রবিবার, ২৮ নভেম্বর 2021 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   পরিবেশ
  চলুন, ৫ মিনিটেই হয়ে যাই তুলসী বিশারদ !
 

নমিতা দাস : তুলসী আমাদের অতি পরিচিত একটি গাছ। বাংলাদেশ ও ভারতের সর্বত্র এই গাছ দেখতে পাওয়া যায়। যারা হিন্দু ধর্মের অনুসারী, তারা নিশ্চয়ই ছোট বেলায় দেবতার পূজার জন্য তুলসী পাতা ফুলের ঝুড়িতে তুলেছেন! আসুন জেনে নেই এই গাছ সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য…

বাংলা নাম : তুলসী

বৈজ্ঞানিক নাম : Ocimum sanctum.

ইংরেজি নাম : Sacred Basil , Holy Basil.

পরিবার : Lamiaceae

তুলসী একটি সুগন্ধি ও শাখাযুক্ত বিরুৎ উদ্ভিদ। সাধারণত ভেজা মাটিতে তুলসী গাছের জন্ম হয়ে থাকে। এটি আনুমানিক ৭৫-৯০ সে.মি. পর্যন্ত লম্বা হয়। তুলসীর পাতা ২-৪ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। এর পাতার কিনারায় আবার খাঁজকাটা নকশাও থাকে। শাখা প্রশাখার সামনের অংশ থেকে পাঁচটি ফুলের ডাল বের হয় এবং প্রতিটি ডালের চারিদিকে ছাতার মত করে ১০-১২ টি স্তরে ফুল ধরে। তুলসী ফুল আকারে বেশ ছোট, ফুলের রঙ হয় হালকা বেগুনী। সিলিন্ডার আকৃতির স্পাইকে ফুল গুলো ঘন ভাবে সজ্জিত থাকে। তুলসী ফল গুলোও আকারে ছোট, বীজ গুলো একটু হলুদ বা লালচে ধরণের। তুলসী গাছের পাতা, ফুল এবং ফলে এক ধরনের ঝাঁঝালো গন্ধ আছে, তা নিশ্চয়ই মোটামুটি সবারই জানা!

হিন্দু ধর্মে এই গাছটিকে বিশেষ ভাবে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে । বৈদিক যুগ থেকে হিন্দুধর্মে এই গাছটির কথা বলা হয়েছে। হাজার হাজার বছর ধরে হিন্দু পরিবার গুলোতে কৃষ্ণ ও রাধা নামে দু’ধরনের তুলসী গাছের পূজা করা হচ্ছে। শুধু যে ধর্মীয় ব্যাখ্যা রয়েছে এই গাছটিকে নিয়ে তা কিন্তু নয়! এই গাছটির বৈজ্ঞানিক নামের মানে হচ্ছে “পবিত্র স্থান”। আসুন জেনে নিই এই গাছের আড়ালে লুকিয়ে থাকা কিছু ধর্মীয়, পরিবেশগত এবং বৈজ্ঞানিক তথ্য !

হিন্দু ধর্মীয় তথ্য :

হিন্দু ধর্মের অনুসারীদের বাড়ির উঠোনে আমরা তুলসী গাছ দেখতে পাই । তাঁরা তুলসী গাছের পূজো করে থাকেন। কারণ ব্রহ্মবৈরত পুরাণে তুলসীকে সীতা স্বরূপা,স্কন্ধ পুরাণে লক্ষ্মীস্বরূপা, চরক সংহিতায় বিষ্ণুর ন্যায় ভূমি, পরিবেশ এবং মানব জাতিকে রক্ষা করে বলে বিষ্ণুপ্রিয়া,ঋকবেদে কল্যাণী বলা হয়েছে। হিন্দু ধর্মের অনুসারীরা বিশ্বাস করেন যে, স্বয়ং ঈশ্বর তুলসী গাছকে “পবিত্র বৃন্দা” বলেছেন এবং এর সেবা করতে বলেছেন ।

পরিবেশগত তথ্য :

পরীক্ষা করে দেখা গেছে, তুলসী গাছই এক মাত্র উদ্ভিদ যা দিন রাত চব্বিশ ঘণ্টাই অক্সিজেন সরবাহ করে বায়ু বিশুদ্ধ রাখে। অথচ রাতের বেলা অন্যান্য উদ্ভিদ কার্বন -ডাই-অক্সাইড ত্যাগ করে। তুলসী গাছ মাটি ক্ষয়রোধক। তুলসী গাছ বাড়িতে লাগালে তা কীট-পতঙ্গ, সাপ ইত্যাদি প্রাণির আগমন রোধ করে বাড়িকে আগলে রাখে।

বৈজ্ঞানিক তথ্য :

তুলসী গাছের ঔষধী গুন সম্পর্কে আমরা সেই ছোটবেলা থেকেই অনেকখানি সমৃদ্ধ! তবুও আরেকবার ঝালাই করে নেয়া যাক সেই মোহৌষধি তুলসীর গুনের পসরা সম্পর্কে, এরই সাথে জেনে নেই এর পেছনে লুকিয়ে থাকা কিছু অজানা বৈজ্ঞানিক তথ্য! তুলসী গাছ কাশি, ডায়রিয়া রোগ, পোড়া দাগ তুলতে, জ্বর উপশমে ব্যবহার করা হয়। এতে ইউগেনল নামক রাসায়নিক পদার্থ থাকায় তা Cox-2 inhibitor রূপে কাজ করে বলে তা ব্যথা নাশক হিসাবে ব্যবহৃত হয়। চর্মরোগে তুলসী পাতা দূর্বাঘাসের ডগার সাথে বেটে মাখলে ভালো হয়ে যায়। উচ্চ রক্তচাপ ও কোলেস্টেরল কমিয়ে হৃদপিণ্ডের রক্ত সরবরাহের মাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে এই তুলসী। এটি যকৃতের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। ঠাণ্ডা মৌসুমে শিশুদের তুলসী পাতার রস খাওয়ালে কৃমি দূর হয়। তুলসী পাতা বেঁটে মুখে মাখলে ব্রণ দূর হয়। সকাল বেলা খালি পেটে তুলসী পাতার রস খেলে খাবারের রুচি বাড়ে। তুলসী গাছে প্রায় ১০০’র মত ফাইটোক্যামিকেলস (যেমন -oleanolic acid, Beta caryophyllene ইত্যাদি) থাকে বলে এটি ক্যান্সার চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়। দাঁতের রোগ উপশম করে বলে টুথপেস্ট তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। তুলসীর অ্যালকোহলিক নির্যাস রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।

এখন হয়তো তুলসী গাছের সামনে গিয়ে দাঁড়ালে, অন্তত একবারের জন্য হলেও মনে হবে, আপনি তুলসী বিশারদ! এটিই বা কম কিসের?

-লেখক : শিক্ষার্থী, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।



   শেয়ার করুন
   আপনার মতামত দিন
     পরিবেশ
আবাসিক এলাকায় কৃষি জমিতে ইটভাটা নির্মাণের পায়তারা!
.............................................................................................
বিপন্ন ময়ূরটিকে আঘাত করে স্থানীয়রা
.............................................................................................
এবার মোজাম্বিকের উপকূলে ৮৬টি মৃত ডলফিন
.............................................................................................
এশিয়ার সবচেয়ে বিষধর সাপ উদ্ধার ঝিনাইদহে
.............................................................................................
গাছ লাগাও জীবন বাঁচাও
.............................................................................................
লক্ষীপুরে পরিবেশ দূষণকারী ইটভাটার ছড়াছড়ি
.............................................................................................
শব্দ দূষণ মানব দেহের জন্য নিরব ঘাতক
.............................................................................................
বায়ুমণ্ডলে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ ৮ লাখ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ
.............................................................................................
বাংলাদেশের জাতীয় দুর্যোগ নদীভাঙন: পর্ব- ২
.............................................................................................
‘নদী রক্ষায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে’
.............................................................................................
একূল ভাঙে ওকূল গড়ে এইতো নদীর খেলা
.............................................................................................
গাজীপুরে জয়দেবপুর পিটিআই-এ বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন
.............................................................................................
পরিবেশ রক্ষায় ১০ বছর ধরে কাজ করছে চীনের কুকুর
.............................................................................................
সেন্টমার্টিনের আবাসিক হোটেল মালিকদের তলব
.............................................................................................
বিশ্বে বায়ু দূষণে দ্বিতীয় ঢাকা
.............................................................................................
রাজধানীর পরিবেশ দূষণেও যানবাহন
.............................................................................................
সুন্দরবনে শেলা নদীতে কোস্টার ডুবি: তদন্ত কমিটি গঠন
.............................................................................................
সুন্দরবন রক্ষায় ২১ মার্চ দেশব্যাপী অর্ধদিবস হরতাল
.............................................................................................
বরিশালে কীর্তনখোলা নদী দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন
.............................................................................................
রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে সুন্দরবন অভিমুখে জনযাত্রা শুরু
.............................................................................................
ছাতকে সুরমা নদীর পানি দূষন তদন্তে টালবাহানা
.............................................................................................
সিলেটে অবৈধ ১৩শ’ স্টোন ক্রাশার মেশিন চলছে
.............................................................................................
জলবায়ু রক্ষায় বেসরকারি খাতকে কাজে লাগানোর পরামর্শ আইএফসি’র
.............................................................................................
বরিশালে অবৈধ ইটভাটায় জরিমানা
.............................................................................................
ব্রাক্ষণবাড়ীয়ার সরাইলে ব্যাঙের ছাতার মতো গড়ে উঠেছে ইটভাটা
.............................................................................................
পরিবেশ দূষণ ও শিশুরোগ
.............................................................................................
সড়ক পরিবহন আইন ২০১৫: সংশ্লিষ্টদের মতামত গুরুত্ব না পেলে রিট করবে বাপা
.............................................................................................
সুন্দরবন রক্ষায় খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন
.............................................................................................
আগৈলঝাড়ায় পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে একটি স-মিল বন্ধ করলেও অজ্ঞাতকারণে অন্যগুলো এখনও চালু
.............................................................................................
পশুর নদীতে কার্গোডুবি: চালকের গাফিলতি ও অদক্ষতাই দায়ী
.............................................................................................
পাবনায় পদ্মা থেকে অবাধে বালু উত্তোলন
.............................................................................................
বরিশাল নগরীর অসংখ্য পুকুর ও খাল ভরাট হয়ে যাচ্ছে
.............................................................................................
রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে বাম মোর্চার রোডমার্চ
.............................................................................................
চলুন, ৫ মিনিটেই হয়ে যাই তুলসী বিশারদ !
.............................................................................................
সাপের চেয়েও বিষধর ব্যাঙ!
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT