বৃহস্পতিবার, ২৬ মে 2022 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
জর্জ বুশকে খুনের ছক ফাঁস, ধৃত ইরাকি

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির পুতিনকে গুপ্তহত্যার ছক সামনে এসেছিল ২৪ ঘন্টা আগে । এবার ফাঁস হয়ে গেল প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশকে হত্যার ছক। এই ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হল আমেরিকার বাসিন্দা এক ইরাকি নাগরিককে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত যুবক প্রতিশোধ নিতেই এমন চেষ্টা করেছিল। ২০০৩ সালে ইরাক যুদ্ধের প্রতিশোধ নিতেই এই হামলার পরিকল্পনা করেছিল অভিযুক্ত। ওহায়োর আদালতে এই হত্যার পরিকল্পনা সংক্রান্ত একটি মামলাও দায়ের করেছে সে দেশের প্রধান তদন্তকারী সংস্থা এফবিআই। মার্কিন আইনে এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে অভিযুক্তের ৩০ বছর পর্যন্ত হাজতবাস ও পাঁচ লক্ষ ডলার জরিমানা হতে পারে। এদিকে, খোদ আমেরিকার মাটিতে বসে বসে প্রাক্তন প্রেসিডেন্টকে হত্যার ছক প্রকাশ্যে আসায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দেশজুড়ে। ঘটনার সঙ্গে কোনও সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের যোগ রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখছে এফবিআই।



ধৃত ইরাকির নাম শিহাব আহমেদ। বয়স ৫২। এফবিআইয়ের দাবি, শিহাব ২০২০ সালে ভিজিটর্স ভিসা নিয়ে মার্কিন মুলুকে আসে। মেয়াদ শেষ হতেই সে সে দেশে আশ্রয়ের জন্য আবেদন করে। মার্কিন বিচার বিভাগ জানিয়েছে, বুশকে হত্যা করতে মেক্সিকো থেকে চারজন ইরাকি নাগরিককে আমেরিকায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা করছিল শিহাব। ওই ইরাকিরা এফবিআইয়ের এক চরকে জানায়, তারা প্রাক্তন প্রেসিডেন্টকে হত্যা করতে চায়। কারণ, তাদের মনে করে, প্রেসিডেন্ট বুশ প্রচুর নিরাপরাধ ইরাকি নাগরিককে হত্যার জন্য দায়ী। তাছাড়া পুরো ইরাক ওই যুদ্ধের ফলে বিধ্বস্ত হয়ে গিয়েছিল। এর আগে ইরাকের তৎকালীন সাদ্দাম হুসেন সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন জর্জ বুশ। এফবিআইয়ের আরও দাবি, অভিযুক্ত ডালাসে গিয়ে বুশের বাসস্থানও দেখে এসেছিল। এরপট কীভাবে বন্দুক, সরকারি ইউনিফর্ম ও গাড়ি জোগাড় করা যায় তা নিয়ে খোঁজ খবর করছিল। আর তা করতে গিয়েই সে এফবিআইয়ের এক গুপ্তচরকে গোটা পরিকল্পনার কথা জানিয়ে দেয়।

জর্জ বুশকে খুনের ছক ফাঁস, ধৃত ইরাকি
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির পুতিনকে গুপ্তহত্যার ছক সামনে এসেছিল ২৪ ঘন্টা আগে । এবার ফাঁস হয়ে গেল প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশকে হত্যার ছক। এই ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হল আমেরিকার বাসিন্দা এক ইরাকি নাগরিককে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত যুবক প্রতিশোধ নিতেই এমন চেষ্টা করেছিল। ২০০৩ সালে ইরাক যুদ্ধের প্রতিশোধ নিতেই এই হামলার পরিকল্পনা করেছিল অভিযুক্ত। ওহায়োর আদালতে এই হত্যার পরিকল্পনা সংক্রান্ত একটি মামলাও দায়ের করেছে সে দেশের প্রধান তদন্তকারী সংস্থা এফবিআই। মার্কিন আইনে এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে অভিযুক্তের ৩০ বছর পর্যন্ত হাজতবাস ও পাঁচ লক্ষ ডলার জরিমানা হতে পারে। এদিকে, খোদ আমেরিকার মাটিতে বসে বসে প্রাক্তন প্রেসিডেন্টকে হত্যার ছক প্রকাশ্যে আসায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দেশজুড়ে। ঘটনার সঙ্গে কোনও সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের যোগ রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখছে এফবিআই।



ধৃত ইরাকির নাম শিহাব আহমেদ। বয়স ৫২। এফবিআইয়ের দাবি, শিহাব ২০২০ সালে ভিজিটর্স ভিসা নিয়ে মার্কিন মুলুকে আসে। মেয়াদ শেষ হতেই সে সে দেশে আশ্রয়ের জন্য আবেদন করে। মার্কিন বিচার বিভাগ জানিয়েছে, বুশকে হত্যা করতে মেক্সিকো থেকে চারজন ইরাকি নাগরিককে আমেরিকায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা করছিল শিহাব। ওই ইরাকিরা এফবিআইয়ের এক চরকে জানায়, তারা প্রাক্তন প্রেসিডেন্টকে হত্যা করতে চায়। কারণ, তাদের মনে করে, প্রেসিডেন্ট বুশ প্রচুর নিরাপরাধ ইরাকি নাগরিককে হত্যার জন্য দায়ী। তাছাড়া পুরো ইরাক ওই যুদ্ধের ফলে বিধ্বস্ত হয়ে গিয়েছিল। এর আগে ইরাকের তৎকালীন সাদ্দাম হুসেন সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন জর্জ বুশ। এফবিআইয়ের আরও দাবি, অভিযুক্ত ডালাসে গিয়ে বুশের বাসস্থানও দেখে এসেছিল। এরপট কীভাবে বন্দুক, সরকারি ইউনিফর্ম ও গাড়ি জোগাড় করা যায় তা নিয়ে খোঁজ খবর করছিল। আর তা করতে গিয়েই সে এফবিআইয়ের এক গুপ্তচরকে গোটা পরিকল্পনার কথা জানিয়ে দেয়।

যাত্রী পরিবহনে নজির গড়ল দমদম বিমানবন্দরের
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
যাত্রী পরিবহনে নয়া নজির গড়ল কলকাতা বিমানবন্দর। গত রবিবার, ২২মে যাত্রী পরিবহনে এই নতুন রেকর্ড গড়ল কলকাতা। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই দিন আন্তজাতিক ও অন্তর্দেশীয় মিলিয়ে প্রায় ৫৯ হাজার বিমানযাত্রীকে পরিষেবা দিয়েছে দমদমের নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।

অন্তর্দেশীয় ও আন্তর্জাতিক মিলিয়ে সে দিন চারশোরও বেশি যাত্রিবাহী বিমান ওঠানামা করেছে কলকাতায়। বিমানবন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে সেদিন মোট ৩৭০টি অন্তর্দেশীয় উড়ান কলকাতায় ওঠানামা করেছে। সেগুলিতে সব মিলিয়ে যাত্রীর সংখ্যা ছিল ৫৪ হাজার। আবার ৩৮টি আন্তর্জাতিক বিমানে পাঁচ হাজারের বেশি যাত্রী কলকাতায় আসাযাওয়া করেছেন। যা গত দু`আড়াই বছরের মধ্যে রেকর্ড বলেই দাবি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের।

করোনাকালের শুরু পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল বিমান পরিষেবা। চলতি বছরের শেষ তিন মাস ধরে মন্দা কাটিয়ে যাত্রীবাহী ও পণ্যবাহী বিমান পরিষেবা ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে। তার মধ্যে এই নজির গড়ায় উচ্ছ্বসিত কলকাতা বিমানবন্দরের সাধারণ কর্মী থেকে অফিসাররাও। যাত্রীবাহী বিমানের পাশাপাশি কার্গো ফ্লাইট বা পণ্যবাহী উড়ানের সংখ্যাও ধীরে হলেও বাড়ছে বলে জানা গিয়েছে।

কলকাতা বিমানবন্দরের এক কর্তা জানিয়েছেন, গত বছর দুর্গাপুজোর সময়ে যাত্রীর সংখ্যা বেশ বেড়েছিল। কিন্তু তারপর করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের দাপট শুরু হওয়ায় ধীরে ধীরে যাত্রী সংখ্যা কমে যায়। তারপর আবার নতুন বছর থেকে একটু একটু করে যাত্রীসংখ্যা বাড়তে শুরু করায় আমরা সবাই খুশি। তাদের আশা এই ভাবে চলতে থাকলে কলকাতা বিমানবন্দর খুব তাড়াতাড়ি করোনা কালের আগের জায়গায় ফিরে আসবে। আপাতত সেদিনের দিকে তাকিয়ে কর্মীরা।

কারো সঙ্গে আর আলোচনা নয়, পুতিন ছাড়া : জেলেনস্কি
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পরাশক্তি রাশিয়া। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোর থেকে শুরু হওয়া এই অভিযান তিন মাসেরও বেশি সময় অতিক্রম করলো। রাশিয়ার ছোঁড়া বোমা আর রকেটে কেঁপে উঠছে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহর। এরইমধ্যে ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি নগরী দখলে নিয়েছে রুশ বাহিনী।
ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, তিনি কেবল রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় রাজি আছেন, মধ্যস্থতাকারী বা ক্রেমলিনের অন্য কোনো কর্মকর্তার সঙ্গে আলোচনায় আগ্রহ নেই।


সুইজারল্যান্ডের দাভোসে অনুষ্ঠিত বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে দেওয়া ভিডিও বার্তায় জেলেনস্কি এ কথা জানান।

জেলেনস্কি আরও জানান, রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা করা ক্রমশ কঠিন হচ্ছে। কারণ হিসেবে তিনি রাশিয়ার দখলে থাকা অঞ্চলগুলোতে বেসামরিক ব্যক্তিদের আক্রান্তের প্রমাণ পাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন।
জেলেনস্কি বলেন, `রাশিয়ান ফেডারেশনের সব সিদ্ধান্ত নেন প্রেসিডেন্ট। আমরা যদি তার ব্যক্তিগত অংশগ্রহণ ছাড়া এই যুদ্ধ বন্ধের উদ্যোগ নেই, তাহলে সে সিদ্ধান্ত অর্থহীন হবে। `
আলোচনার টেবিলে যখন যুদ্ধ থামানোর বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হবে তখনই কেবল আলোচনায় বসবেন বলেও জানান জেলেনস্কি।


গত ২৪ ফেব্রুয়ারিতে রুশ হামলা শুরুর পর বেশ কয়েকবার রাশিয়া ও ইউক্রেন বিচ্ছিন্ন আলোচনায় বসেছে, কিন্তু তা থেকে তেমন কোনো ফল বেরিয়ে আসেনি। রাশিয়া বলছে, প্রতিবেশী রাশিয়া তার জন্য হুমকি হয়ে পড়েছিল। এ কারণে দেশটিকে নিরস্ত্রীকরণ এবং নাৎসীমুক্ত করতেই সেখানে বিশেষ অভিযান চলছে।

জ্ঞানবাপি মসজিদে মুসলিমদের প্রবেশ বন্ধে আবারও মামলা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের বারানসির বিখ্যাত জ্ঞানবাপি মসজিদ নিয়ে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বারানসির আদালতে হিন্দুত্ববাদীদের করা এই মামলায় বলা হয়েছে, মসজিদ চত্বরে মুসলিমদের প্রবেশ বন্ধ হোক।

আবেদনে বলা হয়েছে, পুরো জমিটাই কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের। সেখানে তাই মসজিদ থাকতে পারে না। পুরো জমি মন্দির কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হোক। অন্যদিকে জ্ঞানবাপি নিয়ে মুসলিম পক্ষের আইনজীবী অভয় যাদব জানিয়েছেন, ‘জ্ঞানবাপি মসজিদের জমি ওয়াকফ বোর্ডের সম্পত্তি।’

গত ১৭ মে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল যে, জ্ঞানবাপি মসজিদে নামাজ পড়া যাবে। বিচারপতি চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জেলা প্রশাসককেও নির্দেশ দিয়েছে, মুসলিমরা যাতে নামাজ পড়তে পারেন, তার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে। ওজুখানা ও তহখানা সিল করে দেওয়ায় ওজুর জন্য পানির ব্যবস্থা করতেও জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতিরা।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে জ্ঞানবাপি সংক্রান্ত আগেকার আবেদনের বিচার এখন জেলা বিচারকের আদালতে হচ্ছে। মঙ্গলবার সেখানে শুনানি হয়েছে। আগামী ২৬ মে আবারও শুনানি হবে। তারপর রায় দিতে পারেন বিচারক। আর এর মধ্যেই আরেকটি আবেদন জানানো হলো।

এদিকে বেঙ্গালুরুর বেসরকারি নিউ হরাইজন স্কুল কর্তৃপক্ষ সাবেক শিক্ষার্থীদের নির্দেশ দিয়েছে, তারা যেন গুগল ম্যাপে জ্ঞানবাপিকে মসজিদ না বলে মন্দির বলে উল্লেখ করে। যতক্ষণ পর্যন্ত গুগল মসজিদ বদলে মন্দির না লিখছে, ততদিন পর্যন্ত এই কাজ করে যেতে হবে বলে তারা নির্দেশ দিয়েছে।

কীভাবে গুগল ম্যাপে পরিবর্তন করতে হবে, তাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সাবেক শিক্ষার্থীদের ইমেইল করে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, স্ক্রিনিং না করেই ইমেইল পাঠানো হয়েছিল। এর আগে এই স্কুল সকল ছাত্রদের ‘কাশ্মির ফাইলস’ সিনেমাটি দেখতে বাধ্য করেছিল।

সূত্র : ডয়চে ভেলে

আমিরাতের সঙ্গে চুক্তি করছে তালেবান
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) জিএএসি ফার্মের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা রাজাক আসলাম মোহাম্মদ আবদুর রাজাক এবং পরিবহন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এবং তালেবানের সরকারের বেসামরিক বিমান চলাচলের উপপ্রধান গুলাম জিলানি ওয়াফা।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) জিএএসি ফার্মের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা রাজাক আসলাম মোহাম্মদ আবদুর রাজাক এবং পরিবহন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এবং তালেবানের সরকারের বেসামরিক বিমান চলাচলের উপপ্রধান গুলাম জিলানি ওয়াফা। ছবি: রয়টার্স
আফগানিস্তানের বিমানবন্দরগুলো পরিচালনায় তালেবান সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন কট্টরপন্থী গোষ্ঠীটির ভারপ্রাপ্ত উপ-প্রধানমন্ত্রী। তুরস্ক, আরব আমিরাত ও কাতারের সঙ্গে কয়েক মাসের আলোচনার পর এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মঙ্গলবার (২৪ মে) টুইটারে জানিয়েছেন মোল্লা আবদুল গণি বারাদার। খবর প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

কাবুলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, তার প্রশাসন আরব আমিরাতের সঙ্গে নতুন করে বিমানবন্দরের গ্রাউন্ড হ্যান্ডেলিং চুক্তি করতে যাচ্ছে। এতে বিদ্যমান চুক্তির বাইরে কিছু থাকছে কি না কিংবা বিমানবন্দরের নিরাপত্তাও যুক্ত হচ্ছে কি না তাৎক্ষণিকভাবে সে সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনীর বিরুদ্ধে দুই দশক যুদ্ধ চালানো তালেবানের কাছে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ইস্যুটি খুবই সংবেদনশীল; আফগানিস্তানে বিদেশি বাহিনীর প্রত্যাবর্তন চায় না বলেও বার বারই জানিয়েছে তারা। আফগানিস্তানের বিমানবন্দর চালাতে তালেবানের সঙ্গে সম্ভাব্য চুক্তির বিষয়ে আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্তব্য চাওয়া হলে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৫ শিশুশিক্ষার্থী নিহত
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৪ শিক্ষার্থীসহ ১৫ জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সান আন্তোনিওর থেকে ৭০ কিলোমিটার পশ্চিমে উভালদে শহরের রব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশুরা দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী। তাদের বয়স ৭ থেকে ১০ বছরের মধ্যে।

বিবিসির প্রতিবেদন বলা হয়, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সান আন্তোনিওর থেকে ৭০ কিলোমিটার পশ্চিমে উভালদে শহরের রব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সালভাদর রামোস (১৮) নামে এক যুবক রাইফেল নিয়ে বিদ্যালয়ে প্রবেশ এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। এতে ১৪ শিক্ষার্থী ও এক শিক্ষক নিহত হয়েছেন। এ সময় পুলিশের গুলিতে ওই যুবক নিহত হয়।

টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট বলেন, এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৭০ বছর বয়সী এক নারী ও ১০ বছর বয়সী এক শিশু গুরুতর আহত অবস্থায় সান আন্তোনিও মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

পুতিনকে হত্যার ছক! অল্পের জন্য রক্ষা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক

সময়টা একেবারেই ভালো যাচ্ছে না রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের। একে তো তিন মাস যুদ্ধ চালিয়েও ইউক্রেনকে বাগে না আনতে পারার চাপ। এর মধ্যেই শোনা গিয়েছিল, শারীরিক অবস্থা ভালো নেই পুতিনের। এর মধ্যেই খবর ছড়িয়েছিল, তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত।

এর মধ্যেই জানা গেল, সম্প্রতি গুপ্তহত্যার কবলে পড়তে পড়তেও বেঁচেছেন তিনি। ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক শীর্ষ কর্মকর্তা এই দাবি করেছেন।

কিরিলো বুদানোভ নামে ইউক্রেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওই কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে, ``পুতিনকে খুন করার একটা চেষ্টা হয়েছিল। এমনকী হামলাও হয়েছিল ওঁর উপরে। এমনটাই জানিয়েছেন ককেসাসের প্রতিনিধি। তবে সেই চেষ্টা পুরোপুরিই ব্যর্থ হয়েছিল।`` প্রায় মাস দুয়েক আগেই এই হামলার ঘটনাটি ঘটেছিল বলে জানা গিয়েছে।

বুদানোভ যে দাবি করেছেন, তা যাচাই করা সম্ভব হয়নি বলেই ওই সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানানো হয়েছে। তবে বুদানোভের বক্তব্যের বিরোধিতা করে ব্রিটেনের `আই নিউজ` তাদের প্রতিবেদনে এই খবরে সন্দেহ প্রকাশ করেছে। তাদের পাল্টা দাবি, `পুতিন অত্যন্ত ছোট ছোট দল নিয়ে ঘোরেন। তিনি যোগাযোগও রাখেন হাতেগোনা মাত্র কয়েকজনের সঙ্গে। তাই এই পরিস্থিতিতে এই ধরনের কোনও চেষ্টার দাবি সন্দেহের উদ্রেক করে।` সব মিলিয়ে পুতিনকে গুপ্তহত্যার দাবিকে ঘিরে চাপানউতোর চরমে।

টোকিওতে কোয়াডের বৈঠক চলাকালে চীন-রাশিয়া উড়াল যুদ্ধবিমান
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
টোকিওতে চারদেশীয় জোট কোয়াডের শীর্ষ সম্মেলন চলাকালে জাপান সীমান্তের কাছে যৌথভাবে যুদ্ধ বিমান উড়িয়েছে চীন এবং রাশিয়া। মঙ্গলবার কোয়াডের নেতারা টোকিওতে যখন সম্মেলনে অংশ নেন, ঠিক সেই সময় এই যুদ্ধবিমান উড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নবুও কিশি।

তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানের নেতাদের আঞ্চলিক নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা করার সময় চীন এবং রাশিয়ার যুদ্ধবিমান উড়ানো নিয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছে সরকার।

তবে বিমানগুলো আঞ্চলিক আকাশসীমা লঙ্ঘন করেনি বলে এএফপিকে জানিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। গত নভেম্বরের পর দীর্ঘবিরতি দিয়ে চতুর্থবারের মতো রাশিয়া ও চীন যৌথভাবে জাপানের কাছে যুদ্ধবিমান উড়াল।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে কিশি বলেছেন, দু’টি চীনা বোমারু বিমান জাপান সাগরে রাশিয়ান দু’টি বোমারু বিমানের সাথে যোগ দিয়েছে এবং পূর্ব চীন সাগরে যৌথ ফ্লাইট পরিচালনা করেছে।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাশিয়ার গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহকারী একটি বিমানও উত্তর হোক্কাইডো থেকে জাপানের মধ্যাঞ্চলীয় নোটো উপদ্বীপের দিকে উড়ে গেছে। টোকিওর শীর্ষ সম্মেলনের সময় চীন-রাশিয়ার এই পদক্ষেপকে ‘উস্কানিমূলক’ বলে অভিহিত করেছেন মন্ত্রী কিশি।

কোয়াডের নেতারা এক বিবৃতিতে ওই অঞ্চলে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে যেকোনও ধরনের স্থিতাবস্থা পরিবর্তনের প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে সতর্ক করে দিয়েছেন। যদিও যৌথ বিবৃতিতে রাশিয়া অথবা চীনের ব্যাপারে সরাসরি কিছু উল্লেখ করা হয়নি। তবে বিবৃতিতে চলমান ইউক্রেন যুদ্ধের উল্লেখ এবং এই অঞ্চলে নিয়মিতভাবে এ ধরনের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে বেইজিংকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত জাপান সীমান্তের কাছে এক হাজার ৪ বার যুদ্ধব্মিান উড়িয়েছে চীন।

নিউইয়র্কে চলন্ত ট্রেনে বন্দুক হামলায় নিহত ১
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিনই ঝরছে তাজা প্রাণ। এবার নিউইয়র্ক শহরে চলন্ত ট্রেনে বন্দুক হামলায় একজন নিহত হয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, ট্রেন স্টেশনে থামার পর পালিয়ে যায় হামলাকারী। তাকে ধরতে অভিযান চলছে। এদিকে শহরজুড়ে গুলির ঘটনা বাড়তে থাকায় আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালির্ফোনিয়ায় বন্দুক হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই একই ঘটনা ঘটে নিউইয়র্কে। রোববার (২২ মে) সকালে শহরের ব্যস্ততম একটি সাবওয়ের চলন্ত ট্রেনে গুলি চালানো হয়। এতে মারাত্মকভাবে আহত হন ৪৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনার আগে ট্রেনে কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করতে দেখা যায় হামলাকারীকে। একপর্যায়ে বিনা উসকানিতে এক যাত্রীকে লক্ষ্য করে আচমকাই গুলি চালায় সে। পরে ক্যানাল স্ট্রিট স্টেশনে ট্রেন থামলে সেখানে নেমে দ্রুত পালিয়ে যায় হামলাকারী।

নিউইয়র্ক পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, সকাল ১১টার দিকে আমরা গুলির ঘটনা জানতে পারি। পরে সেখানে গিয়ে ৪৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে আহত অবস্থায় পাই। দুর্ভাগ্যজনকভাবে তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় আমরা তদন্ত শুরু করেছি। হামলাকারী পালিয়ে গেলেও তাকে শিগগিরই ধরতে পারবো বলে আশা করছি।
এরইমধ্যে সাবওয়ে স্টেশন ও এর আশপাশের এলাকা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে পুলিশ।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে গুলির ঘটনা আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। বৃহস্পতিবার শিকাগোতে বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত দুজন নিহত হন। এ ঘটনায় একজনকে আটক করে পুলিশ। আর সবশেষ শনিবার ক্যালির্ফোনিয়ায় একটি পার্টিতে হামলায় আরও দুজন প্রাণ হারান।

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক সহিংসতা দীর্ঘদিনের সামাজিক সমস্যা। এর সমাধানে নানাভাবে চেষ্টা করছে দেশটির সরকার। কিন্তু কোনোভাবেই লাগাম টানা যাচ্ছে না। দেশটির বিভিন্ন স্থানে প্রায় প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও বন্দুক হামলায় প্রাণ হারাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।
যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বিভিন্ন ওয়েবসাইট বলছে, চলতি বছর এখন পর্যন্ত অন্তত দুই শতাধিক মানুষ বন্দুক হামলায় নিহত হয়েছেন। আহত অন্তত এক হাজার। গেল এপ্রিলেই মিনেসোটা ও পেনসিলভেনিয়ায় বন্দুক হামলায় অন্তত ৯ জনের মৃত্যু হয়।

বড়দিন ঘিরে বিভিন্ন স্থানে তিনবার বন্দুক হামলা চালানো হয়। এ মাসেই পিটসবার্গে একটি পার্টিতে হামলায় নিহত হন দুই কিশোর। সাউথ ক্যারোলাইনায় একটি ব্যস্ত শপিং মলে বন্দুক হামলায় আহত হন অন্তত ১৪ জন।

ইউক্রেন ছেড়েছে ৬৫ লাখ মানুষ : জাতিসংঘ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
দীর্ঘ সময় থেকে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। রুশ সেনাদের তীব্র হামলায় পূর্ব ইউরোপের এই দেশটি অনেকটাই বিপর্যস্ত। পরাশক্তি রাশিয়াকে মোকাবিলায় পশ্চিমা দেশগুলো অস্ত্র ও নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়ালেও রুশ অভিযান তাতে বন্ধ হয়নি। রাশিয়ার সেনা অভিযানের পর থেকে এ পর্যন্ত ইউক্রেন ছেড়েছে ৬৫ লাখের বেশি মানুষ। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা-ইউএনএইচসিআরের সবশেষ তথ্য থেকে এমনটা জানা গেছে।

এছাড়াও দেশের অভ্যন্তরেই বাস্তুচ্যুত হয়েছে ৮০ লাখের বেশি মানুষ। যা যুদ্ধ পূর্ববর্তী ইউক্রেনের জনসংখ্যার পাঁচ ভাগের একভাগের সমান। আগেই জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ভবিষ্যত বাণী করেছিল যে, রাশিয়ার ইউক্রেন অভিযানের ঘটনায় ৮৩ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হবে।

উল্লেখ্য, পশ্চিমা দেশগুলোর সামরিক জোট ন্যাটোর সদস্যপদের জন্য ২০০৮ সাল থেকে আবেদন করে ইউক্রেন। মূলত, এ নিয়েই রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। তবে সম্প্রতি ন্যাটো ইউক্রেনকে পূর্ণ সদস্যপদ না দিলেও ‘সহযোগী দেশ’ হিসেবে মনোনীত করায় দ্বন্দ্বের তীব্রতা আরও বাড়ে। ন্যাটোর সদস্যপদের আবেদন প্রত্যাহারে চাপ প্রয়োগ করতে যুদ্ধ শুরুর দুই মাস আগ থেকেই ইউক্রেন সীমান্তে প্রায় দুই লাখ সেনা মোতায়েন রাখে মস্কো।

কিন্তু এই কৌশল কোনো কাজে না আসায় গত ২২ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দুই ভূখণ্ড দনেৎস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয় রাশিয়া। ঠিক তার দুদিন পর ২৪ তারিখ ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এরপর রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী স্থল, আকাশ ও সমুদ্রপথে ইউক্রেনে এই হামলা শুরু করে।

ইতালির যুদ্ধ বন্ধ প্রস্তাবে রাশিয়া যা বলল
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইউক্রেনে রাশিয়া আগ্রাসন শুরু করে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি। এরপর থেকে বিভিন্ন পক্ষ যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানালেও যুদ্ধ কবে থামবে তার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না। শান্তি প্রতিষ্ঠায় তুরস্ক ও বেলারুশে রাশিয়া ও ইউক্রেনের নেতারা একাধিক বৈঠক করলেও তাতে কার্যত কোনো ফল আসেনি। এরই মধ্যে শান্তিচুক্তির প্রস্তাব দিয়ে যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে ইতালি।

তবে ইউক্রেন যুদ্ধের অবসানে ইতালি যে শান্তি চুক্তির প্রস্তাব দিয়েছে তা ভেবে দেখছে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দ্রেই রুদেনকো। সোমবার তিনি এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর এনডিটিভির।

আন্দ্রেই রুদেনকো বলেন, সম্প্রতি প্রস্তাবটি পাওয়ার পর আমরা এটি এখন পড়ে দেখছি। তবে ওই প্রস্তাবের বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানান তিনি। তিনি বলেন, এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

রুশ উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দ্রেইকে উদ্ধৃত করে রাশিয়ার সংবাদ সংস্থাগুলো জানায়, প্রস্তাব নিয়ে রাশিয়া ও ইতালির মধ্যে এখনো কোনো আলোচনা হয়নি।

ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধ বন্ধ নিয়ে আলোচনায় রুশ পক্ষের প্রধান আলোচক ভ্লাদিমির মেদিনস্কি। গত রোববার তিনি বলেন, রাশিয়া আবার আলোচনা শুরু করতে প্রস্তুত হলেও ইউক্রেনের কারণেই এটা আটকে আছে।

রুশ উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দ্রেই রুদেনকো বলেন, আমাদের কারণে আলোচনা বন্ধ এবং সবকিছু স্থগিত হয়নি। আলোচনা আবার শুরু হবে কেবল ইউক্রেন গঠনমূলক কোনো অবস্থানে এলে।

জেলেনস্কি জানালেন রাশিয়ার হামলায় সবচেয়ে বড় ক্ষতির কথা
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইউক্রেনের দেসনা শহরের একটি সেনা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে রাশিয়ার মিসাইল হামলায় ৮৭ জন সেনা নিহত হয়েছেন। সোমবার অর্থনৈতিক ফোরামে দেওয়া বক্তব্যে এমন তথ্য জানান ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি।

দেসনা শহরের ঘটনাটি রাশিয়ার একটি হামলায় ইউক্রেনের সবচেয়ে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা হতে পারে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো। গত ১৭ এপ্রিল মঙ্গলবার এ মিসাইল হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলার দিন রাশিয়ার সেনা মুখপাত্র জানিয়েছিলেন, দূরপাল্লার মিসাইল চেরনিহিভের দেসনার একটি সেনা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আঘাত হেনেছে। ওই হামলার পর ইউক্রেনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল ৮ জন নিহত হয়েছেন। কিন্তু এখন প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি জানালেন, রাশিয়ার সেই হামলায় একসঙ্গে ৮৭ জন নিহত হয়েছেন।

এ ব্যাপারে জেলেনস্কি বলেন, আজ আমরা দেসনাতে কাজ শেষ করেছি। দেসনায় ধ্বংসস্তুপের নিচে ৮৭ জনের মরদেহ ছিল।

সূত্র: রয়টার্স, ফ্রান্স ২৪

দুঃসময়ে শ্রীলঙ্কায় জ্বালানি, ওষুধ ও খাদ্যপণ্য পাঠালো ভারত
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
প্রতিবেশীর দুঃসময়ে পাশে আছে ভারত। এই বার্তা দিতে রবিবার ফের আরও একদফা জ্বালানি থেকে খাদ্যশস্য-সহ একাধিক সামগ্রী শ্রীলঙ্কায় পাঠালো ভারত। ভারতের হাইকমিশনের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, কলম্বোয় প্রায় চল্লিশ হাজার মেট্রিক টন ডিজেল পাঠিয়েছে ভারত।


এই মুহূর্তে কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। গোটা দেশ প্রবল অর্থনৈতিক সংকটের মুখে। গত মাসেই, ভারত শ্রীলঙ্কাকে জ্বালানি আমদানিতে সহায়তা করার জন্য অতিরিক্ত ৫০০ মিলিয়ন ক্রেডিট লাইনের সুবিধা দিয়েছে। ডিজেল ছাড়াও আর্থিক ভাবে কার্যত বিধ্বস্ত শ্রীলঙ্কার জনগণের জন্য চাল, ওষুধ এবং গুঁড়ো দুধের মতো জরুরি ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে একটি ভারতীয় জাহাজ রবিবার কলম্বো পৌঁছায়। তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্টালিন বুধবার চেন্নাই থেকে ত্রাণ সামগ্রী বোঝাই জাহাজটিকে কলম্বোর উদ্দেশ্যে রওনা করান।

ত্রাণের মধ্যে রয়েছে ৯,০০০ মেট্রিক টন চাল, ২০০ মেট্রিক টন গুঁড়ো দুধ এবং ২৪ মেট্রিক টন জীবনদায়ী ওষুধ যার বাজার মূল্য প্রায় ৪৫ কোটি টাকা। শ্রীলঙ্কা সরকারের পক্ষ থেকেও ভারতের ত্রাণ পাঠানোর কথা স্বীকার করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে তাঁরা জানিয়েছে, ভারতের বেশ কিছু বেসরকারি ও সামাজিক সংগঠন বিভিন্ন জরুরি প্রয়োজন মেটাতে শ্রীলঙ্কায় সাহায্য পাঠিয়েছে। ভারত ছাড়াও জাপান তাঁদের ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রামের মাধ্যমে ১.৫ মিলিয়ন ডলার অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। শ্রীলঙ্কার নতুন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংঘে এই সপ্তাহেই ঘোষণা করেছেন যে শ্রীলঙ্কা মারাত্মক খাদ্য সংকটের সম্মুখীন হতে চলেছে।


১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর থেকে সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে দেশ। জ্বালানি, রান্নার গ্যাস এবং অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধিতে চরম দুর্ভোগে জনগণ। এই চরম অর্থনৈতিক সংকট দেশে রাজনৈতিক সংকট তৈরি করেছে। নয়াদিল্লি ঘোষণা করেছে, শ্রীলঙ্কার চিরন্তন এবং নির্ভরযোগ্য বন্ধু হিসাবে নয়াদিল্লি দ্বীপরাষ্ট্রের গণতন্ত্র, স্থিতিশীলতা এবং অর্থনৈতিক অবস্থা পুনরুদ্ধারে সম্পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যাবে। এখনও পর্যন্ত ভারত ওই দেশে প্রায় ৩.৫ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি আর্থিক সাহায্য করেছে বলেই বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে।

আম খাওয়ার আগে পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন
                                  

স্বাধীন বাংলা  ডেস্ক

পাকা আমের মৌসুম এখনো আসেনি। তার আগেই বাজারে উঠতে শুরু করেছে পাকা আম। তবে যখনই আপনি কিনুন না কেন, খাওয়ার আগে অবশ্যই আধা ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন।

আম পানিতে ভিজিয়ে রাখলে শুধু ধুলা-বালুই পরিষ্কার হবে না বরং এভাবে আম খাওয়ার ৫টি বৈজ্ঞানিক কারণও আছে। অনেক স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে নিজেকে বাঁচাতে এই কৌশলে আম খেতে পারেন। চলুন তবে জেনে নিন আম খাওয়ার আগে পানিতে ভিজিয়ে রাখলে কী কী সুবিধা পাবেন-

 

>> ফাইটিক অ্যাসিড থেকে মুক্তি মেলে পানিতে ভিজিয়ে আম খেলে। ফাইটিক অ্যাসিড হলো এক ধরনের পুষ্টি, যা শরীরের জন্য ভালো ও খারাপ উভয়ই হতে পারে। এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে বিবেচিত। যা শরীরকে আয়রন, জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম ও অন্যান্য খনিজগুলো শোষণে বাধা দেয়। এই অ্যাসিডের কারণে শরীরে মিনারেলের ঘাটতি হয়। শুধু আম নয়; অন্যান্য ফল, শাক-সবজি ও বাদামেও আছে এই প্রাকৃতিক অণু। ফাইটিক অ্যাসিড শরীরে তাপ তৈরি করে। পানিতে ভিজিয়ে রাখলে তা নির্গত হয়ে বেরিয়ে যায়।
>> ক্ষতিকর বিভিন্ন কীটনাশক আম ও এর গাছে ব্যবহার করা হয়। যা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এ বিষয়ে ভারতের আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞ আশুতোষ গৌতম এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানান, আম পানিতে ভিজিয়ে না খেলে অ্যালার্জি, ত্বকের জ্বালা বা অন্যান্য গুরুতর সমস্যা হতে পারে। অনেক সময় আম ভিজিয়ে না খেলে মাথাব্যথা, বমি বমি ভাবের মতো সমস্যাও হয়।
>> অনেকেরই আম খেলে ব্রণ বা ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। এ ছাড়া কোষ্ঠকাঠিন্য, মাথাব্যথা বা পেট সংক্রান্ত অন্যান্য শারীরিক সমস্যা মোকাবিলা করতে হয়। এমন অবস্থায় কিছুক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রাখলে তাপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। ভারতীয় সেলিব্রেটি পুষ্টিবিদ রুজুতা দিওয়েকর টুইটারে একটি পোস্ট শেয়ার করে বলেছেন, আম খাওয়ার আগে কমপক্ষে ৩০ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। এরপর খাওয়া ত্বকের জন্য ভালো হবে।


* আম খেলে শরীরের তাপমাত্রাও বেড়ে যায়, ফলে থার্মোজেনিক তৈরি হয়। তবে আম পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে খেলে এ সমস্যা হবে না। আসলে থার্মোজেনিকের উৎপাদন বাড়ার কারণে ব্রণ, কোষ্ঠকাঠিন্য, মাথাব্যথার মতো সমস্যা তৈরি হয়।
* এই পদ্ধতিতে আম খেলে ওজনও কমবে। আসলে আমে ফাইটোকেমিক্যাল থাকে। যখন আম ভিজিয়ে রাখা হয়; তখন এর ঘনত্ব কমে যায়। এটি প্রাকৃতিকভাবে চর্বি বার্ন করতে সাহায্য করে।

বিশ্ব খাদ্য ব্যবস্থা বিপর্যয়ের মুখোমুখি
                                  

স্বাধীন বাংলা  ডেস্ক
করোনা মহামারিতে দুর্বল হয় বৈশ্বিক খাদ্য ব্যবস্থা । কোভিড-১৯ ও জলবায়ু পরিবর্তনের ধাক্কা সামলে উঠার আগেই বিশ্বব্যাপী খাদ্য ব্যবস্থাকে আঘাত করেছে ইউক্রেন সঙ্কট। এরই মধ্যে দেশে দেশে দেখা দিয়েছে রেকর্ড মূল্যস্ফীতি। বেড়ে গেছে জীবনযাত্রার ব্যয়।
ইউক্রেনের শস্য ও তেলবীজের রপ্তানির বেশিরভাগই বন্ধ হয়ে গেছে এবং রাশিয়ার রপ্তানিও হুমকির মুখে পড়েছে। বিশ্ববাজারে সরবরাহকৃত মোট ক্যালোরির প্রায় ১২ শতাংশ আসে এই দুই দেশ থেকে। চলতি বছরের শুরুর দিকে বিশ্ববাজারে গমের দাম ৫৩ শতাংশ বেড়েছে। এছাড়া উদ্বেগজনক তাপপ্রবাহের কারণে ভারত গত ১৬ মে গমের রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় আরও ৬ শতাংশ দাম বৃদ্ধি পেয়েছে এই খাদ্যশস্যের।

 

জীবনযাত্রার ব্যয়-সংকটের ব্যাপকভাবে স্বীকৃত ধারণা সামনে কী হতে পারে সে বিষয়ে সঠিক পূর্বানুমাণ করতে পারছে না। গত ১৮ মে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, আগামী মাসগুলোতে বিশ্বব্যাপী খাদ্যে প্রচণ্ড ঘাটতি দেখা দেওয়ার হুমকি তৈরি হয়েছে, যা বছরের পর বছর ধরে স্থায়ী হতে পারে।
প্রধান প্রধান বিভিন্ন খাবারের উচ্চ মূল্যের কারণে পর্যাপ্ত খাবারের নিশ্চয়তা নেই এমন মানুষের সংখ্যা ইতিমধ্যে বিশ্বে ৪৪ কোটি থেকে বেড়ে ১৬০ কোটিতে দাঁড়িয়েছে। আরও প্রায় ২৫ কোটি মানুষ দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে রয়েছেন। যদি যুদ্ধ চলতে থাকে এবং বিশ্ববাজারে রাশিয়া ও ইউক্রেনের সরবরাহ সীমিত হয়, তাহলে আরও কয়েক কোটি মানুষ দারিদ্র্যের কবলে পড়তে পারেন। এর ফলে রাজনৈতিক অস্থিরতা ছড়িয়ে পড়বে, শিশুদের জীবন থমকে যাবে এবং মানুষকে অনাহারে থাকতে হবে।


প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন খাবারকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করবেন না বলে আশা অনেকের। যুদ্ধের অনিবার্য ফল অভাব নয়, ক্ষুধাকে বৈশ্বিক সমস্যা হিসেবে বিশ্ব নেতাদের দেখা উচিত। আর এ জন্য জরুরিভিত্তিতে বৈশ্বিক সমাধান প্রয়োজন।
বিশ্বজুড়ে লেনদেনকৃত মোট গমের ২৮ শতাংশ, বার্লির ২৯ শতাংশ, ভুট্টার ১৫ শতাংশ এবং সূর্যমুখী তেলের ৭৫ শতাংশ সরবরাহ করে রাশিয়া ও ইউক্রেন। লেবানন ও তিউনিসিয়ার আমদানিকৃত খাদ্যশস্যের প্রায় অর্ধেকই রাশিয়া ও ইউক্রেনের; লিবিয়া এবং মিসরের ক্ষেত্রে তা প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ।


ইউক্রেনের খাদ্য রপ্তানি বিশ্বের প্রায় ৪০ কোটি মানুষের খাবারের ক্যালোরির যোগান দেয়। যুদ্ধের কারণে দেশটির খাদ্য রপ্তানি ব্যাহত হয়েছে। কারণ আক্রমণ প্রতিরোধ করার জন্য ইউক্রেন জলসীমা বন্ধ করে দিয়েছে। অন্যদিকে রাশিয়া ওডেসা বন্দর অবরোধ করেছে।
আগ্রাসনের আগেই বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) ২০২২ সাল ভয়াবহ একটি বছর হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছিল। বিশ্বের বৃহত্তম গম উৎপাদনকারী চীন বলেছে, বৃষ্টির কারণে গত বছর রোপণ বিলম্বিত হওয়ায় এই ফসলের উৎপাদন সবচেয়ে খারাপ হতে পারে। চরম বৈরী তাপমাত্রা ও বৃষ্টিপাতের অভাবে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম উত্পাদনকারী ভারতের পাশাপাশি আমেরিকান অঞ্চলের গমের বেল্ট থেকে ফ্রান্সের বিউস অঞ্চলের রুটির ঝুড়ি হিসেবে পরিচিত এলাকায়ও এর ফলন হুমকির মুখে পড়েছে।


চার দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ খরায় বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়েছে হর্ন অব আফ্রিকা অঞ্চল। জলবায়ু পরিবর্তনের যুগে প্রবেশ করেছে সেখানকার দেশগুলো। আর এসব কিছু দরিদ্র দেশগুলো ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলছে। উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলো তাদের বাজেটের ২৫ শতাংশ খাদ্যে এবং সাব-সাহারান আফ্রিকা অঞ্চলে তা ৪০ শতাংশ পর্যন্ত ব্যয় করছে। মিসরে মানুষের ক্যালোরির চাহিদার প্রায় ৩০ শতাংশ পূরণ করে রুটি। অনেক আমদানিকারক দেশের সরকার দরিদ্রদের সহায়তা বৃদ্ধির জন্য ভর্তুকির ব্যয় বহন করতে পারছে না। বিশেষ করে অস্থিতিশীল বাজারের জ্বালানি আমদানি করেও ভর্তুকি দেওয়া যাচ্ছে না।


সংকট আরও ভয়াবহ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইউক্রেন ইতিমধ্যে দেশটিতে যুদ্ধ শুরুর আগে মজুতকৃত গত গ্রীষ্মের ফসলের বেশিরভাগই রপ্তানি করেছে। অতিরিক্ত ব্যয় এবং পরিবহনকারীদের ঝুঁকি সত্ত্বেও রাশিয়া এখনও খাদ্য শস্য বিক্রি করছে। তবে যুদ্ধে ইউক্রেনের গুদামগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। সেগুলো ভুট্টা এবং বার্লিতে পূর্ণ রয়েছে।
দেশটিতে আগামী জুনের শেষের দিকে কৃষকদের পরবর্তী ফসল মজুত করতে হবে। কিন্তু মজুত করার জায়গা না থাকায় নতুন ফসল পচে যাওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। রাশিয়া সাধারণত ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বীজ এবং কীটনাশক কিনে থাকে। তবে যুদ্ধের কারণে এবার বীজ এবং কীটনাশকের সংকটে পড়তে পারে দেশটি।


শস্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় কৃষকরা বিশ্বের অন্য স্থান থেকেও ঘাটতি পূরণ করতে পারছে না। এর অন্যতম কারণ হলো অস্থিতিশীল দাম। তবে আরও ভয়াবহ সংকট হলো সার ও বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির কারণে লাভের পরিমাণ সঙ্কুচিত হচ্ছে। এসবই কৃষকদের প্রধান ব্যয়। নিষেধাজ্ঞা এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের সংকট উভয় বাজারকে নাড়িয়ে দিয়েছে। কৃষকরা যদি সারের ব্যবহার কমিয়ে দেন, তাহলে ভুল এই সময়ে বিশ্বজুড়ে ফসলের উৎপাদন কমে যাবে।

উদ্বিগ্ন রাজনীতিকদের প্রতিক্রিয়া খারাপ পরিস্থিতিকে আরও খারাপ করে তুলতে পারে। ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর কাজাখস্তান থেকে কুয়েত পর্যন্ত বিশ্বের অন্তত ২৩টি দেশ খাদ্য রপ্তানিতে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। আর এসব দেশের রপ্তানি বিশ্বজুড়ে সরবরাহকৃত মোট খাদ্যের প্রায় ১০ শতাংশের যোগান দেয়। বিশ্বে সারের মোট রপ্তানির এক-পঞ্চমাংশেরও বেশি সীমিত হয়েছে। এতে দুর্ভিক্ষ দেখা দেবে চলমান এই সংকটে যদি বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যায় ।

ভারত কমালো ডিজেল-পেট্রলের দাম
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক
নিত্যপণ্যের বাড়তি দামের মধ্যে দেশবাসীকে কিছুটা স্বস্তি দিল ভারত সরকার। দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার ডিজেল ও পেট্রলের ওপর থেকে শুল্ক কমানোর ঘোষণা দিয়েছে। এর ফলে প্রতি লিটারে ডিজেলের দাম ৭ টাকা ও পেট্রলের দাম সাড়ে ৯ টাকা কমবে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানা যায় বলে জানিয়েছেন আনন্দবাজার অনলাইন।

নির্মলা টুইটে জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় এক্সাইস ডিউটি পেট্রলের ক্ষেত্রে কমানো হচ্ছে ৮ টাকা প্রতি লিটার এবং ডিজেলে ৬ টাকা প্রতি লিটার। এর ফলে দেশে পেট্রলের দাম কমবে লিটারপ্রতি সাড়ে ৯ টাকা এবং ডিজেলের দাম কমবে লিটারে ৭ টাকা। এর ফলে বছরে ১ লক্ষ কোটি টাকা কোষাগার থেকে দেবে কেন্দ্র সরকার।

নির্মলার একই টুইটে রাজ্যগুলোর কাছেও একই ভাবে শুল্ক কমানোর আবেদন জানিয়েছেন। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর টুইট থেকে জানা যাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী ‘উজ্জ্বলা যোজনায়’ সিলিন্ডার প্রতি ২০০ টাকা ভর্তুকি দিবে। বছরে ১২টি সিলিন্ডারের ক্ষেত্রে এ সুবিধা পাওয়া যাবে। এর ফলে ৯ কোটি গ্রাহক উপকৃত হবেন বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। আর সরকারের কোষাগার থেকে বছরে অতিরিক্ত ৬ হাজার ১০০ কোটি টাকা খরচ হবে। জ্বালানির নতুন এই মূল্য শনিবার মধ্যরাত থেকেই কার্যকর হয়েছে।


   Page 1 of 289
     আন্তর্জাতিক
জর্জ বুশকে খুনের ছক ফাঁস, ধৃত ইরাকি
.............................................................................................
যাত্রী পরিবহনে নজির গড়ল দমদম বিমানবন্দরের
.............................................................................................
কারো সঙ্গে আর আলোচনা নয়, পুতিন ছাড়া : জেলেনস্কি
.............................................................................................
জ্ঞানবাপি মসজিদে মুসলিমদের প্রবেশ বন্ধে আবারও মামলা
.............................................................................................
আমিরাতের সঙ্গে চুক্তি করছে তালেবান
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৫ শিশুশিক্ষার্থী নিহত
.............................................................................................
পুতিনকে হত্যার ছক! অল্পের জন্য রক্ষা
.............................................................................................
টোকিওতে কোয়াডের বৈঠক চলাকালে চীন-রাশিয়া উড়াল যুদ্ধবিমান
.............................................................................................
নিউইয়র্কে চলন্ত ট্রেনে বন্দুক হামলায় নিহত ১
.............................................................................................
ইউক্রেন ছেড়েছে ৬৫ লাখ মানুষ : জাতিসংঘ
.............................................................................................
ইতালির যুদ্ধ বন্ধ প্রস্তাবে রাশিয়া যা বলল
.............................................................................................
জেলেনস্কি জানালেন রাশিয়ার হামলায় সবচেয়ে বড় ক্ষতির কথা
.............................................................................................
দুঃসময়ে শ্রীলঙ্কায় জ্বালানি, ওষুধ ও খাদ্যপণ্য পাঠালো ভারত
.............................................................................................
আম খাওয়ার আগে পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন
.............................................................................................
বিশ্ব খাদ্য ব্যবস্থা বিপর্যয়ের মুখোমুখি
.............................................................................................
ভারত কমালো ডিজেল-পেট্রলের দাম
.............................................................................................
প্রেমের ফাঁদে ফেলে পাকিস্তানে গুরুত্বপূর্ণ নথি পাচার, সেনা আটক
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্র ১ লাখ সেনা রাখবে ইউরোপে
.............................................................................................
নাম মোহাম্মদ কিনা জানতে চেয়ে উপর্যুপরি নির্যাতন, শেষে লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
কম দাম পেয়ে চীন নীরবে রুশ তেল আমদানি বাড়িয়েছে
.............................................................................................
মারিউপোলে রাশিয়ার পূর্ণ বিজয় ঘোষণা
.............................................................................................
ফিনল্যান্ডে ন্যাটো ঘাঁটি বা পারমাণবিক অস্ত্র স্থাপন করতে দেওয়া হবে না: সানা মারিন
.............................................................................................
ডনবাস শহর পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে : জেলেনস্কি
.............................................................................................
বিশ্বব্যাপী দুর্ভিক্ষ ডেকে আনবে এই ইউক্রেনে যুদ্ধ
.............................................................................................
ইসরাইলি বিমান লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লো রাশিয়া
.............................................................................................
পাঞ্জাবে পতনের মুখে শেহবাজ সরকার
.............................................................................................
ওমানের জাহাজ উদ্ধার করল ইরান
.............................................................................................
ক্ষমতায় আসতে পারেন ইমরান খান, সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়
.............................................................................................
ইউরোপ বাধ্য হবে অর্থনৈতিক ‌আত্মহত্যা করতে : পুতিন
.............................................................................................
চীন সামরিক কাঠামো তৈরি করছে অরুণাচল সীমান্তের
.............................................................................................
চীনের সেই বিমান দুর্ঘটনা ছিল ইচ্ছাকৃত, ব্ল্যাক বক্সে ভয়ঙ্কর তথ্য
.............................................................................................
ভারতীয় কোষাগারে টান! বেসরকারিকরণের পথে হাঁটছে মোদি
.............................................................................................
ফিনল্যান্ড সীমান্তে রাশিয়ার পরমাণু অস্ত্র বহনকারী ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন
.............................................................................................
এলিজাবেথ বোর্ন ফ্রান্সের নতুন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
আক্রমণ ছাড়াই পাকিস্তানকে দাস বানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র: ইমরান খান
.............................................................................................
রাশিয়ার গুলিতে ইউক্রেনের তিন যুদ্ধবিমান ভূপাতিত
.............................................................................................
এরদোগানকে ইউক্রেনীয় অপরাধীদের দ্বারা বোকা না হওয়ার আহ্বান কাদিরভের
.............................................................................................
ক্যালিফোর্নিয়ার গির্জায় গুলি, হতাহত ৫
.............................................................................................
আমাকে হত্যার ষড়যন্ত্র চলছে
.............................................................................................
ন্যাটোতে যোগদানের পরিকল্পনা নিশ্চিত করল ফিনল্যান্ড
.............................................................................................
নিউইয়র্কে সুপারমার্কেটে শ্বেতাঙ্গের গুলিতে ১০ জন নিহত
.............................................................................................
ইউক্রেন যুদ্ধে ক্ষতির মুখে গুজরাতের হিরে ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্র-কেন্দ্রিক বিশ্ব ব্যবস্থা পতনে রাশিয়ার ভবিষ্যদ্বাণী
.............................................................................................
সুইডেন-ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানে তুরস্কের সমর্থন অসম্ভব
.............................................................................................
সাংবাদিক শিরিনের শেষকৃত্যানুষ্ঠানে ইসরাইলি বাধা
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক বাজারে গম রপ্তানি বন্ধ করল ভারত
.............................................................................................
আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট আর নেই
.............................................................................................
৬০ লাখেরও বেশি শরনার্থী ইউক্রেন ছেড়েছে
.............................................................................................
চাঁদাবাজির ভিডিও প্রমানে ৫ পুলিশ বরখাস্ত
.............................................................................................
বিশ্বে নাম্বার ওয়ান সৌদি আরামকো, দিনে আয় ১০০ কোটি ডলার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT