সোমবার, ৫ ডিসেম্বর 2022 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   সম্পাদকীয়
  আবারও বাড়ল গ্যাসের দাম
  25, February, 2017, 5:47:2:PM

আবারও গ্যাসের দাম বাড়ানো হলো। আগামি ১ মার্চ এবং ১ জুন দুই দফায় এই দাম বৃদ্ধি কার্যকর হবে বলে বাংলাদেশ অ্যানার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে। বর্ধিত দাম অনুযায়ী, আগামি ১ মার্চ থেকে আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ৮০০ এবং এক চুলার জন্য ৭৫০ টাকা করা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে ১ জুন থেকে আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ৯৫০ এবং এক চুলার জন্য ৯০০ টাকা করা হয়েছে। বাণিজ্যিক ইউনিট মার্চে ১৪.২০ টাকা এবং জুনে ১৭.০৪ টাকা হবে। আর সিএনজির দাম মার্চে প্রতি ঘনমিটার ৩৮ টাকা ও জুনে ৪০ টাকা করা হয়েছে। ক্যাপটিক পাওয়ার ১ মার্চ থেকে প্রতি ঘনমিটার ৮.৯৮ এবং ১ জুন থেকে ৯.৬২ টাকা করা হয়েছে। বিদ্যুৎ খাতের গ্যাসের দাম মার্চ থেকে ২.৯৯ টাকা ও জুন থেকে ৩.১৬ টাকা করা হয়েছে। এ ছাড়া চা বাগানে গ্যাসের দাম ১ মার্চ থেকে ৬.৯৩ টাকা আর ১ জুন থেকে ৭.৪২ টাকা করা হয়েছে। সার কারখানায় মার্চে ২.৬৪ টাকা এবং জুনে ২.৭১ টাকা করা হয়েছে। অন্যদিকে গৃহস্থালির কাজে মিটারে গ্যাসের দাম প্রতি ঘনমিটার ১ মার্চ থেকে ৯.১০ টাকা এবং ১ জুন থেকে ১১.২০ করা হয়েছে। দুই বছরের মাথায় আবারও গ্যাসের দাম বাড়ানোর কারণে ইতোমধ্যে ভোক্তা পর্যায়ে এনিয়ে আলোচনা চলছে। আমরা জানি, প্রতিবার গ্যাসের দাম বৃদ্ধির সময় গণশুনানির ব্যবস্থা করা হয়। এর মাধ্যমে দাম বৃদ্ধির অন্তত একটি ব্যাখ্যা দাঁড় করানোর চেষ্টা চলে। এবারও তেমনটি হয়েছে। তবে সার্বিকভাবে এখন গ্যাসের দাম বৃদ্ধি সাধারণ গ্রাহকের জন্য মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে নতুন করে চাপল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।


গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসির চেয়ারম্যান বলেছেন, মানুষের পকেটের ওপর যাতে চাপ না পড়ে সে জন্য দুই দফায় দাম বাড়ানো হয়েছে। যদিও কোম্পানিগুলোর প থেকে ৯৪.০৯ শতাংশ হারে বাড়ানোর আবেদন ছিল। তারা পর্যালোচনা করে দুই দফায় ২২.০৭ শতাংশ হারে বাড়িয়েছেন। তথ্য মতে, প্রতিবছরের মতো এবারও দাম বৃদ্ধির জন্য পেট্রোবাংলার প্রস্তাবের ওপর গণশুনানি হয়। শুনানি শেষে বিইআরসি আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ১ হাজার এবং এক চুলার জন্য ৮০০ টাকা প্রস্তাব করে। আর যানবাহনে ব্যবহৃত সিএনজির দাম প্রতি ঘনমিটার ৪০ টাকা প্রস্তাব করে। শুধু গ্যাসের দামই নয়, পরে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিরও ইঙ্গিত দিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। গ্যাসের দাম বাড়ানোর ফলে সিএনজিসহ পরিবহন ভাড়া এবং পণ্যের উৎপাদন খরচসহ আনুষঙ্গিক বিভিন্ন পণ্যের দামও যে বাড়বে বিষয়টি সরকারের বিবেচনায় নেয়া যুক্তিসংগত ছিল বলেই বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। গ্যাসের দাম বাড়ানোর ফলে নিম্ন আয়ের মানুষের দৈনন্দিন খরচ মেটাতে নাভিশ্বাস উঠবে তা বলার অপো রাখে না।

বলা বাহুল্য নয় যে, দাম বাড়ালেও গ্যাস সংকট দূর করার কোনো ব্যবস্থা নিতে পারেনি সংশ্লিষ্টরা। গ্যাস সরবরাহের ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরেই নানারকম অনিয়ম চলেছে। বৈধ গ্রাহকের বাইরেও হাজার হাজার অবৈধ সংযোগ আছে যার অর্থ কখনো সরকারি কোষাগারে জমা হয় না। অভিযোগ রয়েছে সংশ্লিষ্ট অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজশেই এসব অপর্কম হয়। এসব অসঙ্গতির খবর গণমাধ্যমেও বহুবার শিরোনাম হয়েছে। কিন্তু তা সমাধানের কোনো কার্যকর উদ্যোগ নেয়া হয়নি। বরং যারা নিয়মিত গ্যাস বিল দেন, সেই বৈধ গ্রাহকের ওপরই ব্যয়ের বোঝা চাপানো হচ্ছে। গ্যাস কর্তৃপক্ষের অনিয়ম-দুর্নীতির খেসারত দিতে হচ্ছে সাধারণ গ্রাহকদের। এ অবস্থা কিছুতেই কাম্য হতে পারে না।

পরিষেবার মান না বাড়িয়ে বারবার দাম বাড়ালে জনজীবনে যে বিড়ম্বনা বাড়ে তা সরকার না বুঝলে বুঝবে কে?



   শেয়ার করুন
   আপনার মতামত দিন
     সম্পাদকীয়
প্রতারকদের প্রশ্রয় নয়
.............................................................................................
আত্মহত্যা ও বিবিধ আলোচনা
.............................................................................................
দুর্ঘটনা প্রতিরোধই কাম্য
.............................................................................................
ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়া
.............................................................................................
প্রতিদিন ১৫ জন নিহত দুর্ঘটনায়
.............................................................................................
খুন-খারাবি চলছেই
.............................................................................................
রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধ করতে হবে
.............................................................................................
সক্রিয় সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্র
.............................................................................................
ঢাকার খুচরা দোকানিরা বেপরোয়া
.............................................................................................
চাল নিয়ে কারসাজি
.............................................................................................
প্রতারণা সৌদি আরবেও
.............................................................................................
বেড়েছে চাল আমদানি, উৎপাদন বাড়াতে হবে
.............................................................................................
শ্রমঘন শিল্পের দিকে বেশি মনোযোগ দিন
.............................................................................................
গরুচোর সন্দেহে চারজনকে পিটিয়ে হত্যা
.............................................................................................
ইয়াবার বিস্তার রোধে কঠোর পদক্ষেপ নিন
.............................................................................................
দক্ষ কর্মীর অভাব
.............................................................................................
শিশু ধর্ষণ ও হত্যা: নজিরবিহীন বর্বরতা
.............................................................................................
অবাধ লুটপাট বিমানে
.............................................................................................
অস্থিরতা বিদেশি শ্রমবাজারে
.............................................................................................
বেড়েই চলেছে ধর্ষণ গণধর্ষণ: সম্মিলিত পদক্ষেপ জরুরি
.............................................................................................
আবারও বাড়ল গ্যাসের দাম
.............................................................................................
অস্থির চালের বাজার
.............................................................................................
নিঝুম দ্বীপে নৈরাজ্য
.............................................................................................
অর্থ প্রেরণ-বিতরণ সহজ হোক
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করুন
.............................................................................................
এমপি লিটন হত্যা গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার ওপর বড় আঘাত
.............................................................................................
দুর্নীতি কর আহরণে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT