেখা যায় কোনো না কোনো প্রাণী অসুস্থ। দেশের কোন চিড়িয়াখানায় সঠিক ব্যবস্থাপনা নেই। আসলে চিড়িয়াখানায় তাদের রেখে কষ্ট দেওয়ার কোনই মানে হয় না। সারাদেশের সকল অবৈধ চিড়িয়াখনা বন্ধ করার দাবি জানাচ্ছি।`

পরিবেশবাদী সেচ্ছাসেবী সংগঠন সেভ দ্যা ন্যাচার অব বাংলাদেশ চেয়্যারমান ও এন্টি জো মুভমেন্ট অব বাংলাদেশ আহবায়ক আ.ন.ম. মোয়াজ্জেম হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন, `সারাদেশের অর্ধ শতাধিক অবৈধ চিড়িয়াখানার নিষ্ঠুর পরিবেশে বন্দী হাজারো বন্যপ্রাণী তিল তিল করে মৃত্যুর প্রহর গুনছে। এই নির্দোষ অসহায় বন্যপ্রাণীদের বন্দীত্ব জীবনের অবসান ও নিরাপদ অভয়ারণ্য নিশ্চিত করার দাবীতে সারাদেশ থেকে জাতীয় সংসদে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বরাবর ১ লক্ষ পোষ্টকার্ড প্রেরণ ও একই দাবীতে চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে পোষ্ট কার্ড পূরন/গণচিঠি লিখন কর্মসূচীর পালিত হয়। চিড়িয়াখানা নিষ্ঠুর পরিবেশে বন্দী সকল পশুপাখির মুক্তি চাই। চিড়িয়াখানা বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ আন্দোলন চালিয়ে যাব।

অ্যাডভোকেট ফারহানা ইসলাম তাঁর বক্তব্যে বলেন, `বন্যপ্রাণী শিকার, ধরা, মারা, ক্রয়-বিক্রয়, পাচার দখলে রাখা ও খাওয়া, দন্ডনীয় অপরাধ। দেশে আইন থাকলেও তা কার্যকর হচ্ছে না, এগুলো যথাযথভাবে কার্যকর করার দাবি জানাচ্ছি।`

এনিমেল ওয়েলফারের স্বেচ্ছাসেবক সাজেদা হোসেইন বলেন, `পশু-পাখির স্থান চিড়িয়াখানা নয়, বিনোদন ও ব্যবসার মাধ্যম হতে পারে না। তাদের উপর অত্যাচার করার অধিকার কারো নেই। সারাদেশের অবৈধ চিড়িয়াখানা বন্ধ করে পশু-পাখিদের উন্মুক্ত বিচরণের জন্য বনে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।`

এসময় অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সেভ দ্যা ন্যাচার অব বাংলাদেশের সহ-সভাপতি শেখ মোহাম্মদ মাহাবুবুর রহমান, ঢাকা মহানগরের সহ-সভাপতি মামুন পারভেজ, কিশোরগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আল-আমিন, জামালপুর জেলার সাইদুর রহমান, সদস্য মিজানুর রহমান, মোহাম্মদ ইউসুফ, আল নাহিয়ান আবির, রবিউল ইসলাম, সানি তালুকদার, শামীম আহমেদ, নাহিদ রায়হান, ঢাকা কলেজ ইউনিটের সমন্বয়ক আবেদ রহমান তূর্য, সেভ দ্যা নেশনের কানিজ আয়েশা, এনিমেল প্লানেট বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আজিজুল হাকীম হানী, ভয়েসলেস লাইভস বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা রুকসাথ হক, সংঘ মিত্রার মিতা দত্ত, বাংলাদেশ এনিমেল রাইটস্ এর মুখ্য কর্মকতা নাঈমুল ইসলাম, মুক্তা প্রিয়াসহ অনেকে।

কাল রাজধানীর যেসব এলাকায় থাকবে না গ্যাস
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :

রাজধানীর কিছু এলাকায় শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) ৯ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়, পাইপলাইনের জরুরি সংস্কারকাজের জন্য শনিবার সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত মিরপুর-১৩ এবং কচুক্ষেত এলাকায় আবাসিকসহ সব শ্রেণির গ্রাহকের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

এ ছাড়া আশপাশের এলাকায় গ্যাসের চাপ কম থাকতে পারে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

গ্রাহকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ দুঃখ প্রকাশ করেছে।

পল্লবী এলাকার কিশোর গ্যাং লিডার আশিক গ্রেফতার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রয়ারি) দুপুরে বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম।

তিনি বলেন, আশিককে বৃহস্পতিবার ভোরে শরীয়তপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আগামীকাল আদালতে চালান করা হবে। তিন দিন আগে আসামি লেমনকে পল্লবী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবারের মামলায় এখন পর্যন্ত দুজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।  

পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা না দেওয়ায় গত ৩০ জানুয়ারি পল্লবী এলাকার পাঞ্জাবি ব্যবসায়ী শাহিন আকন্দ (৪৮) কে হাতুড়িপেটার পর ছুরি মারার অভিযোগ উঠে আশিক গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে পল্লবী থানায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী নিলুফা (৪০) ১৩ জনের নামে ও অজ্ঞাতনামা ২০-২৫ জনকে আসামি করে অভিযোগ করেন।  

আসামিরা হলেন - খালেকুজ্জামান জীবনের ছেলে গ্যাং লিডার আশিক (২০), হাসান (২৪), হেলাল (২২), শুভ (২০), রবিন (২০), জুয়েল (২৫), খালেকুজ্জামান জীবন (৪০), মিঠু (২৬), রাশেদ (২২), রাজন (২৩), রোমান (১৯), আহাদ (২৬), অহিদ (২০) ও অজ্ঞাতনামা ২০/২৫ জন।

মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৫০
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে বিক্রি ও সেবনের অপরাধে ৫০ জনকে আটক করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

বুধবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টা থেকে বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো.ফারুক হোসেন বলেন, আসামিদের কাছ থেকে ১৩৭.৫ গ্রাম ১০ পুরিয়া হেরোইন, ৪ বোতল ফেনসিডিল, ২টি গাঁজার গাছ, ৪৩ কেজি ৯৯০ গ্রাম গাঁজা ও ৯০৩ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।

আসামিদের বিরুদ্ধে ডিএমপির থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫০
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ৫০ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা-বিভাগ।

গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ১৫০ গ্রাম হেরোইন, ২০ বোতল ফেন্সিডিল, ৭২ বোতল বিদেশীমদ, ৪৪ কেজি ৩২০ গ্রাম গাঁজা, ৪৭৬৬ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি ২০২৩ খ্রি.) সকাল ছয়টা থেকে আজ সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতারসহ মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩১টি মামলা রুজু হয়েছে।

দূষিত শহরের তালিকায় টানা ১০ দিন শীর্ষে ঢাকা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক:  

দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় আজও বিশ্বে শীর্ষে রাজধানী ঢাকা। সোমবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকার এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) স্কোর ২৯১ রেকর্ড করা হয়েছে। যার অর্থ হলো জনবহুল এ শহরের বাতাসের মান ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ পর্যায়ে রয়েছে।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান আইকিউ এয়ার এ তালিকা প্রকাশ করেছে।

২০১ থেকে ৩০০ এর মধ্যে একিউআই স্কোর `খুবই অস্বাস্থ্যকর` বলা হয়, যেখানে ৩০১ থেকে ৪০০ এর স্কোর ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বলে বিবেচিত হয়, যা বাসিন্দাদের জন্য গুরুতর স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করে।

এ তালিকায় ১৯১ একিউআই স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে পাকিস্তানের করাচি; ১৮৯ নিয়ে তৃতীয় মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন। এরপর চতুর্থ স্থানে থাকা চীনের চেংদুর স্কোর ১৭৮ এবং পঞ্চম স্থানে থাকা বসনিয়া হার্জেগোভিনার সারায়েভোর স্কোর ১৭৬।

মেগাসিটি ঢাকা দীর্ঘদিন ধরে ভুগছে বায়ুদূষণে। এর বাতাসের গুণমান সাধারণত শীতকালে অস্বাস্থ্যকর হয়ে যায় এবং বর্ষাকালে কিছুটা উন্নত হয়।

২০১৯ সালের মার্চ মাসে পরিবেশ অধিদফতর ও বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ঢাকার বায়ুদূষণের তিনটি প্রধান উৎস হলো: ইটভাটা, যানবাহনের ধোঁয়া ও নির্মাণ সাইটের ধুলা।

বর্তমানে শীত আসার সঙ্গে সঙ্গে নির্মাণকাজ, রাস্তার ধুলা ও অন্যান্য উৎস থেকে দূষিত কণার ব্যাপক নিঃসরণের কারণে ঢাকা শহরের বাতাসের গুণমান দ্রুত খারাপ হতে শুরু করে।

বিশ্ব অটোমোবাইল দিবস পালন করল টুইন অটোমোবাইল স্কুল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:

“অপ্রয়োজনীয় হর্ণ বাজানো থেকে বিরত থাকি, শব্দ দূষণ মুক্ত বাংলাদেশ গড়ি।” এই স্লোগান কে সামনে রেখে বাংলাদেশে তৃতীয়বারের মতো বিশ্ব অটোমোবাইল দিবস-২০২৩ পালন করলো টুইন অটোমোবাইল স্কুল।

১৮৮৬ সালের ২৯ শে জানুয়ারী থেকে “বিশ্ব অটোমোবাইল দিবস” পালিত হচ্ছে। ১৮৮৬ সালের এই দিনে, কিংবদন্তি কার্ল বেনজের উদ্ভাবিত প্রথম মোটর গাড়ি (একটি ট্রাই গাড়ি) পেটেন্ট করা হয়েছিল এবং বাণিজ্যিক ভাবে রাস্তায় সফলতার সাথে চালানো হয়েছিল। আর এজন্যই সেই দিনটি থেকেই এই দিবস পালিত হয়।

ইদানিংকালে রাস্তায় বের হলেই গাড়ির হর্ণের কারণে জনজীবন অতিষ্ট হয়ে যায় এবং জনস্বাস্থ চরম হুমকির মুখে। মাত্রাতিরিক্ত অনিয়ন্ত্রিত হর্ণ বাজানোর ফলে বিশেষ করে স্কুলগামী বাচ্চাদের মেধা বিকাশ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তাই, রাস্তায় অপ্রয়োজনীয় হর্ণ বাজানো থেকে বিরত থেকে শিশুর মেধা বিকাশে সহায়তা করতে আহ্বান জানিয়েছে টুইন অটোমোবাইল স্কুল।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টুইন অটোমোবাইল স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ নুরুজ্জামান , সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান প্রশিক্ষক মোঃ নুরুল হুদা

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উত্তরা মটরস এর সার্ভিস ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল্লাহ গাজী, সম্রাট শেখ, মেহেদী হাসান ,উত্তরা মটরস রংপুর ব্রাঞ্চ এর ইঞ্জিনিয়ার আখিনূর রহমান, প্রকিউরমেন্ট অফিসার মেহেদী হাসান ,মিৎসুবিশি মোটরস এর জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার রিদুওয়ান রিফাত , আর এ কে সিরামিকসের অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ার মেহেদী হাসান বাপ্পী সহ বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি ও পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীবৃন্দ ।

টুইন অটোমোবাইল স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ নুরুজ্জামান বলেন, রাস্তায় মোটরযানের হর্ণ বাজানো সময় অবশ্যই আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে। যথাসম্ভব কম হর্ণ বাজাতে হবে। কারণ অতিরিক্ত হর্ন বাচ্চাদের মেধা বিকাশে বাধা দেয়, সেই সাথে শ্রবণ শক্তি হ্রাস করে।

এছাড়াও বাংলাদেশের পরিবেশ অধিদপ্তরের তথ্য মতে তিনি বলেন, যে একটি হাইড্রোলিক হর্ন গড়ে ১৩০ ডিবি (ডেসিবেল) হুইসেল তৈরি করতে পারে, যা বাংলাদেশ শব্দ দূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা, ২০০৬ -এ নির্ধারিত অনুমোদিত মাত্রার চেয়ে অনেক বেশি, যা ব্যস্ত রাস্তা এবং শিল্প এলাকায় ৭৫ ডিবি (ডেসিবেল)। দিনের বেলা শহরে শব্দের মাত্রা ৪৫ ডেসিবল এবং রাতে ৩৫ ডেসিবল, অফিস-আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতালে ৩ ৫ থেকে ৪০ ডেসিবেল গ্রহণযোগ্য । যেখানে আমরা ৬০ থেকে ৭০ ডেসিবল মাত্রার শব্দ সহ্য করে যাচ্ছি। ৭৫ বা তার বেশি মাত্রার শব্দদূষণ হলে শ্রবণশক্তি ধীরে ধীরে হ্রাস পায় এবং বাচ্চাদের মেধা বিকাশে বাধা সৃষ্টি করে।

টুইন অটোমোবাইল স্কুলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান প্রশিক্ষক মোঃ নুরুল হুদা বলেন, আমি মনে করি শব্দ দূষণ নামক নীরব ঘাতক থেকে মুক্তি পেতে আমাদের এই অটোমোবাইল ইন্ডাস্ট্রি লোকজনকে উদ্যোগ নিতে হবে এবং আমাদের দ্বারাই কিছুটা হলেও শব্দ দূষণ কমানো সম্ভব। সরকারের পরিবেশ অধিদপ্তর এর কঠোর নীতির প্রয়োগ ও উচ্চমাত্রার অবৈধ হর্ণ আমদানি বন্ধের মাধ্যমে শব্দ নিয়ন্ত্রণ বন্ধ করা যেতে পারে।

একজন মানুষ যখন একটি গাড়ি কেনার কথা চিন্তা করে তখন কিন্তু তিনি শোরুমে চলে আসেন এবং গাড়ি কেনার পর দিনশেষে গাড়ি সার্ভিস নেয়ার জন্য গাড়ির মালিক অথবা ড্রাইভার গাড়ি সার্ভিস সেন্টারে নিয়ে আসেন।

যখনই একজন গাড়ির ব্যাবহারকারি বা ড্রাইভার আসুক না কেন তাদের শব্দ দূষণের ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। বাংলাদেশের প্রত্যেকটা ব্রান্ডের গাড়ির ডিস্ট্রিবিউটর এবং ছোট বড় সকল ওয়ার্কশপকেই উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে শব্দ দূষণ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

এছাড়াও শব্দ দূষণ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য মোটরসাইকেল চালক, গাড়ী চালক সহ সকলকে শব্দ দূষণের বিরুদ্ধে কাজ করতে হবে।

জানুয়ারিতে ঢাকায় মেলেনি বিশুদ্ধ বাতাস
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : নতুন বছরের প্রথম মাস শেষ হতে আর মাত্র একদিন বাকি। অথচ জানুয়ারি মাসে এখন পর্যন্ত একদিনও বিশুদ্ধ বাতাসে নিঃশ্বাস নিতে পারেনি ঢাকাবাসী। প্রতিদিনই বিষে ভরা বাতাস নাকে ঢুকছে নগরবাসীর। তাতে বাড়ছে স্বাস্থ্যগত সমস্যাও।

কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রায় প্রতিদিন বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছে বাংলাদেশের রাজধানী। আজও সেই ধারা অব্যাহত রয়েছে।

সোমবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বায়ুদূষণ পরিমাপকারী সংস্থা আইকিউ এয়ারের এনডেক্সে দেখা গেছে, বিশ্বের দূষিত শহরগুলোর মধ্যে ২৬৯ স্কোর নিয়ে শীর্ষে রয়েছে ঢাকা।

এদিন তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়। শহরটির স্কোর ১৯০। একই স্কোর নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চীনের উহান শহর। তাছাড়া বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারতের রাজধানী দিল্লি রয়েছে চতুর্থ স্থানে। শহরটির স্কোরও ১৯০। অন্যদিকে ১৭০ স্কোর নিয়ে দূষিত শহরের তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে পাকিস্তানের করাচি।

একিউআই সূচক অনুসারে, বায়ুদূষণের মাত্রা ০ থেকে ৫০ পিএম২.৫ হলে সেটি ভালো, ৫১ থেকে ১০০ হলে তা সহনীয়, ১০১ থেকে ১৫০ বিশেষ শ্রেণির জন্য অস্বাস্থ্যকর, ১৫১ থেকে ২০০ হলে সবার জন্য অস্বাস্থ্যকর, ২০১ থেকে ৩০০ খুবই অস্বাস্থ্যকর এবং ৩০০-এর বেশি হলে তা মানবস্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক বলে বিবেচিত হয়।

ঢাকার বাতাসে দূষণে মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নিয়ন্ত্রণহীন ধুলা, যানবাহনের ধোঁয়া ও ফিটনেসবিহীন গাড়ির অবাধ চলাচল, মোটরসাইকেলসহ ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যার মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধি, ইটভাটার ধোঁয়া, সড়কের নিয়ন্ত্রণহীন খোঁড়াখুঁড়ি, অবকাঠামো ও মেগা প্রজেক্টের নির্মাণযজ্ঞ, শিল্পকারখানার ধোঁয়া ও বর্জ্য, কঠিন বর্জ্যের অব্যবস্থাপনা ও বর্জ্য পোড়ানো প্রভৃতি।

এছাড়া ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকার জলাভূমি ভরাট এবং সবুজ এলাকা ও সবুজায়ন কমে যাওয়া, নিয়ন্ত্রণহীন অবকাঠামো ও ভবন নির্মাণ, নগর ও পরিবেশের ভারবহন ক্ষমতার মাত্রাতিরিক্ত জনসংখ্যা, অবকাঠামো ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, পার্ক-উদ্যান-খেলার মাঠে প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংস করে দিয়ে কংক্রিটনির্ভর উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ, যানবাহনের নিয়ন্ত্রণহীন গতি প্রভৃতি কারণে বায়ু দূষণ নিয়ন্ত্রণহীন মাত্রায় চলে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

গত নভেম্বরে বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, দেশে উচ্চমাত্রার বায়ুদূষণের কারণে প্রতি বছর মারা যাচ্ছেন প্রায় ৮০ হাজার মানুষ। একই সঙ্গে মোট দেশজ উৎপাদন-জিডিপির ক্ষতি হচ্ছে ৩ দশমিক ৯ থেকে ৪ দশমিক ৪ শতাংশ। বায়ুদূষণে উল্লেযোগ্যভাবে বাড়ছে শ্বাসকষ্ট, কাশি, নিম্ন শ্বাসনালীর সংক্রমণ এবং বিষণ্নতার ঝুঁকি। অন্যান্য স্বাস্থ্যগত ‍হুমকি বাড়ার কারণে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু, বয়স্ক এবং সহজাত রোগে আক্রান্তরা ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছেন। এদের মধ্যে ডায়াবেটিস, হৃদরোগ বা শ্বাসযন্ত্রের রোগে আক্রান্তরা অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বায়ুমান পর্যবেক্ষণকারী প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আইকিউ এয়ার দূষিত বাতাসপূর্ণ শহরগুলোর তালিকা প্রকাশ করে আসছে। প্রতিদিনের বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা একিউআই স্কোর একটি নির্দিষ্ট শহরের বাতাস কতটুকু নির্মল বা দূষিত, সে সম্পর্কে ধারণা দেয়।

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫৯
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে ৫৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি)।

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) সকাল ৬টা থেকে শনিবার (২৮ জানুয়ারি) সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ৫০৮৩ পিস ইয়াবা, ১৪৫ গ্রাম হেরোইন, ৫৪ কেজি ৯২৫ গ্রাম ৩৪ পুরিয়া গাঁজা, ২৫টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন ও ৫৯ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪৫টি মামলা রুজু হয়েছে।

দূষিত শহরের তালিকায় আবারও শীর্ষে ঢাকা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক:  

রাজধানী ঢাকা বিশ্বে দূষিত বায়ুর শহরগুলোর মধ্যে আজও শীর্ষ অবস্থান করছে। এ নিয়ে টানা আট দিন শীর্ষে রয়েছে ঢাকা।

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকার এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) স্কোর ২২১ রেকর্ড করা হয়েছে। যার অর্থ হলো জনবহুল এ শহরের বাতাসের মান ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ পর্যায়ে রয়েছে।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান আইকিউ এয়ার এ তালিকা প্রকাশ করেছে।

২০১ থেকে ৩০০ এর মধ্যে একিউআই স্কোর `খুবই অস্বাস্থ্যকর` বলা হয়, যেখানে ৩০১ থেকে ৪০০ এর স্কোর ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বলে বিবেচিত হয়, যা বাসিন্দাদের জন্য গুরুতর স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করে।

এ তালিকায় ২১৬ একিউআই স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে পাকিস্তানের লাহোর; ১৯০ নিয়ে তৃতীয় ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী মুম্বাই। এরপর চতুর্থ স্থানে থাকা মঙ্গোলিয়ার উলানবাটোরের স্কোর ১৮৭ এবং পঞ্চম স্থানে থাকা উজবেকিস্তানের তাসখন্দের স্কোর ১৭১।

মেগাসিটি ঢাকা দীর্ঘদিন ধরে ভুগছে বায়ুদূষণে। এর বাতাসের গুণমান সাধারণত শীতকালে অস্বাস্থ্যকর হয়ে যায় এবং বর্ষাকালে কিছুটা উন্নত হয়।

২০১৯ সালের মার্চ মাসে পরিবেশ অধিদফতর ও বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ঢাকার বায়ুদূষণের তিনটি প্রধান উৎস হলো: ইটভাটা, যানবাহনের ধোঁয়া ও নির্মাণ সাইটের ধুলা।

বর্তমানে শীত আসার সঙ্গে সঙ্গে নির্মাণকাজ, রাস্তার ধুলা ও অন্যান্য উৎস থেকে দূষিত কণার ব্যাপক নিঃসরণের কারণে ঢাকা শহরের বাতাসের গুণমান দ্রুত খারাপ হতে শুরু করে।

মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৭০
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ৭০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) একই সময়ের মধ্যে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।  

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেল জানায়, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ৭০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৮২৪টি ইয়াবা, ১৬০ দশমিক ২৫ গ্রাম ২০ পুরিয়া হেরোইন, ৭৯ কেজি ৯৫ গ্রাম গাঁজা, ২০টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন, ৬ লিটার দেশি মদ ও ৭২ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে।
 
এছাড়া গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৫২টি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেল।


   Page 1 of 39
     রাজধানী
ভোক্তা অধিকারের কর্মকর্তা পরিচয়ে চাঁদাবাজি, গ্রেপ্তার ৮
.............................................................................................
ই টিকিটিংয়ে ও বাড়তি ভাড়া আদায়
.............................................................................................
রাজধানীর কাঁঠালবাগানে ৫তলা ভবনে আগুন
.............................................................................................
শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে: মেয়র আতিক
.............................................................................................
স্বামী-স্ত্রীর মাদক চক্রে ১০-১২ তরুণী
.............................................................................................
বন্য প্রাণীর টর্চার সেল অবৈধ চিড়িয়াখানা বন্ধের দাবি
.............................................................................................
কাল রাজধানীর যেসব এলাকায় থাকবে না গ্যাস
.............................................................................................
পল্লবী এলাকার কিশোর গ্যাং লিডার আশিক গ্রেফতার
.............................................................................................
মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৫০
.............................................................................................
মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫০
.............................................................................................
দূষিত শহরের তালিকায় টানা ১০ দিন শীর্ষে ঢাকা
.............................................................................................
বিশ্ব অটোমোবাইল দিবস পালন করল টুইন অটোমোবাইল স্কুল
.............................................................................................
জানুয়ারিতে ঢাকায় মেলেনি বিশুদ্ধ বাতাস
.............................................................................................
মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫৯
.............................................................................................
দূষিত শহরের তালিকায় আবারও শীর্ষে ঢাকা
.............................................................................................
মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৭০
.............................................................................................
৪৪ কেজি গাঁজা ও হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক ৫
.............................................................................................
বেওয়ারিশ কুকুরের বংশবিস্তার নিয়ন্ত্রণের সুফল পাবে ঢাকাবাসী : তাপস
.............................................................................................
পল্টনে বৈদ্যুতিক ট্রান্সমিটারে আগুন
.............................................................................................
বায়ুদূষণ মানে আবারও শীর্ষে ঢাকা
.............................................................................................
ডিএমপির এডিসি পদমর্যাদার ৫ কর্মকর্তাকে বদলি
.............................................................................................
কারওয়ান বাজারে সাংবাদিকের ওপর মাদক কারবারিদের হামলা
.............................................................................................
পেইড এজেন্ট রেখে প্রতারণার প্রচারণা, গ্রেপ্তার ৫
.............................................................................................
নারীদের উপর হামলার প্রতিবাদে হেযবুত তওহীদের মানববন্ধন
.............................................................................................
বিমানবন্দর সড়ক থেকে অবরোধ তুললো শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
দূষিত শহরের তালিকায় আবারও শীর্ষে ঢাকা
.............................................................................................
বাসচাপায় ছাত্রী নিহত : চালক-হেলপার গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজধানীর শ্যামপুরে নারীর ঝুলন্ত লা*শ উদ্ধার
.............................................................................................
বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় আজও শীর্ষে ঢাকা
.............................................................................................
রাজধানীতে নিজ বাসা থেকে সাংবাদিকের মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
ভিসা প্রতারক চক্রের ৬ সদস্য গ্রেপ্তার
.............................................................................................
আদাবরে ভুয়া চিকিৎসক গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ন্যূনতম মজুরি ২২ হাজার করার দাবি গার্মেন্টস হেলপারদের
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪২
.............................................................................................
বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় র্শীষে ঢাকা
.............................................................................................
কেন্দ্রীয় কারাগারে হাজতির মৃত্যু
.............................................................................................
যাত্রাবাড়ীতে অস্ত্রসহ ৩ ডাকাত আটক
.............................................................................................
কামরাঙ্গীরচরে আগুনে পুড়ল জুতার কারখানা
.............................................................................................
সেই আ.লীগ নেতার ভবন গুড়িয়ে দিল রাজউক
.............................................................................................
রাজধানীতে ৩০ কেজি গাঁজাসহ বিক্রেতা গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৩৮
.............................................................................................
ধর্ষণ মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজধানীতে মানবপাচারকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার
.............................................................................................
সাকরাইন উৎসবে মেতেছিল পুরান ঢাকা
.............................................................................................
বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় শীর্ষে ঢাকা
.............................................................................................
রাজধানীতে চোরাই ইজিবাইকসহ গ্রেফতার ২
.............................................................................................
বাহিনীতে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, আটক ২
.............................................................................................
নারীকে গাড়িচাপা দিয়ে টেনে নেওয়া ঢাবির সেই শিক্ষকের মৃত্যু
.............................................................................................
ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় বিচারককে লাঞ্চনার প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে ৭ দফা প্রস্তাব
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৫৬
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT