শুক্রবার, ২২ অক্টোবর 2021 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আইন - অপরাধ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রীকে খুনের দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড

ফেনী প্রতিনিধি :
ফেনী শহরের বারাহিপুর এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় স্বামী ওবায়দুল হক টুটুলকে ৩০২ ধারায়  দোষী সাবস্ত করে মৃত্যুদন্ডাদেশ এবং ৫০ হাজার হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১২ টায় ফেনী জেলা ও দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছা
এ রায় ঘোষণা করেন। মাত্র ৬০ কার্য দিবসে এই হত্যার বিচার কার্য সম্পন্ন হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফেনী জজ কোর্টের পিপি হাফেজ আহম্মদ বলেন, সকল তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে খুনের অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আসামীকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে। হত্যাকান্ডের শিকার তাহমিনার বাবা সাহাব উদ্দিন বলেন, ন্যায় বিচার পেয়েছি, বিচার বিভাগ এবং সরকারের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

রায়ের বিষয়ে বাদী পক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু বলেন, অল্প সময়ে মামলাটির বিচার কাজ শেষ হয়েছে। এ রায়ের মধ্য দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন হয়েছে। আমরা সুবিচার পেয়েছি। আসামী পক্ষের আইনজীবী আবদুস সাত্তার বলেন, আমরা সুবিচার পাইনি। সুবিচারের জন্য উচ্চ আদালতে আমরা আপিল করবো।

আদালত সূত্র জানায়, মঙ্গলবার তাহমিনা হত্যা মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে টুটুলের বিরুদ্ধে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন পাবলিক প্রসিকিউটর হাফেজ আহম্মদ ও বাদিপক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু। আলোচিত নুসরাত হত্যা মামলার আইনজীবী শাহজাহান সাজু তাহমিনা হত্যা মামলাও নিজ খরচে পরিচালনা করেন। আসামীপক্ষে যুক্তিতর্ক তুলে ধরেন আইনজীবী আবদুস সাত্তার।চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি মামলার বাদি নিহতের বাবা সাহাব উদ্দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। এই মামলায় ১৭ জনের মধ্যে ১৩ জন সাক্ষ্য প্রদান করে। ২০ জানুয়ারী থেকে বিচার কার্য শুরু হয়। গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর একমাত্র আসামী ওবায়দুল হক টুটুলকে অভিযুক্ত করে চার্জগঠন করা হয়।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. ইমরান হোসেন গত ১১ নভেম্বর টুটুলকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল স্ত্রী তাহমিনাকে কুপিয়ে হত্যা করেন ওবায়দুল হক টুটুল। এ ঘটনায় সাহাব উদ্দিন বাদি হয়ে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।
নিহতের পরিবার সূত্র জানায়, প্রায় ৫ বছর আগে ফেনী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড বারাহিপুর এলাকার গোলাম মাওলা ভূঁঞার ছেলে ওবায়দুল হক ভূঁঞা টুটুল কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী ইউনিয়নের আকদিয়া গ্রামের সাহাব উদ্দিনের মেয়ে তাহমিনা আক্তারকে বিয়ে করেন। তাদের তাফান্নুন আরোয়া মায়োস নামে দেড় বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। স্ত্রীকে হত্যার আগে ফেসবুক লাইভে এসে টুটুল সবার কাছে মাফ চান এবং ঘটনার জন্য নিজেই দায়ী বলে স্বীকার করেন।

ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রীকে খুনের দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড
                                  

ফেনী প্রতিনিধি :
ফেনী শহরের বারাহিপুর এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় স্বামী ওবায়দুল হক টুটুলকে ৩০২ ধারায়  দোষী সাবস্ত করে মৃত্যুদন্ডাদেশ এবং ৫০ হাজার হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১২ টায় ফেনী জেলা ও দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছা
এ রায় ঘোষণা করেন। মাত্র ৬০ কার্য দিবসে এই হত্যার বিচার কার্য সম্পন্ন হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফেনী জজ কোর্টের পিপি হাফেজ আহম্মদ বলেন, সকল তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে খুনের অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আসামীকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে। হত্যাকান্ডের শিকার তাহমিনার বাবা সাহাব উদ্দিন বলেন, ন্যায় বিচার পেয়েছি, বিচার বিভাগ এবং সরকারের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

রায়ের বিষয়ে বাদী পক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু বলেন, অল্প সময়ে মামলাটির বিচার কাজ শেষ হয়েছে। এ রায়ের মধ্য দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন হয়েছে। আমরা সুবিচার পেয়েছি। আসামী পক্ষের আইনজীবী আবদুস সাত্তার বলেন, আমরা সুবিচার পাইনি। সুবিচারের জন্য উচ্চ আদালতে আমরা আপিল করবো।

আদালত সূত্র জানায়, মঙ্গলবার তাহমিনা হত্যা মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে টুটুলের বিরুদ্ধে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন পাবলিক প্রসিকিউটর হাফেজ আহম্মদ ও বাদিপক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু। আলোচিত নুসরাত হত্যা মামলার আইনজীবী শাহজাহান সাজু তাহমিনা হত্যা মামলাও নিজ খরচে পরিচালনা করেন। আসামীপক্ষে যুক্তিতর্ক তুলে ধরেন আইনজীবী আবদুস সাত্তার।চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি মামলার বাদি নিহতের বাবা সাহাব উদ্দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। এই মামলায় ১৭ জনের মধ্যে ১৩ জন সাক্ষ্য প্রদান করে। ২০ জানুয়ারী থেকে বিচার কার্য শুরু হয়। গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর একমাত্র আসামী ওবায়দুল হক টুটুলকে অভিযুক্ত করে চার্জগঠন করা হয়।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. ইমরান হোসেন গত ১১ নভেম্বর টুটুলকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল স্ত্রী তাহমিনাকে কুপিয়ে হত্যা করেন ওবায়দুল হক টুটুল। এ ঘটনায় সাহাব উদ্দিন বাদি হয়ে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।
নিহতের পরিবার সূত্র জানায়, প্রায় ৫ বছর আগে ফেনী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড বারাহিপুর এলাকার গোলাম মাওলা ভূঁঞার ছেলে ওবায়দুল হক ভূঁঞা টুটুল কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী ইউনিয়নের আকদিয়া গ্রামের সাহাব উদ্দিনের মেয়ে তাহমিনা আক্তারকে বিয়ে করেন। তাদের তাফান্নুন আরোয়া মায়োস নামে দেড় বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। স্ত্রীকে হত্যার আগে ফেসবুক লাইভে এসে টুটুল সবার কাছে মাফ চান এবং ঘটনার জন্য নিজেই দায়ী বলে স্বীকার করেন।

এসকে সিনহার মামলার রায় বৃহস্পতিবার
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট :
সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলার রায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হবে। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালতে এ রায় ঘোষণা অনুষ্ঠিত হবে ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) থেকে চার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাতের অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে।

গত ৫ অক্টোবর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক আলী হোসেন এদিন ধার্য করেন।

ওইদিন মামলার রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক শেখ নাজমুল আলম অসুস্থ থাকায় তারিখ পিছিয়ে পরবর্তী রায় ঘোষণার জন্য ২১ অক্টোবর দিন ধার্য করেন। এর আগে ১৪ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য মঙ্গলবার দিন ধার্য করেছিলেন একই আদালত।

২৯ আগস্ট আত্মপক্ষ সমর্থনে সাত আসামি নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন এবং আদালতের কাছে ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করেন।

তারা হলেন- ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী), ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, টাঙ্গাইলের মো. শাহজাহান ও একই এলাকার নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা।

অপরদিকে সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, ফারমার্স ব্যাংকের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সফিউদ্দিন আসকারী আহমেদ, রণজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায় পলাতক রয়েছেন। পলাতক থাকায় তারা আত্মপক্ষ সমর্থন করতে পারেননি। এ মামলায় সাক্ষী দিয়েছেন ২১ জন।

২০১৯ সালের ১০ জুলাই এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-১ এ মামলা করা হয়। মামলার বাদী দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন। আসামিদের বিরুদ্ধে ঋণ জালিয়াতি ও চার কোটি টাকা আত্মসাতে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়।

এরপর একই বছরের ১০ ডিসেম্বর আদালতে এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের পরিচালক বেনজীর আহমেদ। ২০২০ সালের ১৩ আগস্ট ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

দুদক সূত্রে জানা যায়, আসামি মো. শাহজাহান ও নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখায় দুটি চলতি হিসাব খোলেন। ৭ নভেম্বর তারা দুই কোটি করে চার কোটি টাকা ঋণের আবেদন করেন। ব্যাংক হিসাব খোলা ও ঋণ আবেদনপত্রে দুজনই বাড়ি নম্বর ৫১, সড়ক নম্বর ১২, সেক্টর ১০, উত্তরা আবাসিক এলাকা- এ ঠিকানা উল্লেখ করেন। ওই বাড়ি সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার ব্যক্তিগত সম্পত্তি। ঋণ আবেদনে জামানত হিসেবে রণজিৎ চন্দ্র সাহার স্ত্রী সান্ত্রী রায় সিমির সাভারের ৩২ শতাংশ জমি দেখানো হয়। এ দুজনই এস কে সিনহার পূর্বপরিচিত। ঋণ আবেদন দুটি কোনো রকম যাচাই-বাছাই করা হয়নি। রেকর্ডপত্র বিশ্লেষণ ও ব্যাংকের নিয়মনীতিও মানা হয়নি।

কুষ্টিয়ায় ডিজিটাল আইনের মামলায় সাংবাদিক গ্রেফতার
                                  

আকরামুজ্জামান আরিফ, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :
কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি ও বিকৃত করা ছবি শেয়ার করার অভিযোগে যুবলীগ নেতার করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ফরহাদ আমির টিপু (৫০) নামের এক সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আটক সাংবাদিক ফরহাদ আমির টিপু যায়যায়দিন পত্রিকার কুমারখালী উপজেলা প্রতিনিধি ও রিপোর্টাস ইউনিটির সাধারণ সম্পদক।

কুমারখালী পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ ইমরান বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ১৯(১) ও ৩১ (২) ধারায় মঙ্গলবার কুমারখালী থানায় মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জাতীয় দৈনিক যায়যায় দিনের কুমারখালী প্রতিনিধি ও বাটিকামারা গ্রামের মৃত আমির উদ্দিনের ছেলে ফরহাদ আমির টিপু অন্যের ফেসবুকে আইডি থেকে করা প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি ও বিকৃত করা ছবি তার নিজ আইডি থেকে শেয়ার করেন। এ ব্যাপারে কুমারখালী পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ ইমরান বাদী হয়ে কুমারখালী থানায় মামলা দায়ের করেন।
এ মামলায় ফরহাদ আমির টিপুকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

আটক সাংবাদিক ফরহাস আমির টিপু ও তার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ১৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় যায়যায়দিন পত্রিকার সাংবাদিক ফরহাদ আমির টিপু বাসাতে মোবাইল ফোন রেখে নিজ মার্কেটের নিচতলাতে অবস্থান করছিলো তখনই তার ৭ বছর বয়সের ছেলে কবির মোবাইলটি ব্যবহার করতে করতে ফেজবুক থেকে একটি পোস্ট অসচেতনার সাথে শেয়ার করে ফেলে। পরবর্তীতে বিষয়টি জানার ১০/১৫ মিনিটের মধ্যেই পোস্টটি ডিলেট করা হয়। পরিবারের দাবী অসুস্থ সাংবাদিক ফরহাদ আমির টিপু বিষয়টি জানেনই না, ৭ বছরের বাচ্চা ছেলে ভুলবশত পোস্টটি শেয়ার করে। পরে সেটি ডিলিটও করেন তিনি।  পরে আজ সকালে থানাতে ডেকে আটক দেখানো হয়েছে।দ্রুত মামলাটি থেকে সংবাদিক ফরহাদ আমির টিপুকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবিও জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, যে আইডি থেকে  পোষ্টটি আপলোড করা হয়েছে উক্ত মামলায় সেই মূল পোষ্টদাতাকে এই মামলায় আসামী করা না হওয়াতে সংবাদিকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

উল্লেখ্য গত এক বছরের কুমারখালী থানায় এনিয়ে ৪টি তথ্য ও প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের হয়েছে।

মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনের দায়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা
                                  

ব্রাহ্মনবাড়ীয়া জেলা প্রতিনিধি :
মিথ্যা, বানোয়াট ও মানহানিকর সংবাদ পরিবেশনের অভিযোগে ব্রাহ্মবাড়ীয়া জেলার স্থানীয় ২ পত্রিকা ও অনিবন্ধিত ৩ অনলাইন পোর্টালের ৫ জনের বিরুদ্ধে চট্রগ্রাম সাইবার ট্রাইবুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার অভিযোগকারী দৈনিক স্বাধীন বাংলা পত্রিকার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি মো: রেজাউল।


অভিযোক্তরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের দক্ষিণ পৈরতলা গ্রামের আক্তারুজ্জামানের ছেলে শরীফ মাহমুদ, সদরের ফুলবাড়ীয়া শেরপুর গ্রামের জাহের খানের ছেলে হাফেজ আব্দুল্লাহ আল মামুন খান, আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বর্তমান কমিটির অন্যতম আহ্বায়ক সদস্য, জেলা কৃষক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খোলাপাড়া গ্রামের মূত সিরাজুল ইসলামের ছেলে সেলিম পারভেজ প্রকাশে সেলিম মিয়া, মসজিদ রোডস্থ  ঝুমুর হোটেলের স্বত্বাধিকারী আবদুল মালেক  ও সদরের কান্দিপাড়া গ্রামের আবু জাহের মুন্সির ছেলে ইফতেহার রিফাত।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১১ অক্টোবর অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময়কাল ও ১৪ অক্টোবর স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক একুশে আলো ও দৈনিক ফ্রন্টিয়ার পত্রিকায় সরকারী বিভিন্ন কর্মকর্তাদের জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে মানসম্মান ক্ষুন্ন করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে ডিজিটাল নিরাপত্তায় মামলা দায়ের করা হয়।

এ ব্যাপারে অভিযোগকারী মোঃ রেজাউল বলেন, ‘আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা কয়েকটি পত্রিকা ও অনলাইন পোর্টাল এবং ফেসবুকে স্ট্যটাসের  মধ্যমে কূরুচিপূর্ণ বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন করায় আমি নিরুপায় হয়ে এই অভিযোগ দায়ের করেছি’।

ভাইকে চোর আখ্যা দিয়ে হামলা, বোনের শ্লীলতাহানি
                                  

ঝালকাঠি প্রতিনিধি :
ঝালকাঠির রাজাপুরে চোর আখ্যা দিয়ে ইমরান (২৮) নামে এক যুবককে মারধর করে গুরুতর আহত করা হয়েছে। ভাইকে মারধরের খবর পেয়ে বোন ফাতেমা এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর ও শ্লীলতাহানি করা হয়েছে। এঘটনায় রাজাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
 
স্থানীয়রা জানান, রাজাপুর উপজেলার নিজামিয়া গ্রামের সোহরাফ হোসেনের পুত্র যুবক ইমরান হোসনেকে চোর আখ্যা দেয় একই এলাকার সিদ্দিক বিশ্বাস। এনিয়ে কথাকাটাকাটির জেরে শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে ইমরানের উপর অতর্কিত হামলা চালায় সিদ্দিক বিশ্বাস, তার স্ত্রী, দুই পুত্র গিয়াস বিশ্বাস, রিফাত বিশ্বাস ও তাদের অনুসারীরা। এসময় ইমরানকে মারধর করে গুরুতর আহত করা হয়। ভাইকে মারধরের সংবাদ পেয়ে ফাতেমা ছুটে গেলে তাকে মারধর করে পরিহিত কাপড় ছিড়ে শ্লীলতাহানি ঘটায়।  ইমরান গুরুতর আহতাবস্থায় রাজাপুর হাসপাতালে ভর্তি হলে সেখানেও প্রতিপক্ষ হামলাকারীরা প্রভাব খাটিয়ে ১দিনের মধ্যে ছাড়পত্র নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগে বাধ্য করে। পরে বরিশাল শের-ই বাংলা চিকিৎসা মহা বিদ্যালয়ে ভর্তি হলে সেখানেও ঘটে একই ঘটনা। কোন উপায় না পেয়ে ইমরান ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়। সে বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছে। বোন ফাতেমা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতেই বিশ্রামে আছেন।
 
আহত ফাতেমা জানান, ভাইকে মারধরের খবর পেয়ে ছুটে এসে ছাড়িয়ে দিতে চাইলে সিদ্দিক বিশ্বাসের পুত্র আমাকে মারধর করে পরনের ওড়না ও জামা টেনে ছিড়ে ফেলে।

স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা জানান, আমরা উভয়পক্ষ নিয়ে শালিস মিমাংসা করে দেয়ার চেষ্টায় আছি। ফাতেমা আশঙ্কা প্রকাশ করে আরো জানান, আমার ভাই মৃত্যু শয্যায়। তারা গলা চিপে মেরে ফেলতে চেয়েছিলো। আমি ছাড়াতে গেলে আমাকে মারধর ও শ্লীলতাহানি করে পরিধেয় কাপড় ছিড়ে ফেলেছে। আমরা যে পরিমাণ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি তার সঠিক বিচার দাবি করছি।
 
স্থানীয় শামীম জানান, উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হলে সিদ্দিক বিশ্বাসের স্ত্রী এসে তাকে জড়িয়ে ধরে। এসময় ফাতেমা এলে সিদ্দিকের পুত্র তাকেও মারধর করে।

বড়ইয়া ইউপি চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন সুরুমিয়া জানান, ঘটনার পরে স্থানীয় দুজন গন্যমান্য ব্যক্তিকে বিষয়টি মিমাংসার জন্য দায়িত্ব দিয়েছি। তারা সমাধানের চেষ্টা করছেন। আশা করছি দ্রুতই এর সমাধান করা সম্ভব হবে।
রাজাপুর থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম জানান, নিজামিয়া গ্রামে হামলার ঘটনায় একটি অভিযোগ এসেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পরবর্তি আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ধামাকা শপিংয়ের সিওও গ্রেফতার
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট :
অনলাইনে পণ্য সরবরাহকারী ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান পরিচালনার নামে প্রতারণা করে গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ধামাকাশপিং ডটকমের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) সিরাজুল ইসলাম রানাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড আ্যকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গাজীপুরের টঙ্গী পশ্চিম থানায় গ্রাহকের দায়ের করা মামলার প্রেক্ষিতে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে তাদের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের লিগ্যাল আ্যন্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

এ বিষয়ে দুপুরে কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানাবেন র‌্যাবের লিগ্যাল আ্যন্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

এর আগে ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও তার স্বামী প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেলকে আটক করে র‌্যাব।

খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ল এক বছর
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট :
বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে পৃথক পাঁচটি মামলায় জামিনের মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ানোর আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) মানহানির অভিযোগে ঢাকার তিনটি ও নড়াইলের একটি মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

পাঁচ মামলার মধ্যে মানহানির চারটি। এই চার মামলায় আজ এক বছরের জন্য খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়।

বাসে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যার মামলায় সোমবার খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ এক বছরের জন্য বাড়ানো হয়।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী এ এইচ এম কামরুজ্জামান মামুন, শামীমা সুলতানা দীপ্তি ও রোকনুজ্জামান সুজা।

কায়সার কামাল জানান, মানহানির অভিযোগে ঢাকায় তিনটি ও নড়াইলে করা এক মামলায় বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলী সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ এক বছর বাড়িয়েছেন।

অন্যদিকে, নাশকতার অভিযোগে কুমিল্লায় করা এক মামলায় বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ সাবেক প্রধানমন্ত্রীর জামিনের মেয়াদ এক বছর বাড়িয়েছেন।

মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে খালেদা জিয়ার বক্তব্যকে কেন্দ্র করে মানহানির অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ঢাকায় তিনটি ও নড়াইলে একটি মামলা হয়। পৃথক মামলায় জামিন চেয়ে তিনি ২০১৮ সালে হাইকোর্ট আবেদন করেন। এর প্রাথমিক শুনানি নিয়ে একই বছর হাইকোর্ট রুল দিয়ে অন্তর্র্বতীকালীন জামিন দেন। আর বাসে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যার অভিযোগে ২০১৫ সালে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা হয়। এই মামলায় ২০১৯ সালে হাইকোর্ট থেকে খালেদা জিয়া জামিন পান। পরে পৃথক পাঁচ মামলায় জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধি চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া।

২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়াকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ আদালত। রায়ে সাত বছরের কারাদণ্ড ছাড়াও খালেদা জিয়াকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত।

এরপর কারান্তরীণ অবস্থায়ই ২০১৮ সালের ৬ অক্টোবর ও ২০১৯ সালের ১ এপ্রিল চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নেওয়া হয় খালেদা জিয়াকে। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শেষে তাকে আবারও কারাগারে পাঠানো হয়। এভাবে কয়েক দফায় তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে এবং হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেওয়া হয়। তবে এরই মাঝে দেশে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করলে খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে তার পরিবার সরকারের কাছে আবেদন জানায়। পরে চার দফায় খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত রাখে সরকার।  বর্তমানে রাজধানীর গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় থাকছেন খালেদা জিয়া।

হাইকোর্টে জামিন চেয়েছেন শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন :
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় আটক মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানী দুই মামলায় হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন করেছেন। আজ বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) তার আইনজীবী আশরাফ আলী মোল্লা জামিন বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রফিকুল ইসলাম মাদানীর বিরুদ্ধে গাজীপুরের বাসন থানায় দায়ের করা মামলায় ও ময়মনসিংহের একটি মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছি। গত মাসে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার জামিন আবেদন করা হয়েছে। আরেকটি করা হয়েছে চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে।

উল্লেখ্য, ৭ এপ্রিল রফিকুল ইসলাম মাদানীকে তার গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনার পূর্বধলার লেটিরকান্দা থেকে আটক করে র‌্যাব। পরের দিন ৮ এপ্রিল গাজীপুর মেট্রোপলিটনের গাছা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন র‌্যাব। ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।   

১১ এপ্রিল গাজীপুর মেট্রোপলিটনের বাসন থানায় স্থানীয় এক ব্যক্তি রফিকুল ইসলাম মাদানীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে। এছাড়া আরও মামলা হয় তার বিরুদ্ধে।

রাজশাহী থেকে ইমো হ্যাকার রাকিবুল গ্রেফতার
                                  

রাজশাহী প্রতিনিধি :
রাজশাহী থেকে ইমো হ্যকার চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার হওয়া রাকিবুল জেলার বাঘঅ উপজেলার মহিদপুর উত্তরপাড়া আতারপাড়া গ্রামের আবুল কালামের  ছেলে। গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, উপজেলার মহদিপুর উত্তর আতারপাড়া গ্রামের মাঠের মধ্যে মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে একটি ফাঁকা ঘরে রাকিবুলসহ ৪/৫ জন মোবাইল নিয়ে ইমো হ্যাক করার পরিকল্পনা ও মাদক সেবন করছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঘা থানার পুলিশ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও গ্রেফতার করা হয় রাকিবুলকে। এ সময় তল্লাশি করে ৮০ হাজার টাকা, ১৫টি সিম কার্ড, ৩টি মোবাইল, ৫ গ্রাম হেরোইন, ৪ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। জব্দকৃত দুটি সিমে বিকাশ খোলা রয়েছে।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিকাশ থেকে টাকা বের করাটা হ্যাকিং নয়, এটা এক ধরনের ডাকাতি। এটি নির্মূল অভিযান চলছে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নামে মামলা দিয়ে বুধবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নাসিরনগরে স্কুলের ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
                                  

মোঃ রেজাউল :
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা সদরে অবস্থিত মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিল্ডিং নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয়রা জানায়, স্কুলের প্রধান শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির যোগসাজশে  ঠিকাদার নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করে কাজ করে যাওয়ায় নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার আগেই ছাদ ভেঙ্গে গেছে।

ঘটনার সত্যতা যাচাই করতে সরেজমিন পরিদর্শনের গিয়ে দেখা যায়, শ্রমিকরা হাতুড়ী দিয়ে  ছাদ ভেঙ্গে ফেলতে ব্যস্ত। কি কারণে ছাদ ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে জানতে চাইলে একজন শ্রমিক জানায়, স্থানীয় উপজেলা ইঞ্জিনিয়ারকে না জানিয়ে ঢালাই দেওয়ার কারণে ভেঙ্গে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে নাসিরনগর উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ সাইফুল ইসলামের কাছে বিল্ডিং নির্মাণে অনিয়মের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমাকে ও অফিসের কাউকে না জানিয়ে ঢালাই দেওয়া তা ভেঙ্গে ফেলে নতুন করে ছাদ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি। বিল্ডিং নির্মাণে প্রাক্কলিত ব্যয় কত জানতে চাইলে, তিনি বলেন আমি নতুন এসেছি ফাইল না দেখে বলা যাচ্ছে না। তবে অফিস বন্ধ থাকার কারণে প্রাক্কলিত ব্যয় কত তা জানা যায়নি।

ওসির ফোন ক্লোন করে চেয়ারম্যানের ৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারক চক্র
                                  

নোয়াখালী প্রতিনিধি :
নোয়াখালীর চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হকের সরকারি মোবাইল নম্বর ক্লোন করে এক ইউপি চেয়ারম্যানের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে ৪ লাখ টাকা।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী উপজেলার ৪নং চরওয়াপদা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মনির আহমেদ (৬৪) চরজব্বর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান এবং আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. মনির আহমেদের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে দুটি নাম্বার থেকে কল আসে। এ সময় কল দাতা নিজকে অফিসার ইনচার্জ চরজব্বর থানা বলে পরিচয় দিয়ে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার জন্য বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদেরকে ম্যানেজ করার উদ্দেশ্যে তার নিকট টাকা চায়। এরপর তিনি সাথে থাকা আরেক ব্যক্তিকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নোয়াখালী পরিচয় দিয়ে বলে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের পরামর্শমত অন্যান্য অফিসারদেরকে ম্যানেজ করার জন্য চার লক্ষ টাকা পাঠানোর জন্য বলেন। ওসি পরিচয় দানকারী ব্যক্তি কর্তৃক প্রদত্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের ব্যক্তিগত ৮টি বিকাশ নম্বরে মনির চেয়ারম্যান পঞ্চাশ হাজার টাকা করে চার লক্ষ টাকা প্রেরণ করে। টাকা পাঠানের পরে ওসি পরিচয় দানকারি প্রতারক ব্যক্তি রাত ৯টার দিকে চেয়ারম্যানকে থানায় এসে পরবর্তী কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে বলেন। রাত ৯টার দিকে চেয়ারম্যান থানায় এসে ওসির সাথে কথা বলে প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পারেন।  

চর জব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হক এ সব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, আজ দিনের বিভিন্ন সময় আমার ব্যবহৃত সরকারি মোবাইল নম্বরটি (০১৩২০১১১১৬৩) ক্লোন করে একাধিক ব্যক্তিকে বিভিন্নভাবে প্রতারিত করার খবর ভুক্তভোগী কয়েকজন সরাসরি থানায় এসে জানান। তিনি আরো জানান, এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। তিনি সবাইকে সতর্ক থাকার আহবান জানান।

কুষ্টিয়ায় আ.লীগ নেতা বাবলুর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল
                                  

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :
কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা এক প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতার আপত্তিকর ও অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এতে জনমনে তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠেছে। মঙ্গলবার রাতে এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়, দৌলতপুর উপজেলার রিফাইতপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও দৌলতপুর আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশীদ বাবলু (৬৫) একটি কক্ষে ১৫-১৬ বছর বয়সী এক মেয়ের সাথে নগ্ন অবস্থায় রয়েছেন।

 ওই কক্ষের জানালা দিয়ে কেউ আওয়ামী লীগ নেতার আপত্তিকর ও অশ্লীল কর্মকান্ডের ভিডিও গোপনে ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। দৌলতপুরের বিভিন্ন বাজার, চায়ের দোকান, উপজেলা পরিষদ চত্বরসহ সর্বত্র চলে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রশীদ বাবলুর আপত্তিকর ও অশ্লীল কর্মকান্ডের ভিডিও নিয়ে আলোচনা, সমালোচনা ও নিন্দার ঝড়।

ঝাউদিয়া এলাকার ব্যক্তি নাম না প্রকাশ করার শর্তে জানান, আব্দুর রশীদ বাবলুর চারিত্রিক ত্রুটি আগে থেকেই রয়েছে। এ আর নতুন কি?

রিফাইতপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু বলেন, ‘ঘটনাটি শোনার পর থেকে আমি নিজেই লজ্জা বোধ করছি। তার মত (আব্দুর রশীদ বাবলু) একজন দায়িত্বশীল প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়াম্যানের কাছ জনগণ এটা প্রত্যাশা করেনা।’

এবিষয়ে দৌলতপুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শরীফ উদ্দিন রিমন বলেন, আমি জেলা আওয়ামী লীগের একটি জরুরী মিটিংয়ে আছি। এ বিষয়ে পরে কথা বলবো।

দৌলতপুর থানার ওসি নাসির উদ্দিন বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই।

এ বিষয়ে জানতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রশীদ বাবলু’র সাথে মোবাইলফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইলফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে দৌলতপুরের ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ দলীয় নেতা-কর্মীদের দাবি লম্পট এ নেতার বিরুদ্ধে দলীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি প্রশাসনিক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

স্বাস্থ্যের সেই ড্রাইভার মালেক নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেন
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:
বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টম্বর) ঢাকার অতিরিক্ত তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ রবিউল আলমের আদালতে অস্ত্র আইনে করা মামলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সেই আলোচিত গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে বাদল আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করেছেন।

এরপর আদালত রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন। আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি সালাউদ্দিন হাওলাদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে সোমবার (০৬ সেপ্টম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে আসামির আত্মপক্ষের সমর্থনের জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন বিচারক মামলাটি ঢাকার অতিরিক্ত তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দেন। একই সঙ্গে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য ৯ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন।

মামলায় ১৩ জনের মধ্যে ১৩ জনই আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। গত ১১ জানুয়ারি অস্ত্র আইনের মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর উপ-পরিদর্শক মেহেদী হাসান চৌধুরী ১৩ জনকে সাক্ষী করে মালেকের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এরপর গত ১৪ ফেব্রুয়ারি আদালত মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। গত ৪ এপ্রিল মালেকের অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর ভোরে রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে গাড়িচালক আবদুল মালেককে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, পাঁচ রাউন্ড গুলি, দেড় লাখ টাকার বাংলাদেশি জাল নোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইল জব্দ করা হয়।

ঝালকাঠিতে মিথ্যা মামলা থেকে সাংবাদিককে অব্যাহতি; বাদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ
                                  

ঝালকাঠি প্রতিনিধি :
ঝালকাটিতে ৩ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের করা নারী নির্যাযত মামলা পুলিশি তদন্তে মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় ওই তিন সাংবাদিককে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। পাশপাশি মিথ্যা মামলা দায়েরের দায়ে বাদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আদালতে সুপারিশ করা হয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বাদীর বিরুদ্ধে ১৭ ধারায় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আদালতে আবেদন জানিয়েছেন।

পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদনে, স্থানীয় সাংবাদিকদের মধ্যে মতানৈক্যের কারণে এ ধরনের মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে মামলটি করা হয়েছে বলেও উল্লেখকরা হয়।

অব্যাহতি পাওয়ার পর ওই তিন সাংবাদিক এক প্রতিক্রিয়ায় ঝালকাঠি পুলিশ সুপারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, ওসি এবং তদন্ত কর্মকর্তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

রিপোর্টারস ইউনিটির সভাপতি আসিফ মানিক সিকদার সাংবাদিকদের জানান,“শাওন মোল্লা ও তার বোন জেসমিন আক্তার নুপুর  কখনও নিজে আবচারা কখনও তার কন্যাকে দিয়ে ধর্ষণসহ নানারকম মিথ্যা ফিটিং মামলার জালে ফেলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে মামলা আপোষ করে গা ঢাকা দেয়। এটা বাদীনীর ও তার ভাইয়ের এক ধরনের অনৈতিক নিয়মিত ব্যবসা। ঝালকাঠি আদালতে এ রকম বেশ কয়েকটি মামলার ঘটনা আছে। বাদীনি নিজের স্বামীর নামেও হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে নাজেহাল করার অভিযোগ আছে।”

ঝালকাঠি সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের অভিমত, এ ধরনের অভিযোগ পেলে ভবিষ্যতে মামলা রেকর্ডের ক্ষেত্রে আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন। পাশাপাশি মিথ্যা মামলা রেকর্ডের জন্য তদবীরকারিদেরও চিহ্নিত করা উচিত।

মিথ্যা মামলায় বাদিনী জেসমিন আক্তার নুপুর ঘটনাস্থল দেখিয়েছেন পশ্চিম ঝালকাঠির যুব উন্নয়নের সামনে পাকা রাস্তার মোড়। ঘটনার তারিখ চলতি বছরের ১৭ এপ্রিল এবং সময় রাত সাড়ে ১০টা। বাদিনীর অভিযোগ খালুর বাড়ি থেকে ভাই শাওন মোল্লার কলেজ মোড়ে বাসায় যাচ্ছিলেন তিনি। এসময় রিপোর্টারস ইউনিটির সভাপতি আসিফ মানিক সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক রিয়াজ খান অশ্রু ও বিএমএসএফ জেলা কমিটির সাধার সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ আইটি সম্পাদক প্রভাষক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু সাংবাদিক বাদিনীর সাথে যৌন কামনা চরিতার্থ করার চেষ্টা চালায়। এতে বাদিনীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। এক পর্যায়ে ডাক চিৎকারে সাক্ষীরা ঘটনাস্থলে এলে আসামী সাংবাদিকরা পালিয়ে যায়। নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ২০ এপ্রিল দায়ের করা মামলায় পুলিশের কাছে বাদিনী আলামত হিসাবে তার ছেড়া জামা ও পাজামা দিয়েছে। প্রথমে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পান এসআই আনছারুল হক। পরবর্তিতে তিনি বদলী হওয়ায় পূণরায় তদন্তের দায়িত্ব পান এসআই মনিরুল ইসলাম। ইতোমধ্যে, শাওন মোল্লার সাথে সাংবাদিকদের বিরোধের জের ধরে এ মামলার উদ্ভব হয়েছে বলে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়। তাই শাওন মোল্লা তার বোনকে বাদী করে মিথ্যা অভিযোগ সাজিয়ে সাংবাদিক প্রভাষক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চুসহ ৩ জনকে আসামী করেছে, এর সঠিক তদন্তের দাবি জানানো হয়। পুলিশ এ বিষয়টি মাথায় রেখে তদন্তের মাধ্যমে রহস্য উম্মোচন করে আদালতে চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল করেছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, রিপোর্টে তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, বাদী নুপুরকে ঘটনাস্থলে নিয়ে যাবার পর ভিন্ন ভিন্ন তথ্য দিতে থাকেন। তাই ১৬১ ধারায় তার জবানবন্দী রেকর্ড করা হয়। বাদিনীর ভাই স্বাক্ষী শাওন মোল্লাও অসংলগ্ন তথ্য দেন। ১৬১ ধারায় তার জবানবন্দীও রেকর্ড করা হয়। এরপর বাদিনী ও তার স্বাক্ষীদের জবানবন্দী অনুযায়ি শুরু হয় মোবাইল কললিস্ট সংগ্রহের কাজ। বের হয়ে আসতে থাকে আরো চাঞ্চল্যকর তথ্য এবং ক্লু।

প্রথমে বাদিনীর মোবাইল সিডিআর পর্যালোচনায় দেখা যায় তিনি তার মামলায় উল্লেখিত সময়ে ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তিনি ঐ দিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে ছিলেন পশ্চিম চাঁদকাঠি এলাকায়। আরো জানাযায় তিনি ঘটনার আগের দিন খালুর বাড়ি থেকে চলে আসেন। বিবাদী সাংবাদিক প্রভাষক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চুর মোবাইল সিডিআর পর্যালোচনায় দেখা যায় তিনি ছিলেন তার বাস ভবনে। অপর বিবাদী দু’জনও কেউই ঘটনার উল্লেখিত সময় সেখানে ছিলেন না। তদন্ত প্রতিবেদনে আরো উল্লেখ করা হয় বিবাদীরা ৩ জনই রিপোর্টার্স ইউনিটির স্ব স্ব দায়িত্বে ছিলেন। এ সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান ও শাওন মোল্লা ঘনিষ্ট বন্ধু। মিজান বন্ধু শাওন মোল্লাকে (বাদিনীর ভাই) সংগঠনের সদস্য পদ দেয়ার চেষ্ঠা করে ব্যর্থ হন। তাই বিবাদীদের মানসম্মান ক্ষুন্ন ও সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করতেই এই কাল্পনিক ঘটনা সাজিয়ে শাওন মোল্লা তার বোনকে বাদী করে মামলা রেকর্ড করায়। তাই মামলার তদন্তকালে স্বাক্ষীদের জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা সম্পর্কে স্বাক্ষ্য প্রমাণ মেলেনি। স্বাক্ষ্য প্রমাণে ঘটনার সত্যতা প্রমাণিত না হওয়ায় চড়ান্ত রিপোর্টের শেষে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ১৭ ধারায় বাদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আদালতে প্রার্থনা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে একটি স্বার্থান্বেষী মহল ইতিপূর্বে এভাবে ঝালকাঠি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলা করিয়ে হয়রানী করে আসছিল। সাংবাদিকদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি করিয়ে ফায়দা হাসিল করাই তাদের কাজ। এমনকি জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়েও সাংবাদিকদের সাথে দূরত্ব সৃষ্টির পায়তারা করেছে।

সাভারে ১৯টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি
                                  

সাভার :
সাভারের আশুলিয়ার নয়ারহাট বংশী নদীর তীরবর্তী এলাকায় ১৯টি স্বর্ণের দোকান ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। রোববার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে।

আজ সোমবার সকালে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আব্দুর রাশিদ ও উপপরিদর্শক (এসআই) হারুন অর রশিদ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গভীর রাতে একদল ডাকাত বংশী নদীতে নৌকায় নয়ারহাট এলাকায় আসে। এরপর তারা নদী তীরবর্তী এলাকার প্রায় ১৮-১৯টি স্বর্ণের দোকানে হানা দেয়। এসময় তারা দোকানীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ও বেঁধে দোকানে থাকা স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়।

মসজিদ কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে কোটি টাকা আত্মসাৎ অভিযোগ
                                  

মোঃ মিলন শেখ, সিরাজগঞ্জ :
জেলার তাড়াশ উপজেলার সগুনা গ্রামের প্রধান মাতব্বর রজব আলী ফকিরের বিরুদ্ধে মসজিদ মাদ্রাসা ও কবরস্থানের কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ উঠেছে। প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন গ্রামের পক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আফসার আলী।

অভিযোগে সুত্রে জানা যায়, উপজেলা মাগুড়া বিনোদ ইউনিয়নের দিঘি সগুনা গ্রামের প্রধান মাতব্বর রজব আলী ফকির প্রভাব খাটিয়ে ২০০৪ সাল থেকে মসজিদ, মাদ্রাসা, কবরস্থান গ্রামের ২০.৬২ পুকুর গুলো নিজ পছন্দের লোকদের মাঝে ইজারা দিয়ে প্রায় ২ কোটি এগারো লক্ষ টাকা আত্মসাৎ  করেছেন।

২০১৬ সালে জনসাধারণের চাপে ব্যাংকে টাকা রাখার সিদ্ধান্ত হলে রজব আলী ফকির নিজে ও আব্দুল হামিদ প্রামানিকের নামে পূবালী ব্যাংক লিমিটেড তাড়াশ শাখায় একটি সঞ্চয় হিসাব খোলেন। প্রথম অবস্থায় সামান্য কিছু টাকা উক্ত হিসাবে জমা করলেও পরবর্তীতে ব্যাংকে টাকা জমা না করে আরো সহযোগী নিয়ে ভাগ বাটোয়ারার মাধ্যমে গ্রামের টাকা লুটপাট করেন।

গ্রামের হিসাব দাখিলে জন্য তাকে বারবার তাগাদা দিলেও তিনি তা তাখিল করেননি। এক পর্যায়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে স্থানীয় এমপি অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আব্দুল আজিজের হস্তক্ষেপে উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান মনি গ্রামের আয় ব্যায়ের হিসাব নিকাশ দাখিলে জন্য রজব আলী ফকির ও ইদ্রিস আলী মেম্বরকে নোটিশ প্রদান করেন। কিন্তু তিনি এখন পর্যন্ত কোন হিসাব দাখিল করেননি।

তবে, অভিযুক্ত দিঘীসদগুনা গ্রামের প্রধান মাতব্বর রজব আলী ফকির বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য নয়, ষড়যন্ত্র মাত্র।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেজবাউল করিম বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


   Page 1 of 148
     আইন - অপরাধ
ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রীকে খুনের দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
এসকে সিনহার মামলার রায় বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় ডিজিটাল আইনের মামলায় সাংবাদিক গ্রেফতার
.............................................................................................
মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনের দায়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা
.............................................................................................
ভাইকে চোর আখ্যা দিয়ে হামলা, বোনের শ্লীলতাহানি
.............................................................................................
ধামাকা শপিংয়ের সিওও গ্রেফতার
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ল এক বছর
.............................................................................................
হাইকোর্টে জামিন চেয়েছেন শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানী
.............................................................................................
রাজশাহী থেকে ইমো হ্যাকার রাকিবুল গ্রেফতার
.............................................................................................
নাসিরনগরে স্কুলের ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
.............................................................................................
ওসির ফোন ক্লোন করে চেয়ারম্যানের ৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারক চক্র
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় আ.লীগ নেতা বাবলুর আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
স্বাস্থ্যের সেই ড্রাইভার মালেক নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেন
.............................................................................................
ঝালকাঠিতে মিথ্যা মামলা থেকে সাংবাদিককে অব্যাহতি; বাদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ
.............................................................................................
সাভারে ১৯টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি
.............................................................................................
মসজিদ কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে কোটি টাকা আত্মসাৎ অভিযোগ
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন
.............................................................................................
আদলতে বিচারাধীন জায়গার গাছ বিক্রি করতে কুষ্টিয়া সওজ’র দরপত্র আহ্বান!
.............................................................................................
জুলহাস-তনয় হত্যা মামলায় ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
১৬ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী ২৭ বছর পর গ্রেপ্তার
.............................................................................................
কুয়াকাটায় নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে সরকারি জমিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ
.............................................................................................
সরকারি ভ্যাকসিন কালো বাজারে বিক্রি: আটক ১
.............................................................................................
বোরহানউদ্দিনে বিডি লাইক প্রতারক চক্রের ফাঁদে ক্ষতিগ্রস্থ বেকার যুবকরা
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জে আলোচিত মতিন হত্যার রহস্য উদঘাটন করলো পিআইবি
.............................................................................................
আনসার আল ইসলামের নারী সদস্য গ্রেফতার
.............................................................................................
হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেন সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার ২ আাসমী
.............................................................................................
গাড়ী ছিনতাই চক্রের ৫ সদস্য র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার
.............................................................................................
শিশু শিক্ষার্থীকে বলৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার
.............................................................................................
বিচারককে হত্যার হুমকি দিয়ে চিঠি!
.............................................................................................
নোয়াখালীতে গ্রাম ডাক্তার প্রশিক্ষণের নামে প্রতারণা
.............................................................................................
ভোলায় কোস্ট গার্ডের অভিযানে অস্ত্রসহ ফজলু ডাকাত আটক
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার ১১ মামলার শুনানি ২০ অক্টোবর
.............................................................................................
বরিশালে বন্যপ্রাণী তক্ষকসহ ৫ পাচারকারী আটক
.............................................................................................
ই-অরেঞ্জের মালিকসহ তিনজন ৫ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
সেই পাপুলের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২১ অক্টোবর
.............................................................................................
শেবাচিমের করোনা ইউনিটে ১০০ সিলিন্ডার গায়েব, তদন্ত কমিটি গঠন
.............................................................................................
পরীমণির জামিন আবেদন, শুনানি ১৩ সেপ্টেম্বর
.............................................................................................
এবার ইউএনওর বিরুদ্ধে মেয়র সাদিকের মামলার আবেদন
.............................................................................................
ফেনীতে প্রবাসী স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা, স্ত্রী পলাতক
.............................................................................................
মাদক মামলায় একদিনের রিমান্ডে পরীমনি
.............................................................................................
ই-অরেঞ্জের বিরুদ্ধে গ্রাহকের মামলা
.............................................................................................
ময়মনসিংহে কর্মসৃজন প্রকল্পে চলছে শুভঙ্করের ফাঁকি
.............................................................................................
দফায় দফায় সাংবাদিককে কোপালো ছাত্রলীগ নেতা; শরীরে ২ শতাধিক সেলাই
.............................................................................................
বগুড়ায় গরু ডাকাতি মামলায় জাপার মেয়র প্রার্থী গ্রেপ্তার
.............................................................................................
৭ কোটি টাকার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্ধ করেছে কোস্টগার্ড
.............................................................................................
হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকরা নামের আগে ডাক্তার পদবী ব্যবহার করতে পারবেন না
.............................................................................................
চিকিৎসা করাতে গিয়ে পল্লী চিকিৎসকের কাছে ধর্ষণের শিকার নারী
.............................................................................................
স্বর্ণের বার আত্মসাৎ: ফেনী ডিবির ওসিসহ ৬ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত
.............................................................................................
হেলেনা-পরীমনিদের মামলা তদন্তের দায়িত্ব চায় র‌্যাব
.............................................................................................
কোটালীপাড়ায় প্রধানমন্ত্রীকে হত্যাচেষ্টা : মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১০ আসামির রায় প্রকাশ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT